×

খেলা

কিছুক্ষণ পর ভারত-বাংলাদেশ মুখোমুখি, ম্যাচটি দেখবেন যেভাবে

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ০১ জুন ২০২৪, ০৮:২২ পিএম

কিছুক্ষণ পর ভারত-বাংলাদেশ মুখোমুখি, ম্যাচটি দেখবেন যেভাবে

ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বকাপের আগে শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে মাঠে নামছে বাংলাদেশ। শনিবার (১ জুন) রাত সাড়ে ৮টায় নিউ ইয়র্কের নাসাউ কাউন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টাইগারদের প্রতিপক্ষ শক্তিশালী ভারত। বিশ্বকাপের আগে নিজেদের খেলোয়াড়কে বাজিয়ে দেখার ক্ষেত্রে এই ম্যাচটি উভয় দলের জন্যই গুরুত্বপূর্ণ।

এই ম্যাচের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের কন্ডিশনের সঙ্গে শেষ মুহূর্তে নিজেদের মানিয়ে নিতে চেষ্টা করবে উভয় দল। ভারতের খেলোয়াড়রা সবাই আইপিএল খেলে এসেছেন। তাদের প্রস্তুতিতে ঘাটতি নেই। তারপরও বাংলাদেশের বিপক্ষের ম্যাচের আগে নেটে ঘাম ঝরিয়েছেন তারা।

তবে এ ম্যাচে বোঝা যাবে বাংলাদেশের ব্যাটিং অর্ডার কেমন হতে যাচ্ছে। লিটনের ওপর আরো একবার ভরসা করবে নাকি তানজিদ-সৌম্যে আস্থা রাখবে। নেটে বল করলেও এ ম্যাচে তাসকিনকে নিয়ে হয়ত ঝুঁকি নিবে না টিম ম্যানেজমেন্ট। সাকিব আল হাসান লম্বা সময় ব্যাটিং সেশন করেছেন। তবে অধিনায়ক চান যুক্তরাষ্ট্রে থাকা বাংলাদেশিদের আকুণ্ঠ সমর্থন।

আরো পড়ুন: নির্বিঘ্নে যেসব অ্যাপ ও চ্যানেলে দেখা যাবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

এদিকে আগের আট বিশ্বকাপকে ছাড়িয়ে যাওয়ার অপেক্ষায় এবারের বিশ্বকাপ। কারণ- এতোবড় পরিসরে কখনো কোনো বিশ্বকাপের আয়োজন করেনি আইসিসি। এর আগে, একাধিক দেশে বিশ্বকাপ আয়োজন হলেও অনুষ্ঠিত হয়নি এতো ম্যাচ। প্রথমবার ২০ দল অংশ নিচ্ছে এই টুর্নামেন্টে। তাই স্বাভাবিকভাবেই ম্যাচের সংখ্যাও বেড়েছে।

জেনে নেয়া যাক, কোন দেশে কোন চ্যানেল এবং অ্যাপে দেখা যাবে ক্রিকেটের এই মহাযজ্ঞ। উপমহাদেশে বিশ্বকাপ খেলার ফিড সরবরাহ করবে ডিজনি। ভারতের স্টার স্পোর্টস ও হটস্টারে দেখা যাবে খেলা। পাকিস্তানে পিটিভি ও টেন স্পোর্টসের পাশাপাশি মাইকো-তামাশা অ্যাপেও ম্যাচগুলো দেখা যাবে।

শ্রীলঙ্কায় দেখা যাবে টিভি ওয়ান, সিরাসা ও শক্তি টিভিতে। আর বাংলাদেশে খেলা দেখা যাবে নাগরিক টেলিভিশনের পর্দায়। এছাড়াও অনলাইনে টফি অ্যাপে দেখতে পারবেন বাংলাদেশি সমর্থকরা। এছাড়াও বাংলাদেশ-ভারত প্রস্তুতি ম্যাচও দেখা যাবে টিভিতে।

বিশ্বকাপের সহ-আয়োজক যুক্তরাষ্ট্রে খেলা দেখা যাবে উইলো টিভিতে। একই টিভিতে প্রতিবেশী কানাডার দর্শকরাও খেলা দেখার সুযোগ পাবেন। বিশ্বকাপের মূল আয়োজক ওয়েস্ট ইন্ডিজে খেলা দেখাবে ইএসপিএন ক্যারাবিয়ান চ্যানেলে। এছাড়া ইএসপিএন প্লে ক্যারাবিয়ান অ্যাপেও দেখা যাবে বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো।

ইংল্যান্ডের দর্শকদের জন্য খেলা সম্প্রচার করবে স্কাই স্পোর্টস। অনলাইনে দেখা যাবে স্কাইগো, নাউ এবং স্কাই স্পোর্টস অ্যাপে। নর্দান আয়ারল্যান্ডেও দেখা যাবে স্কাই স্পোর্টস টিভির পাশাপাশি এসব অ্যাপে।

অবাক করার মতো বিষয় অস্ট্রেলিয়ায় কোনো টিভি চ্যানেলে দেখা যাবে না বিশ্বকাপের ম্যাচ। ভক্তদের খেলা দেখতে হবে প্রাইম ভিডিওর ওয়েবসাইট ও অ্যাপে। নিউজিল্যান্ডের দর্শকরা খেলা দেখতে পারবেন স্কাই স্পোর্টসের মাধ্যমে।

