সিদ্ধান্ত পরিবর্তন : শতভাগ যাত্রী নিয়ে চলবে গণপরিবহন

আগের সংবাদ

উৎসব-উৎকণ্ঠার ভোট আজ : সবার দৃষ্টি নারায়ণগঞ্জে > আইভী-তৈমূরের লড়াইয়ে বাড়তি মাত্রা শামীম ওসমান

পরের সংবাদ

কুমিল্লায় সিলিন্ডার বিস্ফোরণে আহত ১০ জন শঙ্কায় : তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৫, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১৫, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

এম ফিরোজ মিয়া, কুমিল্লা থেকে : কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার বিরুলি গ্রামে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের ঘটনায় তিন সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
বিষয়টি নিশ্চিত করে নাঙ্গলকোট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লামইয়া সাইফুল বলেন, তিন সদস্যবিশিষ্ট কমিটিতে রয়েছেন নাঙ্গলকোট উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) আশরাফুল হক, নাঙ্গলকোট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রাকিবুল ইসলাম এবং ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের একজন প্রতিনিধি।
ইউএনও লামইয়া সাইফুল আরো জানান, আগামী মঙ্গলবার তদন্ত কমিটি রিপোর্ট জমা দেবে। তখনই বলা যাবে এ দুর্ঘটনার কারণ কী ছিল।
এদিকে কুমিল্লা জেলা প্রশাসন থেকে দ্বগ্ধ রোগীদের জন্য তাৎক্ষণিক নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ শাহাদাৎ হোসেন জানান, গত বৃহস্পতিবার রাতে ৬ দ্বগ্ধের স্বজনকে ১০ হাজার টাকা করে দেয়া হয়। বাকিদের জন্য ১০ হাজার অথবা প্রয়োজন হলে আরো নগদ অর্থ বিতরণ করব। এছাড়া তাদের চিকিৎসার জন্য যা করণীয় সবই করা হবে।
এদিকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগের প্রধান মির্জা মু. তায়েইবুল ইসলাম বলেন, আমাদের এখানে ১৬ জন চিকিৎসাধীন রয়েছে। যার মধ্যে ১৩ জনই শিশু। তবে এর মধ্যে একজন শিশুর অপারেশন করা হয়েছে। অন্য আরো তিনজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানোর প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।
আহতরা হলেন- বেলুন ব্যবসায়ী আবুল কালামের ছেলে আনোয়ার হোসেন (৩৩), আনোয়ারের মেয়ে আফনান (৫), মরিয়ম (৭), তার বোন ফারজানা (১৭), সহযোগী ব্যবসায়ী ঝাটিয়াপাড়া গ্রামের আলী আকবরের ছেলে আবদুর রব (৩০), পৌরসভার নাওগোদা গ্রামের মুসলিমুর রহমানের ছেলে আলমগীর (৩০), বিরুলী গ্রামের জাফরের মেয়ে উম্মে হাবিবা (৯), জসিমের ছেলে তুষার (৭), ফারুকের ছেলে রায়হান (১২), আবুল কালামের ছেলে বাছির (১৬), মাঈন উদ্দিনের ছেলে মাসুদ (১২), সেলিমের মেয়ে নিশু (১২), তার ছেলে সম্রাট (১০), শাহীনের মেয়ে শারমিন আক্তার (৫), আবদুল হালিমের ছেলে নাঈম (১৩), আবদুল কাদিরের স্ত্রী নাছরিন (৩৫), শাহাবুদ্দিনের ছেলে সবুজ (১১), সাইফুলের মেয়ে নুরুন্নাহার (৯) ও রতনের মেয়ে জান্নাত (৯)।
এলাকাবাসী জানান, উপজেলার ঢালুয়া ইউনিয়নের মোঘরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে প্রতি বাংলা সনের মাঘ মাসের ১ তারিখ ঠাণ্ডাকালী মেলা অনুষ্ঠিত হয়। সে হিসেবে আগামী শনিবার সেখানে মেলা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। ওই মেলায় বিরলী গ্রামের মৃত কালা মিয়ার ছেলে আনোয়ার হোসেন গ্যাস বেলুনের ব্যবসা করেন। গত

বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টার দিকে বেলুনে গ্যাস ভর্তির সময় হঠাৎ সিলিন্ডারটি বিস্ফোরিত হয়ে উড়ে যায়। এতে পাশে বসে থাকা অন্তত ৪১ জন আহত হন। আহতদের মধ্যে বেশির ভাগই শিশু। এছাড়া বিভিন্ন বয়সের ব্যক্তিও রয়েছেন।
আনোয়ারের বোন ফারজানা আক্তার বলেন, আমার ভাই বেশ কয়েক বছর ধরে মেলায় পাইকারি দামে বেলুন দিয়ে থাকেন। পাশাপাশি তিনি নিজেও বেলুন বিক্রি করেন। বিস্ফোরণে আহত আমার ভাই-ভাতিজির অবস্থা আশঙ্কাজনক। এছাড়া পরিবারের আরো বেশ কয়েকজনও গুরুতর আহত হয়েছেন।
নাঙ্গলকোট থানার ওসি মো.ফারুক হোসেন বলেন, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে দ্রুত হাসপাতালে পাঠায়।
নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. দেবদাস দেব বলেন, এ ঘটনায় ৫-৬ জন অগ্নিদগ্ধ হয়েছে। সবচেয়ে বেশি হয়েছে স্পিøন্টার ইনজুরি। এছাড়া অনেকে ব্লাস্ট ইনজুরিতে আহত হয়েছে। অনেকের হাত-পা ভেঙে গেছে।
বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ক্যাজুয়ালটি বিভাগের চিকিৎসক ডা. মো আসিফ ইমরান বলেন, আমাদের এখানে অন্তত ২০ জনের মতো ভর্তি হয়েছে। এদের বেশির ভাগই শিশু। আহতদের মধ্যে অন্তত ১০ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আমরা সবাইকে চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছি।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়