পরিকল্পনামন্ত্রী : দেশে রাজনীতিবিদের চেয়ে আমলাতন্ত্রের দাপট বেশি

আগের সংবাদ

শ্যামল দত্ত’র প্রত্যয় : চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করেই এগিয়ে যাবে ভোরের কাগজ

পরের সংবাদ

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন : ফুলছড়িতে সুবিধাজনক অবস্থানে নৌকার প্রার্থীরা

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ১, ২০২২ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

ফুলছড়ি (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি : ইউপি নির্বাচনে দেশের অন্যান্য স্থানে ভালো ফল করতে না পারলেও গাইবান্ধার ফুলছড়িতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা মজবুত অবস্থানে রয়েছেন। নৌকা প্রতীকের প্রতি ভোটারদের আলাদা দুর্বলতা রয়েছে। এ কারণে উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নৌকার প্রার্থীরা সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে। তবে ২-১টি ইউনিয়নে শক্ত অবস্থানে আছেন স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।
সৎ, যোগ্য প্রার্থী ভোট দিয়ে নির্বাচিত করার পক্ষে মত দিয়েছেন ফুলছড়ি উপজেলার ভোটারারা। প্রার্থীরা সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরেপেক্ষ নির্বাচন দাবি করেছেন। প্রচার-প্রচারণার শেষ সময়ে এসে প্রার্থীরা একটু দম ফেলার সময় পাচ্ছেন না। নির্বাচনী বৈতরণি পাড় হতে সব চেষ্টাই করছেন তারা।
অনেক প্রার্থী খুব সকালে বের হয়ে গভীর রাতে বাড়ি ফিরছেন। তবে উপজেলায় বিচ্ছিন্ন দুয়েকটি ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বিরাজ করছে।
চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীদের মধ্যে কঞ্চিপাড়ায় সোহেল রানা শালু, উড়িয়ায় প্রভাষক গোলাম মোস্তফা কামাল পাশা, ফুলছড়িতে আজহারুল হান্নান, এরেন্ডাবাড়ীতে আব্দুল মান্নান আকন্দ এরই মধ্যে ভোটারদের মন জয় করতে সক্ষম হয়েছেন। এসব ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থীরা বলেন, ভোটাররা বঙ্গবন্ধুর নৌকার ভক্ত। ভোটাররা এবার নৌকায় ভোট দিয়ে আমাদের জয়যুক্ত করে প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করবেন। অপরদিকে উদাখালী ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী আসাদুজ্জামান বাদশা ও গজারিয়ায় ইউনুছ আলী তাদের অবস্থান আরো শক্ত করতে ভোটাদের মন জয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। আসাদুজ্জামান বাদশা বলেন, উদাখালী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের গলাকাটি উচ্চ বিদ্যালয় ও ৪নং ওয়ার্ডের মাছের ভিটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে স্বতন্ত্র এক প্রার্থী ভোটের দিন বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির ষড়যন্ত্র করছেন। আমি মনে করি, প্রশাসন কঠোর অবস্থানে থেকে তা প্রতিহত করবে। তিনি বলেন, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটদানের মাধ্যমে ভোটাররা নৌকাকে বিজয়ী করবে। কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের ভোটার সোহেল মিয়া, উড়িয়া ইউনিয়নের ভোটার সেলিম সরকারসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তারা সুখে-দঃখে যাকে কাছে পাবে এবং সৎ, যোগ্য প্রার্থীকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন। ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নুরুল আমিন বলেন, ফুলছড়িতে বঙ্গবন্ধুর নৌকার ইমেজ (ভাবমূর্তি) রয়েছে। কিন্তু স্থানীয় সাংসদের লোকেরা নৌকা প্রার্থীর বিপক্ষে কাজ করার কারণে কিছুটা সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। তারপরেও নৌকার ইমেজের ওপর ভর করে শেষ পর্যন্ত ফুলছড়ি উপজেলার ৬টি ইউনিয়নেই নৌকার প্রার্থী জয়ী হবে ইনশাল্লাহ।
ফুলছড়ি উপজেলা নির্বাচন অফিসার আব্দুস সোবহান বলেন, এখন পর্যন্ত ফুলছড়ি উপজেলায় শান্তিপূর্ণভাবে ভোটের ময়দানে প্রচার-প্রচারণা চলছে। কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। ভোটগ্রহণ শান্তিপূর্ণ হবে। আমরা অবাধ ও সুষ্ঠু ভোটগ্রহণের প্রস্তুতি নিচ্ছি। ফুলছড়ি উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানিয়েছে, উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত সদস্য ও সাধারণ সদস্য পদে মোট ৩৫৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্ব›িদ্বতা করছেন। এদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের ৬, জাতীয় পার্টির ১ জন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ৩ জন ও স্বতন্ত্র ২৬ জনসহ মোট ৩৬ জন। সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৯৭ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ২২০ জন প্রার্থী প্রতিদ্ব›িদ্বতা করছেন। পঞ্চম ধাপে উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৫ জানুয়ারি। এর মধ্যে কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নে ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়