র‌্যাব মহাপরিচালক : নাশকতার তথ্য নেই তবুও সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছি

আগের সংবাদ

বাংলাদেশের গর্ব, বিশ্বের বিস্ময় : জাতীয়-আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে যেভাবে ডানা মেলল স্বপ্নের পদ্মা

পরের সংবাদ

সেনাপ্রধান : যত দূরেই হোক ত্রাণ পৌঁছে দেবে সেনাবাহিনী

প্রকাশিত: জুন ২৪, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জুন ২৪, ২০২২ , ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ

কাগজ প্রতিবেদক, সুনামগঞ্জ থেকে : সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ বলেছেন, যত দিন মানুষের প্রয়োজন, তত দিন সেনাবাহিনী মাঠে থাকবে। সাহায্য-সহযোগিতা যত আসবে, সেই সহযোগিতা যত দূরেই হোক তা পৌঁছে দেয়ার জন্য চেষ্টা করবে। সেনাবাহিনী এখন ত্রাণ নিয়ে যত দূরে পৌঁছাতে পেরেছে, দুদিন পর আরো দূরে পৌঁছে যাবে। পাশাপাশি হেলিকপ্টার দিয়েও বন্যার্তদের উদ্ধার করা হচ্ছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের মঈনপুর গ্রামে বন্যাদুর্গতদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ শেষে তিনি এসব কথা বলেন।
জেনারেল শফিউদ্দিন বলেন, এখন সেনাবাহিনীর গ্রীষ্মকালীন প্রশিক্ষণ চলছে। সিলেট এলাকার জন্য এবং বন্যার্তদের কাজে নিয়োজিত যেসব সেনাসদস্য রয়েছেন, তাদেরকে প্রশিক্ষণ থেকে বাদ দিয়েছি। সাংবাদিকদের অন্য এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, পুনর্বাসনের বিষয়গুলো সর্বোচ্চ মহলে আলোচনা হয়েছে। বন্যা এবং বন্যা-পরবর্তী যে অসুবিধা আসবে, সেগুলো কাটিয়ে ওঠার জন্য সরকারের যেসব মন্ত্রণালয় রয়েছে, সেগুলো কাজ করছে। একই সঙ্গে আমাদেরও যেটা করণীয়, আমরা সেটা করব। প্রয়োজনে আমাদের মেডিকেল টিম আসবে, আমাদের সক্ষমতা বাড়াচ্ছি। মানুষের যতটা সম্ভব চিকিৎসাসহ অন্যান্য যা কিছু লাগে, ইনশাল্লাহ দিব।
তিনি বলেন, জাতীয় দুর্যোগ জাতীয়ভাবে মোকাবিলা করতে হবে। দুর্যোগে সাহস নিয়ে আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করতে হবে। এখনো অনেক মানুষ পানিবন্দি হয়ে আছে। আমাদের প্রথম লক্ষ্য হলো মানুষের জীবন বাঁচানো। দ্বিতীয়ত, তাদের স্বাস্থ্য এবং অন্য বিষয়গুলো খেয়াল রাখা।
এ সময় জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেন ও সুনামগঞ্জ পৌর মেয়র নাদের বখত উপস্থিত ছিলেন। গত ১৬ জুন থেকে সুনামগঞ্জে বন্যা শুরু হলে ১১ উপজেলার প্রতিটি গ্রাম প্লাবিত হয়। এক সপ্তাহে বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও সহায়-সম্বলহীন মানুষের দুর্ভোগ বেড়েছে। বানের পানি নামতে শুরু করলেও আশ্রয় কেন্দ্র থেকে সবাই এখনো বাড়িঘরে ফিরতে পারেননি। যারা ফিরতে শুরু করেছেন, তাদের যুদ্ধ শুরু হয়েছে নতুন করে সংসার গোছানোর।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়