×

সারাদেশ

জামালপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের আপত্তিকর ভিডিও ফাঁস

Icon

প্রকাশ: ২৭ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

সাইমুম সাব্বির শোভন, জামালপুর : জামালপুর সদর উপজেলায় এক নারীর সঙ্গে ইউপি চেয়ারম্যানের আপত্তিকর কাজের ভিডিও ফাঁস হয়েছে। ৬ মিনিট ৮ সেকেন্ডের ভিডিওটি ফেসবুকের, মেসেঞ্জার ও হোয়াটসঅ্যাপে ছড়িয়ে পড়েছে। এ নিয়ে ওই চেয়ারম্যানের নিজ ইউনিয়ন বাঁশচড়াসহ জেলাজুড়ে তোলপার শুরু হয়েছে। ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল সদর উপজেলার বাঁশচড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্ব›িদ্বতায় নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি। ভিডিওতে দেখা যায়, বাঁশচড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল একটি বাসার কক্ষে বসে আছেন। এ সময় এক নারীকে ঘরের মধ্যে চলাফেরা করতে দেখা যায়। চেয়ারম্যানের সামনেই ওই নারী ভিডিও করার জন্য একটি ফোন উপরে রাখেন। একটি শিশু ও নারীকে টাকা দিয়ে ঘর থেকে বের করে দেন চেয়ারম্যান। কিছুক্ষণ পরই এক বোরকা পরা নারী ঘরে ঢোকামাত্রই তাকে টেনে কাছে নেন চেয়ারম্যান। এরপরেই ওই নারীর সঙ্গে শারীরিক মিলনে জড়িয়ে পড়েন চেয়ারম্যান। এ ভিডিও ফেসবুক, ম্যাসেঞ্জার ও হোয়াটসঅ্যাপে ছড়িয়ে পড়েছে। এ নিয়ে জেলাজুড়ে সাধারণ মানুষের ভেতর তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। বাঁশচড়া ইউনিয়নের ১০ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা মো. কালু বলেন, একজন জনপ্রতিনিধি এমন নেক্কারজনক কাজ করতে পারে সেটা আমাদের জানা ছিল না। এ ধরনের মানুষকে জনপ্রতনিধির চেয়ার থেকে সরিয়ে দেয়া উচিত। একই ইউনিয়নের বাসিন্দা আব্দুল খালেক বলেন, চেয়ারম্যানের এমন কাজে আমাদের ইউনিয়নের মান সম্মান শেষ হয়ে গেছে। যে মানুষের বিবেক নেই। তাকে দিয়ে জনগণের সেবা কীভাবে হবে? ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে বাঁশচড়ার নিজ বাড়িতে অবস্থান করছেন চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল। আর এ বিষয় নিয়ে কথা বলতে অভিযুক্ত চেয়ারম্যান আব্দুল জলিলের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। জামালপুর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ডা. আব্দুল মান্নান বলেন, আমি এখনো ভিডিওটি দেখিনি। তাই এ নিয়ে আমার কোনো মন্তব্য নেই। মানবাধিকার কর্মী জাহাঙ্গীর সেলিম বলেন, এটি একটি সমাজিক অবক্ষয়ের উদাহারণ। একজন চেয়ারম্যান যিনি জনগণের প্রতিনিধিত্ব করেন, তার কাছে এমন ঘটনা কখনোই কাম্য নয়। এটি একই সঙ্গে নৈতিক স্খলনও হয়েছে। জামালপুর সদর থানার ওসি মুহাম্মদ মহব্বত কবির বলেন, এ ঘটনায় এখনো কোনো অভিযোগ আমাদের কছে কেউ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App