×

সারাদেশ

নওয়াপাড়ায় ভৈরব নদে নাব্য সংকটে বাড়ছে জাহাজডুবি

Icon

প্রকাশ: ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

এস এম রফিকুল আলম, নওয়াপাড়া (যশোর) থেকে : অভয়নগর উপজেলার ভৈরব নদে প্রকট নাব্য সংকটের কারণে ঘন ঘন ঘটছে জাহাজডুবির ঘটনা। গত চার মাসে নদে চারটি কয়লাবোঝাই জাহাজ ডুবে গেছে। সর্বশেষ গত ১৩ এপ্রিল উপজেলার নওয়াপাড়ায় ভৈরব নদে কয়লাবোঝাই এমভি সাকিব বিভা-২ কার্গো জাহাজটি ডুবে যায়। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, চার কারণে ভৈরব নদে জাহাজডুবির ঘটনা ঘটছে। নিয়মিত খনন না করায় গুরুত্বপূর্ণ নওয়াপাড়া নৌবন্দরের ভৈরব নদের নাব্য সংকট দিন দিন প্রকট হচ্ছে। তাছাড়া নদ দখলের কারণে ভৈরব দিন দিন সরু হয়ে পড়ছে। অদক্ষ মাস্টার, ড্রাইভার নিয়ম না মেনে জাহাজগুলো মূল চ্যানেলের বাইরে নদের কিনারায় নোঙর করে। ভাটার সময় নদে অবস্থান করা পণ্যবোঝাই কার্গো জাহাজগুলোর একটি অংশ কাত হয়ে পড়ে থাকে। তাছাড়া জাহাজগুলো পুরনো হওয়ায় পণ্যের অতিরিক্ত ওজনের চাপ সহ্য করতে পারে না। ফলে অনেক সময় জাহাজের তলা ফেটে যায়। আর নদে জোয়ার এলে ফেটে যাওয়া অংশ দিয়ে পানি ঢুকে জাহাজ নদে তলিয়ে যায়। জানা গেছে, গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর বিকালে অভয়নগর উপজেলার দেয়াপাড়া এলাকায় ভৈরব নদে এমভিআর রাজ্জাক নামের একটি কয়লাবোঝাই জাহাজ ডুবে যায়। জাহাজে ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানি করা ৮২০ টন কয়লা ছিল। ডুবে যাওয়ার সাত দিন পর জাহাজটি পানি থেকে তোলা হয়।গত ১৩ জানুয়ারি বিকালে অভয়নগর উপজেলার ধুলগ্রাম এলাকায় ভৈরব নদে এমভি মৌমনি-১ নামের একটি কয়লাবোঝাই কার্গো জাহাজ তলা ফেটে ডুবে যায়। জাহাজে ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানি করা ৭০০ টন কয়লা ছিল। গত ১৫ জানুয়ারি রাত সাড়ে ৩টার দিকে অভয়নগর উপজেলার ভাটপাড়া এলাকায় ভৈরব নদে কয়লাবোঝাই এমভি পূর্বাঞ্চল-৭ কার্গো জাহাজটি ডুবে যায়। জাহাজটিতে প্রায় ৮০০ টন কয়লা ছিল। সর্বশেষ গত ১৩ এপ্রিল রাত সাড়ে ১১টার সময় উপজেলার নওয়াপাড়ায় ভৈরব নদে কয়লাবোঝাই এমভি সাকিব বিভা-২ কার্গো জাহাজটি ঘাটে নোঙর করার সময় তলা ফেটে পানি ঢুকে নদে ডুবে যায়। জাহাজে ৬৮৫ টন কয়লা ছিল। আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান মেসার্স জে এইচ এম গ্রুপ সূত্র জানায়, মোংলা বন্দর থেকে ৬৮৫ টন কয়লা এমভি সাকিব বিভা-২ কার্গোতে বোঝাই করে গত ১২ এপ্রিল উপজেলার নওয়াপাড়ার উদ্দেশে রওনা দেয়। জাহাজের মাস্টার মো. বেল্লাল হোসেন জানান, রাত সাড়ে ১১টার সময় ভাটিতে কার্গো জাহাজটি ঘাটে নোঙর করার জন্য ঘোরানো হচ্ছিল। হঠাৎ নদের শক্ত মাটির সঙ্গে জাহাজের তলদেশের সজোরে আঘাত লাগে। এতে জাহাজের তলদেশ ফেটে যায়। পানি ওঠে রাত পৌনে ১২টার দিকে জাহাজটির নিচের অংশ নদের পানিতে ডুবে যায়। বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের নওয়াপাড়া শাখার সদস্য সচিব নিয়ামুল ইসলাম রিকো বলেন, নওয়াপাড়া ভৈরব নদে নাব্যতা সংকট বিশেষ করে শুকনো মৌসুমে প্রকট আকার ধারণ করেছে। ফুলতলা উপজেলার শিকির হাটে নদের প্রশস্ত এলাকায় ব্যাপক হারে পলি জমে নাব্য সংকট দেখা দিয়েছে। এখান থেকেই মূলত উজানে দেখা দিয়েছে নাব্য সংকট। নদী সরু হয়ে আসছে। ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে নৌযান। যে কারণে গত চার মাসের ব্যবধানে ৪টি জাহাজডুবির ঘটনা ঘটেছে। দ্রুত এর সমাধান না করলে নদে নৌ চলাচল বন্ধ হয়ে যাবে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App