×

সারাদেশ

৬ ঘণ্টা পর সরলো হকাররা

ফুটপাত উচ্ছেদের বিরোধিতায় লালবাগ ডিসি কার্যালয় ঘেরাও

Icon

প্রকাশ: ১৬ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক : রাস্তা ও ফুটপাত দখল করে বসানো দোকানপাট উচ্ছেদ করায় ঢাকা মেট্রোপিলিটন পুলিশের (ডিএমপি) লালবাগ বিভাগের উপকমিশনারের (ডিসি) কার্যালয় ঘেরাও করেছে হকাররা। গতকাল বুধবার বেলা ১১টা থেকে বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত প্রায় ৬ ঘণ্টার মতো কার্যালয় ঘেরাও করে রাখে তারা। এ সময় বিক্ষোভ করে হকারদের পুনর্বাসন করে উচ্ছেদের দাবি জানান তারা। এদিকে, পুলিশের পক্ষ থেকে হকারদের তালিকা চেয়ে তিনদিন সময় নেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। পুলিশের একাধিক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, রাস্তা ও ফুটপাত দখল করে দোকানসহ বিভিন্ন স্থাপনা বসানোর কারণে জনসাধারণ ও যানবাহন চলাচলে ভোগান্তি হয়। এ কারণে নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতে ও জনভোগান্তি কমাতে নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে অবৈধভাবে রাস্তা ও ফুটপাত দখল করে বসানো দোকান ও বিভিন্ন স্থাপনা উচ্ছেদ করা হচ্ছে। তবে উচ্ছেদের বিরোধিতা করে অনেকে ডিসি কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ ও অবস্থান ধর্মঘট করে। আন্দোলনকারী বেশ কয়েকজন হকার বলেন, তারা দীর্ঘদিন ধরে লালবাগের বিভিন্ন এলাকায় ফুটপাতে দোকান করে আসছেন। কোনো ধরনের পুনর্বাসন ছাড়া দোকান উচ্ছেদ করায় আয়ের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। সরকারের পক্ষ থেকে স্থায়ী ব্যবস্থা করে ফুটপাত উচ্ছেদের দাবি জানান তারা। লালবাগ বিভাগের ৬টি থানা থেকে দেড় হাজারের বেশি হকার বিক্ষোভে অংশ নিয়েছেন বলে তারা দাবি করেন। বাংলাদেশ হকার্স ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক হযরত আলী বলেন, কিছুদিন পর পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে হকারদের উচ্ছেদ করায় তারা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। পুনর্বাসন ছাড়া উচ্ছেদের প্রতিবাদে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করছেন তারা। বিষয়টি নিয়ে নানা সময়ে আশ্বাস দেয়া হলেও কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। এ কারণে গতকাল বুধবার লালবাগ বিভাগের ৬টি থানা এলাকা থেকে হকাররা এসে পুলিশ কমিশনারের কার্যালয় ঘেরাও করে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছেন। তিনি বলেন, পুনর্বাসন ছাড়া যেন হকার উচ্ছেদ করা না হয় সেই দাবি জানানো হয়েছে। পুলিশের পক্ষ থেকে হকারদের তালিকাসহ তিনদিনের সময় চাওয়া হয়েছে। এরপরও কোনো ব্যবস্থা না নেয়া হলে ডিএমপি কমিশনারসহ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে দাবি নিয়ে যাবে বলে জানান হকাররা। পুলিশের লালবাগ বিভাগের ডিসি মো. মাহবুব-উজ-জামান বলেন, নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে সড়ক ও ফুটপাত মুক্ত রাখতে হকার উচ্ছেদ করা হয়। রাস্তাঘাট দখল করে জনগণের ভোগান্তি তৈরি করে দোকান করার দাবি নায্য হতে পারে না। তবে তাদের দাবির বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। এছাড়া তাদের কাছে প্রকৃত হকারদের তালিকা চাওয়া হয়েছে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App