×

সারাদেশ

হলদিয়া রাবার বাগানের ৫৯০ একর জমি বেদখল

Icon

প্রকাশ: ২৮ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

এম. রমজান আলী রাউজান (চট্টগ্রাম) থেকে : রাউজানের হলদিয়া ইউনিয়নের হলদিয়া, শিরনী বটতল, এয়াসিন নগর, বৃকবানুপুর, বৃ›দ্বাবনপুর, জানিপাথর, গলাচিপা, ওয়াহেদ্যাখীল, দক্ষিণ ক্ষিরাম, ক্ষিরাম, রানারস, গর্জনিয়া এলাকার ২ হাজার ৮শ একর ৫৭ শতক পাহাড়ি জমিতে হলদিয়া রাবার বাগান। এর মধ্যে বাগানের ৫৯০ একর জমি প্রভাবশালী ব্যক্তিরা দখল করে বৃক্ষের বাগান ও মৎস্য প্রকল্প গড়ে তুলেছেন। এছাড়া বাগানের জমি রাউজানসহ দেশের বিভিন্ন এলাকার দরিদ্র ভূমিহীন পরিবারের কাছ থেকে টাকা নিয়ে ননজুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে কাগজ করে অবৈধভাবে বিক্রি করছেন প্রভাবশালীরা। ইতোমধ্যে হলদিয়া রাবার বাগানের জমিতে অবৈধভাবে বাড়িঘর নির্মাণ করে বসবাস করছেন পাঁচ শতাধিকের বেশি পরিবার। হলদিয়া রাবার বাগান ঘুরে দেখা যায়, হলদিয়া ইউনিয়নের এক ইউপি সদস্য, বিএনপি নেতা ও কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেতা হলদিয়া রাবার বাগানের জমি অবৈধভাবে দখল করে মৎস্য প্রকল্প, বৃক্ষের বাগান ও খামার বাড়ি গড়ে তুলেছেন। আশির দশকে প্রতিষ্ঠিত এই রাবার বাগানের জমি অবৈধভাবে দখল করে টাকার বিনিময়ে বিক্রি, মৎস্য প্রকল্প ও বৃক্ষের বাগান গড়ে তুললে ও জড়িতদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি রাবার বাগান কর্তৃপক্ষ। গত মার্চ মাসে রাবার বাগানের অফিসের পাশে ও করাখানার পূর্ব-দক্ষিণে গড়ে তোলা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে বাগান কর্তৃপক্ষ রাউজান থানার পুলিশ নিয়ে অভিযান চালায়। তবে অবৈধভাবে বসতি গড়ে তোলা পরিবারের সদস্যদের বিক্ষোভের কারণে উচ্ছেদ অভিযান শেষ না করে ফিরে যায় রাবার বাগান কর্তৃপক্ষ। গত ৯ এপ্রিল অফিসের পেছনে ও কারখানার দক্ষিণ পাশে বাগানের জমিতে অবৈধভাবে বসবাসকারী পরিবারকে ১৫ দিনের মধ্যে তাদের বসতঘর সরিয়ে নিতে নোটিস দেয় হলদিয়া রাবার বাগানের ব্যবস্থাপক সুজিত রায় ভৌমিক। অবৈধভাবে বসবাসকারী পরিবারের সদস্যরা তাদের গড়ে তোলা অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে না নিলে রাবার বাগান কর্তৃপক্ষ তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করে অবৈধভাবে বসবাসকারীদের উচ্ছেদ করবেন বলে নোটিসে উল্লেখ করেন। বাগানের বিভিন্ন এলাকায় পাঁচ শতাধিকের বেশি পরিবার বসতঘর নির্মাণ করলেও মাত্র ১৩ পরিবার ব্যতীত আর কাউকে সরে যেতে নোটিস দেয়নি বাগান কর্তৃপক্ষ। রাবার বাগানের জমিতে অবৈধভাবে ঘর নির্মাণ করে পরিবার নিয়ে বসবাসকারী ৯৫ বছরের বৃদ্ধা আবুল কালাম বলেন, আমার পৈতৃক বাড়ি হলদিয়া ইউনিয়নের উত্তর সর্তায়। পৈতৃক বসতভিটায় পর্যাপ্ত জায়গা না থাকায় ৪০ বছর আগে হলদিয়া ইউয়িনের তৎকালীন চেয়ারম্যান প্রয়াত আবদুল কাদের প্রকাশ কাদের মিয়াকে টাকা দিয়ে তার দখলে থাকা হলদিয়া রাবার বাগানের জমি কিনে বসতঘর নির্মাণ করে পরিবার নিয়ে বসবাস করে আসছি। হলদিয়া রাবার বাগানের ব্যবস্থাপক সুজিত রায় ভৌমিক বলেন, বাগানের বিভিন্ন এলাকায় ৫৯০ একর জমি প্রভাবশালী ব্যক্তিদের দখলে রয়েছে। তবে কিছু জমি উদ্ধার করেছি। অবশিষ্ট জমি উদ্ধার প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। প্রাথমিকভাবে বাগানের জমিতে অবৈধভাবে বসবাসকারী পাঁচ শতাধিকের বেশি পরিবারের মধ্যে ১৩টি পরিবারকে স্থাপনা সরিয়ে নিয়ে যেতে নোটিস দেয়া হয়েছে। অবশিষ্ট অবৈধ স্থাপনা ও সরিয়ে নিতে পর্যায়ক্রমে নোটিস দেয়া হবে ।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App