ভিসি এয়ার মার্শাল নজরুল : ওবিই হচ্ছে জ্ঞানগর্ভ ও চিন্তা উদ্দীপক কর্মশালা

আগের সংবাদ

টানা ৪ জয়ে সেমিতে পাকিস্তান

পরের সংবাদ

ফুলছড়ি : মাদকাসক্ত ছেলেকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে তুলে দিলেন মা

প্রকাশিত: নভেম্বর ২, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

ফুলছড়ি (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি : ফুলছড়িতে মাদকাসক্ত ছেলে রাশেদ মিয়াকে (৩৫) ভ্রাম্যমাণ আদালতে তুলে দিয়েছেন মা আমেনা বেগম (৫৩)। উপজেলার কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের ভাষারপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
গতকাল সোমবার সকালে ভ্রাম্যমাণ আদালত মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে রাশেদ মিয়াকে এক মাসের কারাদণ্ড ও ২০০ টাকা জরিমানা করেছেন। পরবর্তীতে দুপুরে থানা পুলিশ তাকে গাইবান্ধা জেলা কারাগারে পাঠায়।
পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, আমেনা বেগমের স্বামী মকবুল হোসেন ২৩ বছর আগে মারা যান। আমেনা বেগম অতিকষ্টে দুই ছেলে রাশেদ মিয়া ও আরিফ মিয়াকে লালনপালন করেন। রাশেদ মিয়া দুই সন্তানের বাবা। সংসারের কোনো দায়িত্ব পালন না করে তিনি দীর্ঘদিন ধরে হেরোইন, ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদকে আসক্ত হয়ে পড়েন। মা আমেনা বেগমসহ পরিবারের সদস্যরা বাধা দিয়েও তাকে মাদক সেবন থেকে ফেরাতে পারেননি। এ নিয়ে প্রায়ই তাদের ঝগড়া হয়। এছাড়া মাদকাসক্ত রাশেদ মিয়া তার ছোট ভাই আরিফ ও মা আমেনাকে প্রায়ই মারপিট করেন।
মাদকাসক্ত রাশেদ মিয়া নিজের পরিবারের সদস্য ছাড়াও প্রতিবেশীদের সঙ্গে অনেক খারাপ আচরণ করেন। তার আচরণে অতিষ্ঠ হয়ে মা আমেনা বেগম সোমবার সকালে প্রতিবেশীদের সহায়তায় রাশেদ মিয়াকে ধরে ফুলছড়ি থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন। পরবর্তীতে পুলিশ ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবু রায়হান দোলন জনসাধারণের শান্তি বিনষ্ট করার অভিযোগে রাশেদ মিয়াকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ২০০ টাকা জরিমানা করেন।
আমেনা বেগম বলেন, রাশেদ দীর্ঘদিন ধরে হাবিজাবি (মাদক) খেয়ে আসছে। আমি বহু চেষ্টা করেও তাকে ভালো করতে পারিনি। ও শুধু সংসারই শেষ করেনি, আশপাশের পোলাপানরেও নষ্ট করছে। শেষ পর্যন্ত আমি বাধ্য হয়েছি আমার ছেলেকে পুলিশের হাতে তুলে দিতে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়