দক্ষিণ আফ্রিকা, উগান্ডা ও নামিবিয়ায় সম্প্রচার করবে সুপার স্পোর্টস টিভি চ্যানেল। পাশাপাশি তাদের অ্যাপেও দেখানো হবে খেলাগুলো। এছাড়া আইসিসির অফিসিয়াল টিভি icc.tv-তে সরাসরি দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া ও ইউরোপের ৮০টি অঞ্চল থেকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো সরাসরি দেখা যাবে। নির্বিঘ্নে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ যেভাবে এবং যেসব চ্যানেলে দেখা যাবে

মাঝখানে আর মাত্র এক দিনের অপেক্ষা। এরপরই মাঠে গড়াবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নবম আসর। ২০ দলের ৫৫ ম্যাচের এই মহাযজ্ঞ দেখতে মুখিয়ে রয়েছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। চার-ছ্ক্কার এই টুর্নামেন্ট কীভাবে দর্শকরা দেখবেন তা নিয়েও আলোচনা কম নেই। এরই মধ্যে সম্প্রচারকারী প্রতিষ্ঠানের নাম জানিয়েছে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা (আইসিসি)। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে থাকা দর্শকরা ঘরে বসে কীভাবে, কোন টিভি চ্যানেল ও অ্যাপে খেলা দেখার সুযোগ পাচ্ছেন তা প্রকাশ করেছে আইসিসি।

আগের আট বিশ্বকাপকে ছাড়িয়ে যাওয়ার অপেক্ষায় এবারের বিশ্বকাপ। কারণ- এতোবড় পরিসরে কখনো কোনো বিশ্বকাপের আয়োজন করেনি আইসিসি। এর আগে, একাধিক দেশে বিশ্বকাপ আয়োজন হলেও অনুষ্ঠিত হয়নি এতো ম্যাচ। প্রথমবার ২০ দল অংশ নিচ্ছে এই টুর্নামেন্টে। তাই স্বাভাবিকভাবেই ম্যাচের সংখ্যাও বেড়েছে।

জেনে নেয়া যাক, কোন দেশে কোন চ্যানেল এবং অ্যাপে দেখা যাবে ক্রিকেটের এই মহাযজ্ঞ। উপমহাদেশে বিশ্বকাপ খেলার ফিড সরবরাহ করবে ডিজনি। ভারতের স্টার স্পোর্টস ও হটস্টারে দেখা যাবে খেলা। পাকিস্তানে পিটিভি ও টেন স্পোর্টসের পাশাপাশি মাইকো-তামাশা অ্যাপেও ম্যাচগুলো দেখা যাবে।

শ্রীলঙ্কায় দেখা যাবে টিভি ওয়ান, সিরাসা ও শক্তি টিভিতে। আর বাংলাদেশে খেলা দেখা যাবে নাগরিক টেলিভিশনের পর্দায়। এছাড়াও অনলাইনে টফি অ্যাপে দেখতে পারবেন বাংলাদেশি সমর্থকরা। এছাড়াও বাংলাদেশ-ভারত প্রস্তুতি ম্যাচও দেখা যাবে টিভিতে।

বিশ্বকাপের সহ-আয়োজক যুক্তরাষ্ট্রে খেলা দেখা যাবে উইলো টিভিতে। একই টিভিতে প্রতিবেশী কানাডার দর্শকরাও খেলা দেখার সুযোগ পাবেন। বিশ্বকাপের মূল আয়োজক ওয়েস্ট ইন্ডিজে খেলা দেখাবে ইএসপিএন ক্যারিবিয়ান চ্যানেলে। এছাড়া ইএসপিএন প্লে ক্যারিবিয়ান অ্যাপেও দেখা যাবে বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো।

ইংল্যান্ডের দর্শকদের জন্য খেলা সম্প্রচার করবে স্কাই স্পোর্টস। অনলাইনে দেখা যাবে স্কাইগো, নাউ এবং স্কাই স্পোর্টস অ্যাপে। নর্দান আয়ারল্যান্ডেও দেখা যাবে স্কাই স্পোর্টস টিভির পাশাপাশি এসব অ্যাপে।

অবাক করার মতো বিষয় অস্ট্রেলিয়ায় কোনো টিভি চ্যানেলে দেখা যাবে না বিশ্বকাপের ম্যাচ। ভক্তদের খেলা দেখতে হবে প্রাইম ভিডিওর ওয়েবসাইট ও অ্যাপে। নিউজিল্যান্ডের দর্শকরা খেলা দেখতে পারবেন স্কাই স্পোর্টসের মাধ্যমে।

দক্ষিণ আফ্রিকা, উগান্ডা ও নামিবিয়ায় সম্প্রচার করবে সুপার স্পোর্টস টিভি চ্যানেল। পাশাপাশি তাদের অ্যাপেও দেখানো হবে খেলাগুলো। এছাড়া আইসিসির অফিসিয়াল টিভি icc.tv-তে সরাসরি দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া ও ইউরোপের ৮০টি অঞ্চল থেকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো সরাসরি দেখা যাবে।

টাইমলাইন: টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২৪

আরো পড়ুন

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App