×

সারাদেশ

সিআইডি প্রধান

আপাতত ফরেনসিকের ওপরে ঢাবিতে একটি বিভাগ দরকার

Icon

প্রকাশ: ২৮ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক : পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) প্রধান অতিরিক্ত আইজিপি মোহাম্মদ আলী মিয়া বলেছেন, ফরেনসিকের বিষয়ে বিশেষায়িত শিক্ষার জন্য আমাদের দেশে কোনো বিশ্ববিদ্যালয় নেই। দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে শুধু ভারতে আছে। ফরেনসিক বিশ্ববিদ্যালয় চালু করার জন্য চেষ্টা করছি আমরা। যা এখন সময়ের দাবি। আপাতত ফরেনসিকের ওপরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) একটি স্বতন্ত্র বিভাগ চালু করা দরকার। ঢাবির বর্তমান উপাচার্যের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। আশা করছি সহসাই এ বিষয়ে একটি উদ্যোগ নেয়া সম্ভব হবে। গতকাল শনিবার রাজধানীর মালিবাগের সিআইডি সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত ‘স্টুডেন্টস এনগেজমেন্ট টু কমব্যাট সাইবারক্রাইম’ শীর্ষক সেমিনারে এসব কথা বলেন তিনি। এতে অংশ নেন ঢাবির ৯১ জন, বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ৫৩ জন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০ জন, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০ জন, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০ জন, উত্তরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২১ জন, বাংলাদেশস্থ কানাডিয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের ২২ জন ও গ্রিন বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০ জনসহ মোট ২৪৭ জন শিক্ষার্থী। সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিআইডি প্রধান বলেন, সাইবার অপরাধ নিয়ন্ত্রণে শিক্ষার্থীদের অংশ নেয়া অপরিহার্য। কারণ এখানে উপস্থিত শিক্ষার্থীরাই আগামীর ভবিষ্যৎ, তারাই হবে জাতির কর্ণধার ও দেশ গড়ার কারিগর। সাইবার বুলিং, সাইবার হ্যারাজমেন্ট, আনইথিক্যাল কনটেন্ট, হ্যাকিং, ফিশিং, ম্যালওয়্যার ও র?্যানসমওয়্যার ইত্যাদি সাইবার অপরাধ প্রতিরোধে আগামীতে ফ্রন্টলাইন ফাইটার হিসেবে শিক্ষার্থীরাই কাজ করবে। তিনি বলেন, ডিজিটাল সচেতনতা বাড়ানোর মাধ্যমে সাইবার অপরাধ নিয়ন্ত্রণে সক্রিয় হয়ে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে সিআইডির সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করবে তরুণ প্রজন্ম তথা শিক্ষার্থীরা। সেমিনারের প্রশ্নোত্তর ও উন্মুক্ত আলোচনা পর্বে তরুণ শিক্ষার্থীরা প্রাণবন্ত অংশগ্রহণ করেন। সেমিনারে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীরা সাইবার অপরাধ সম্পর্কে নিজেদেরকে সমৃদ্ধ করেন ও তাদের মতামত প্রকাশ করেন। মেধাস্বত্ব পাচার, পাইরেটস বই পাচার হচ্ছে। এক্ষেত্রে প্রতিকার কী? সিআইডি কীভাবে সহযোগিতা করতে পারে? সেমিনারে ঢাবির এক শিক্ষার্থীর প্রশ্নের উত্তরে সিআইডি প্রধান মোহাম্মদ আলী মিয়া বলেন, এ বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার সুযোগ আমাদের আছে। মানিলন্ডারিং আইনের মধ্যেই এ সংক্রান্ত কপিরাইট সংক্রান্ত ধারা আছে। সুনির্দিষ্ট তথ্য পেলে বা অভিযোগ করা হলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে সাধারণত এ সংক্রান্ত মামলা থানায় হয় না। এ সংক্রান্ত মামলা আদালতে হয়। সেমিনারে সোশ্যাল মিডিয়াসহ ডিজিটাল মাধ্যম ব্যবহারে নানা ধরনের জালিয়াতি, আর্থিক অপরাধ, সাইবার অপরাধ, সাইবার চাঁদাবাজি, মাদক পাচার, অর্থ পাচার, নানা ধরনের প্রতারণার ফাঁদ ও হ্যাকিং নিয়ে বিশদ আলোচনা হয়। সিআইডির পক্ষ থেকে সচেতনতামূলক কার্যক্রম, তথ্য শেয়ারিং ও নিজ নিজ জায়গা থেকে চেঞ্জ মেকার হিসেবে এগিয়ে আসার আহ্বান জানানো হয়। সেমিনার শেষে প্রধান অতিথি অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের সনদ দেন এবং শিক্ষার্থীরা সিআইডির ফরেনসিক ল্যাবগুলো পরিদর্শন করেন।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App