মাহমুদুর রহমান মান্না : খালেদা জিয়া এখন তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে যাচ্ছেন

আগের সংবাদ

ওমিক্রন ঠেকাতে চার সুপারিশ

পরের সংবাদ

স্বাস্থ্যবিমা চালুর সুপারিশ : স্তন ক্যান্সার স্ক্রিনিংয়ে সফলতা আসছে না

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৮, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৮, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কাগজ প্রতিবেদক : কুসংস্কারসহ নানা কারণে দেশে নারীদের স্তন ও জরায়ুমুখ ক্যান্সার স্ক্রিনিং কাক্সিক্ষত সফলতা পায়নি। তবে অক্টোবর মাসজুড়ে বিভিন্ন সংগঠন, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান স্তন ক্যান্সার সচেতনতা ও স্ক্রিনিং কার্যক্রমে প্রত্যাশার বেশি সাড়া মিলেছে। ধীরে ধীরে এক্ষেত্রে সমাজে বিদ্যমান কুসংস্কার ও নিরবতা ভাঙা শুরু হয়েছে। তবে সেটিও যথেষ্ট নয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চালু ও সরকারের চলমান স্তন ও জরায়ুমুখের ক্যান্সার স্ক্রিনিং কর্মসূচি গত ১৫ বছরে লক্ষ্যমাত্রার শতকরা ১০ ভাগেরও কম নারীকে আওতায় আনতে পেরেছে। এর আওতা বাড়াতে হাসপাতালভিত্তিক সেবা থেকে জনগোষ্ঠী বা সমাজভিত্তিক সেবায় উত্তরণ জরুরি। স্বাস্থ্যবিমা ছাড়া স্বাস্থ্যসেবা সবার জন্য নিশ্চিত করা সম্ভব নয়। ক্যান্সার ও কিডনি রোগীদের জন্য স্বাস্থ্যবিমা চালুর জন্য সরকারের কাছে সুপারিশ করেন বিশেষজ্ঞরা।
মাসব্যাপী স্তন ক্যান্সার সচেতনতা ও স্ক্রিনিং কর্মসূচির মূল্যায়ন ও সুপারিশ উপস্থাপন এবং এর ওপর আলোচনা অনুষ্ঠানে এই সুপারিশ তুলে ধরা হয়। গতকাল শনিবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ স্তন ক্যান্সার সচেতনতা ফোরাম ও আন্তর্জাতিক রোটারী জেলা-৩২৮১ যৌথভাবে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করে লিখিত বক্তব্য তুলে ধরেন বাংলাদেশ স্তন ক্যান্সার সচেতনতা ফোরামের প্রধান সমন্বয়কারী ডা. হাবিবুল্লাহ তালুকদার রাসকিন। প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় অধ্যাপক ডা. মাহমুদ হাসান। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএসএমএমইউর উপউপাচার্য অধ্যাপক ডা. ছয়েফ উদ্দিন আহমেদ, রোটারী জেলা-৩২৮১-র গভর্নর ব্যারিস্টার মুতাসিম বিল্লাহ ফারুকী। বিশিষ্ট গাইনি অনকোলজিস্ট অধ্যাপক ডা. সাবেরা খাতুন ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের রেডিওথেরাপি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. স্বপন বন্দোপাধ্যায়, বিশিষ্ট কণ্ঠশিল্পী সামিনা চৌধুরী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে ৫ জন নারী সাংবাদিক, ৩ জন ক্যান্সার সার্ভাইভার, ২ জন সংগঠক ও সরকারি বেসরকারি ৫টি সংগঠন/প্রতিষ্ঠানকে সমাজসেবীও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনকে ‘কৃতজ্ঞতা স্মারক’ দেয়া হয়।
যারা কৃতজ্ঞতা স্মারক পেয়েছেন : দৈনিক ভোরের কাগজের সিনিয়র রিপোর্টার সেবিকা দেবনাথ, এটিএন বাংলা বার্তা সম্পাদক নাদিরা কিরণ, নাগরিক টিভির প্রধান প্রতিবেদক শাহনাজ শারমীন, প্রথম আলোর সিনিয়র রিপোর্টার মানসুরা হোসাইন ও ডেইলি আওয়ার টাইমের যুগ্ম বার্তা সম্পাদক শাহনাজ পলি, সার্জিকেল অনকোলজিস্ট ডা. মো. হাসানুজ্জামান, ক্যান্সার প্রতিরোধ ও গবেষণা কেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক মোসাররত জাহান সৌরভ, রাজশাহী ক্যান্সার হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা ডা. প্যাট্রিক বিপুল বিশ্বাস। সংগঠন/ প্রতিষ্ঠান হিসেবে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের রেডিওথেরাপি ও অনকোলজি বিভাগ, ঢাকা রিপোর্টারস ইউনিটি, বাংলাদেশ ওয়াইডাব্লিউসিএ ও উত্তরা লেডিস ক্লাব। ক্যান্সার সারভাইভার তাহ্ মিনা গাফফার, হোসনে আরা পলি ও ফারজানা আলি।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়