চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা : চালকের সহকারী শাহীরুল এখন কোটিপতি

আগের সংবাদ

তিস্তার তাণ্ডবে লালমনিরহাটে পথে বসেছে হাজারো পরিবার

পরের সংবাদ

ডলারের দাম ৯০ টাকা ছাড়াল বাজারে

প্রকাশিত: অক্টোবর ২৫, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ২৫, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কাগজ প্রতিবেদক : বর্তমানে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকায় দেশে ব্যাপক হারে পণ্য আমদানি বেড়েছে। ফলে বাড়তি চাহিদার কারণে লাফিয়ে বাড়ছে ডলারের দাম। যার বিপরীতে মান হারাচ্ছে টাকা। তিন দিনের ব্যবধানে আন্তঃব্যাংক মুদ্রাবাজারে প্রতি ডলারের মূল্য আরো ২০ পয়সা বেড়ে ৮৫ টাকা ৭০ পয়সায় উঠেছে।
গতকাল রবিবার খোলাবাজার ও নগদ মূল্যে ডলার ৯০ টাকা ১০ পয়সায় কেনাবেচায় হয়, যা এ যাবৎকালের সর্বোচ্চ মূল্য। ব্যাংক সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলছেন, করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় দেশে আমদানি চাপ বেড়েছে। এছাড়া করোনার ভ্যাকসিনের আমদানির অর্থও পরিশোধ করতে হচ্ছে। ফলে এসব দায় পরিশোধ করতে গিয়ে বাড়তি ডলারের প্রয়োজন হচ্ছে। অন্যদিকে প্রবাসীদের পাঠানো আয় বা রেমিট্যান্স গত তিন মাস ধারাবাহিকভাবে কমছে। আবার প্রত্যাশা অনুযায়ী রপ্তানি আয় কম। সব মিলিয়ে বাজারে বৈদেশিক মুদ্রার চাহিদার তুলনায় সরবরাহে ঘাটতি দেখা দিয়েছে। এতে টাকার বিপরীতে বাড়ছে ডলারের দাম। তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে পর্যাপ্ত বৈদেশিক মুদ্রা মজুদ রয়েছে। বাজার স্থিতিশীল রাখতে ব্যাংকগুলোর চাহিদার বিপরীতে ডলার বিক্রি করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। দীর্ঘদিন স্থিতিশীল থাকার পর চলতি বছরের আগস্টের শুরু থেকে হঠাৎ বাড়তে থাকে ডলারের দাম, যা এখন পর্যন্ত অব্যাহত আছে।
কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, রবিবার ব্যাংকগুলোর নিজেদের মধ্যে লেনদেনের জন্য প্রতি ডলারের বিনিময় মূল্য দাঁড়িয়েছে ৮৫ টাকা ৭০ পয়সা, যা এ যাবৎকালের সর্বোচ্চ মূল্য। তিন কর্মদিবস আগেও এ দর ছিল ৮৫ টাকা ৫০ পয়সা। সেপ্টেম্বরের শুরুতে আন্তঃব্যাংক মুদ্রাবাজারে ডলারের দাম ছিল ৮৫ টাকা ২০ পয়সা। আগস্টের শুরুতে ছিল ৮৪ টাকা ৮০ পয়সা। আগস্টের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত দুই মাস ১০ দিনের ব্যবধানে ডলারের বিপরীতে ৮০ পয়সা দর হারিয়েছে টাকা। এর আগে ২০২০ সালের জুলাই থেকেই ৮৪ টাকা ৮০ পয়সায় স্থিতিশীল ছিল ডলার। সর্বশেষ আন্তঃব্যাংক মুদ্রাবাজারে প্রতি ডলারের বিনিময় মূল্য দাঁড়ায় ৮৫ টাকা ৭০ পয়সা। তবে খোলাবাজার ও নগদ মূল্যে ডলার ৮৯ টাকা ৯০ পয়সা থেকে ৯০ টাকা ১০ পয়সায় কেনাবেচা হচ্ছে।
বাড্ডার গুডউইল মানি এক্সচেঞ্জের স্বত্বাধিকারী রয়েল শাহরিয়ার বলেন, দীর্ঘদিন ৮৮-৮৯ টাকায় ডলার কেনাবেচার পর ৩-৪ দিন ধরে হঠাৎ বেড়ে গেছে ডলারের দাম। বর্তমানে আমরা ৮৯ টাকা ৮০ পয়সায় ডলার কিনছি। বিক্রি করছি ৯০ টাকা ১০ থেকে ২০ পয়সায়। বসুন্ধরার ম্যাক্স মানি এক্সচেঞ্জের স্বত্বাধিকারী আব্দুল শ্যামই অয়ন বলেন, দীর্ঘদিন স্থিতিশীল থাকার পর গত মাসের শুরুতে (আগস্ট) হঠাৎ টাকার বিপরীতে বাড়তে শুরু করে ডলারের দাম, যা এখন পর্যন্ত অব্যাহত আছে। আজ সর্বোচ্চ ৯০ টাকা ১০ পয়সায় ডলার বিক্রি হয়েছে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়