×

খেলা

লা লিগায় সোসিয়েদাদকে হারিয়ে দুইয়ে বার্সা

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ১৪ মে ২০২৪, ০৮:২১ এএম

লা লিগায় সোসিয়েদাদকে হারিয়ে দুইয়ে বার্সা

ছবি: ইন্টারনেট

লা লিগার ম্যাচে সোমবার রাতে ২-০ গোলে জিতেছে বার্সেলোনা। চমৎকার ফিনিশিংয়ে লামিনে ইয়ামাল দলকে এগিয়ে নেয়ার পর ম্যাচের যোগ করা সময়ে সফল স্পট কিকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রাফিনিয়া। জিরোনার বিপক্ষে আগের ম্যাচে হেরে তিনে নেমে গিয়েছিল বার্সেলোনা। গত শুক্রবার আলাভেসের বিপক্ষে জিরোনা ২-২ গোলে ড্র করায় শাভির দলের সামনে সুযোগ আসে দ্বিতীয় স্থান পুনরুদ্ধার করার। শুরুর ভোগান্তির পর সহজেই সোসিয়েদাদকে হারিয়ে সেটা করতে পারল তারা।

শুরুতে বার্সেলোনাকে বেশ চেপে ধরে সোসিয়েদাদ। প্রথম ভালো সুযোগ পায় তারাই। পঞ্চম মিনিটে ডি-বক্সের ভেতরে বল পেয়েও ক্রসবারের ওপর দিয়ে মারেন শেরালদো বেকার। বল দখলে পিছিয়ে থাকা বার্সেলোনা নিজেদের গুছিয়ে নিতে অনেক সময় নেয়। ২২তম মিনিটে পিছিয়েও পড়তে পারত তারা, জালে বল পাঠান বেকার। তবে তিনি অফসাইডে থাকায় মেলেনি গোল।

চার মিনিট পর প্রথম ভালো সুযোগ পায় বার্সেলোনা। পায়ের কারিকুরিতে সামর্থ্যের ঝলক দেখিয়ে ছোট ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন ইয়ামাল। কিন্তু ডিফেন্ডার পাকেচু শেষ মুহূর্তে স্লাইড করে পা ছোঁয়ালে শট নিতে পারেননি তিনি। ৩১তম মিনিটে বেশ দূর থেকে হেডে গোলের চেষ্টা করেন রবের্ত লেভানদোভস্কি। সহজেই ফেরান সোসিয়েদাদ গোলরক্ষক আলেক্স রেমিরো। ম্যাচে এটাই লক্ষ্যে প্রথম চেষ্টা।

সাত মিনিট পর এগিয়ে যেতেই পারত বার্সেলোনা। রাফিনিয়ার দূরপাল্লার শট ফেরে পোস্টে লেগে। ফিরতি বলে ইলকাই গিনদোয়ানের শট যায় ক্রসবারের অনেকটা ওপর দিয়ে। যথেষ্ট সময় ছিল তার হাতে, তবুও তাড়াহুড়ায় শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি জার্মান মিডফিল্ডার।

৩৯তম মিনিটে লেভানদোভস্কির থ্রু পাস পেয়ে গিনদোয়ান খুঁজে নেন ইয়ামালকে। আড়াআড়ি শটের চমৎকার ফিনিশিংয়ে তরুণ এই ফরোয়ার্ড বল পাঠান জালে। লা লিগার চলতি আসরে এটি তার পঞ্চম গোল। চার মিনিট পর সমতা ফেরানোর সুযোগ হাতছাড়া করেন বেকার। পাউ কুবার্সির চ্যালেঞ্জের মুখে শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি সুরিনামের এই ফরোয়ার্ড।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই বাড়তে পারত ব্যবধান। ৪৮তম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে রাফিনিয়ার শট যায় ক্রসবার ঘেঁষে। ৬৫তম মিনিটে আবার দূরপাল্লার শটে চেষ্টা করেন এই ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। ঝাঁপিয়ে সেটি ঠেকিয়ে দেন রেমিরো।

৬৭তম মিনিটে গিনদোয়ান নিজেদের ডি-বক্সের সামনে ভুল পাস দিলে দারুণ সুযোগ পেয়ে যান ব্রাইস মেন্দেস। বার্সেলোনা ডিফেন্ডারের চ্যালেঞ্জ এড়িয়ে আড়াআড়ি শটও নেন তিনি। কিন্তু তাকে হতাশায় ডুবিয়ে বল বেরিয়ে যায় দূরের পোস্ট ঘেঁষে।

৭৯তম মিনিটে লেভানদোভস্কির জায়গায় মাঠে এসে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে গোল পেয়ে যেতে পারতেন ফেররান তরেস। তার জোরাল শট ঝাঁপিয়ে কোনোমতে কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন রেমিরো। ৮২তম মিনিটে ডানদিক থেকে রাফিনিয়ার বাঁকানো শট বেরিয়ে যায় পোস্টের কাছ দিয়ে। দুই মিনিট পর প্রায় একইভাবে শট নিয়ে ব্যর্থ হন ইয়ামাল।

সফরকারীদের প্রবল চাপে রেখে একের পর এক সুযোগ তৈরি করছিল বার্সেলোনা। কিন্তু সেগুলো কাজে লাগাতে পারছিলেন না কেউই। ৮৮তম মিনিটে রাফিনিয়ার ফ্রি কিক লাগে আলভারো অদ্রিওসোলার হাতে। ভিএআরে দেখে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। ঠাণ্ডা মাথার স্পট কিকে জাল খুঁজে নেন রাফিনিয়া। দুইয়ে ফেরার আনন্দ নিয়ে মাঠ ছাড়ে বার্সেলোনা। ৩৫ ম্যাচে ২৩ জয় ও সাত ড্রয়ে ৭৬ পয়েন্ট বার্সেলোনার। ৭৫ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে জিরোনা। আগেই শিরোপা নিশ্চিত করা রেয়াল মাদ্রিদের পয়েন্ট ৯০।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App