×

সারাদেশ

নকল সাপের বিষ বিক্রি

চক্রের চার জন সদস্য গ্রেপ্তার

Icon

প্রকাশ: ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক : রাজধানীর হাতিরঝিল এলাকায় অভিযান চালিয়ে আন্তর্জাতিক চোরাকারবারি চক্রের ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। গ্রেপ্তাররা হলেন- মো. এনামুল হক (৫৪), মো. সফিকুল ইসলাম (৫৪), মো. এরশাদ আলী (৩৬) ও সৈয়্যদ মোহাম্মদ ইব্রাহীম খলিলুল্লাহ (৩৪)। গত মঙ্গলবার গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। র‌্যাব বলছে, গ্রেপ্তাররা কুখ্যাত আন্তর্জাতিক চোরাকারবারি। তারা দেশি-বিদেশি বিভিন্ন ওষুধ কোম্পানির কাছে নকল সাপের বিষ বিক্রির নামে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিল। এছাড়া পার্শ¦বর্তী দেশে নকল বিষ চোরাচালান করছিল। গ্রেপ্তারদের কাছ থেকে ৬০ কোটি টাকা মূল্যমানের সাপের বিষ, বিদেশি আগ্নেয়াস্ত্র ও প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত বিবিধ সরঞ্জামাদি জব্দ করা হয়েছে। পরে জব্দকৃত বিষ র‌্যাব সদর দপ্তর ফরেনসিক বিশেষজ্ঞের পরীক্ষায় ভুয়া বলে প্রমাণিত হয়। এ বিষয়ে র‌্যাব-১০ এর সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মিডিয়া এম জে সোহেল জানান, গত মঙ্গলবার গভীর রাতে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে রাজধানী ঢাকার হাতিরঝিল এলাকায় অভিযান চালিয়ে আন্তর্জাতিক প্রতারক চক্রের ওই ৪ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, প্রতারক চক্রটি সাপের বিষ রাখতে বিশেষ ধরনের কাচের কৌটা ব্যবহার করে। এসব কাচের কৌটার গায়ে লেখা থাকে বিভিন্ন দেশের নাম ও কোড নম্বর। চক্রটি বিষ ক্রেতাদের বলে যে, তাদের কাছে একটি বিদেশি পিস্তল আছে- যা দিয়ে সাপের বিষের কৌটায় ফায়ার করলে তা ফাটবে না। আর বিষ নকল হলে কৌটাটি ফেটে যাবে। তারা আরো বলে আসল বিষ স্বচ্ছ কাঁচের জারে রাখার পর এর ওপর লেজার লাইট ধরলে একপাশ থেকে অন্য পাশে যাবে না। এছাড়াও তারা ক্রেতাদের তাদের কাছে থাকা বিভিন্ন বই, অ্যালবাম ও সিডি দেখায়। যেগুলোতে বিষ কোথা থেকে নেয়া হয়েছে ও কীভাবে ব্যবহার করতে হবে সেসব লেখা থাকে। তারা এগুলোকে মূল্যবান সাপের বিষ বলে গোপনে প্রচারণা চালায়। এক প্রশ্নের জবাবে র‌্যাবের এ কর্মকর্তা বলেন, দেশি-বিদেশি বিভিন্ন ওষুধ কোম্পানিগুলো এসব সাপের বিষ লাখ লাখ টাকা দিয়ে কিনে নেয়। কারণ বৈধভাবে দেশের বাইরে থেকে এসব সাপের বিষ আনতে হলে কয়েকগুণ বেশি টাকা গুনতে হয়। কম দামের কারণে ক্রেতারা সহজে প্রতারকদের ফাঁদে পা দেয়। তবে গ্রেপ্তাররা নকল বিষ সরবরাহ করছিল। কারণ জব্দ করা বিষ র‌্যাব সদর দপ্তর ফরেনসিক বিশেষজ্ঞের মাধ্যমে পরীক্ষা করে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া যায় যে, কাঁচের বোতলে রক্ষিত সাপের বিষগুলো নকল। এতে সাপের বিষের কোনো বৈশিষ্ট্য নেই। কিন্তু এ প্রতারকরা বলে আসছিল তারা দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে বিষ সংগ্রহ করেছে। গ্রেপ্তারদের বিরুদ্ধে মামলা শেষে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App