চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা : চালকের সহকারী শাহীরুল এখন কোটিপতি

আগের সংবাদ

তিস্তার তাণ্ডবে লালমনিরহাটে পথে বসেছে হাজারো পরিবার

পরের সংবাদ

তাদের ক্ষতিপূরণ বুঝিয়ে দিন

প্রকাশিত: অক্টোবর ২৫, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ২৫, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

স্বাধীন বাংলাদেশে এমন ঘটনা ঘটবে এটা কখনো মেনে নেয়া যায় না। অতি আবেগী কিছু মানুষের জন্য আজ সমগ্র বাংলাদেশ কলঙ্কিত। বিশ্বের কাছে এতদিন যে বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক হিসেবে পরিচিত ছিল; আজ সেই বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক হিসেবে পরিচিতি লাভ করতে পারে না। অসাম্প্রদায়িক চেতনা সবার মধ্যে তুলে ধরতে হবে। সঠিক ধর্মীয় জ্ঞানে সবাইকে সচেতন করতে হবে। অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বাংলাদেশ গড়তে রাষ্ট্রীয় এবং সামাজিকভাবে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে। কোনো হুমকি দিয়ে নয়, কোনো শাস্তি দিয়ে নয়, ভালোবাসা এবং ধর্মীয় উদার জ্ঞান দ্বারা অসাম্প্রদায়িক চেতনা প্রচার করতে হবে।

দুই.
কুমিল্লার নানুয়া দীঘিরপাড় এলাকায় মন্দির ভাঙচুরের পরের দিন চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে ১৫টি পূজামণ্ডপে হামলা। গাজীপুরের পূজামণ্ডপে হামলা। মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে দুটি মণ্ডপের মূর্তি ও প্যান্ডেল এবং পাঁচটি মণ্ডপের গেট ভাঙচুর। কুলাউড়া মণ্ডপের ওপর হামলা। ল²ীপুরের রামগতিতে পূজামণ্ডপের ওপর হামলা। কুড়িগ্রামের উলিপুরের তিন ইউনিয়নের সাত মন্দির ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ। কক্সবাজারের চকরিয়া ও পেকুয়ায় চারটি ইউনিয়নের দুই শতাধিক হিন্দু পরিবারের ওপর হামলা। বান্দরবানের লামা হরি মন্দিরে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট। সিলেটের জকিগঞ্জে পূজামণ্ডপের ওপর হামলা। চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে পূজামণ্ডপের ওপর হামলা। চাঁদপুর রামকৃষ্ণ মিশনে হামলা। নোয়াখালী ইসকন মন্দিরে হামলা। চট্টগ্রামের জে এম হল (যাত্রা মোহন হল) মণ্ডপের ওপর হামলা। কুমিল্লা সদরের কালীবাড়িতে হামলা। চকবাজার থানার অধীন করুণাময়ী কালীমন্দির, ঢাকার ঢাকেশ্বরী মন্দিরে হামলার চেষ্টা ও নস্যাৎ। খুলনার রূপসায় মহাশ্মশান ঘাটের প্রবেশদ্বার থেকে ১৮টি বোমা উদ্ধার। এছাড়া নোয়াখালীতে ত্রিশূল, মঙ্গলা, নবদুর্গা, বিজয়া প্যান্ডেল, কোটবাড়ি মন্দির সম্পূর্ণ আগুনে জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে। বারগ্রাম, ছয়ানীবাজার, বেগমগঞ্জ, সোনাইমুড়ীতে হিন্দুদের বাড়ি বাড়ি ঢুকে আক্রমণ করা হয়েছে, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। রংপুরে অগ্নিকাণ্ড। এমন অনেক ঘটনা ঘটেছে এই কিছু দিনের মধ্যে। এগুলো কখনো অসাম্প্রদায়িকের চেতনা হতে পারে না।

তিন.
চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে ধর্ষিতা হয়েছেন একই পরিবারের মা, মেয়ে, বোনের মেয়ে। মেয়েটির বয়স ১০ বছর। ১০ বছরের সেই ছোট মেয়েটি অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মারা গিয়েছে। হাজীগঞ্জে মানিক সাহা নিহত, চাঁদপুরের যতিন সাহা (মণ্ডপ পূজারি) নিহত। নোয়াখালী ইসকন মন্দিরের পুরোহিত সাধু নিমাই কৃষ্ণসহ নাম না জানা আরো একজন সাধু নিহত। ইসকন মন্দিরের পুকুরে প্রান্ত দাশ নামের একজনের লাশ ভেসে উঠেছে। এমন জানা-অজানা অনেকেই নিহত হয়েছেন। সারাদেশে দুই শতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন। সাম্প্রদায়িক উসকানিতে সারাদেশে অনেকেই পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন। পুলিশের গুলিতে নিহতের ঘটনা আগুনে ঘি ঢালার মতো কাণ্ড ঘটিয়েছে। সাম্প্রদায়িকতা উসকিয়ে দিয়েছে এই হত্যাকাণ্ড।

চার.
এই সাম্প্রদায়িক ঘটনার জন্য অনেক হিন্দু পরিবার তাদের বাড়িঘরসহ বিষয়-সম্পত্তি নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্তের সম্মুখীন হয়েছে। এছাড়া অনেক পরিবার তাদের প্রিয় মুখগুলো হারিয়েছে। এমতাবস্থায় বাংলাদেশ সরকারসহ জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতি অনুরোধ থাকবে তাদের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের ক্ষতিপূরণ বুঝিয়ে দিন। এই অসময়ে তাদের পাশে দাঁড়ান। তাদের বাঁচার সুযোগ করে দিন। যাদের ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে তাদের যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আশ্রয়ের ব্যবস্থা করুন।

শাবলু শাহাবউদ্দিন : পাবনা থেকে
[email protected]

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়