রাশিয়ার একাতেরিনবার্গে ভেজাল মদপানে মৃত্যু ১৮

আগের সংবাদ

মরুর বুকে গতির ঝড় অব্যাহত

পরের সংবাদ

ঘাতক চালক গ্রেপ্তার : ত্রিশালে দুর্ঘটনা ঘটে ২ বাসের প্রতিযোগিতায়

প্রকাশিত: অক্টোবর ১৯, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ১৯, ২০২১ , ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

কাগজ প্রতিবেদক : ত্রিশালে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের চার সদস্যসহ সাতজন নিহত হওয়ার ঘটনায় ঘাতক চালক আনসার আলিকে (৩৬) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। নরসিংদীর মনোহরদী থানার গোতাশিত এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গতির প্রতিযোগিতায় নেমেই এমন মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়।
রাজধানীর মালিবাগে সিআইডির প্রধান কার্যালয়ে গতকাল সোমবার ঘাতক চালক গ্রেপ্তারের ঘটনায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান সিআইডি এলআইসি শাখার বিশেষ পুলিশ সুপার মুক্তা ধর। তিনি বলেন, গত ১৬ অক্টোবর ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ত্রিশাল উপজেলার চেলেরঘাট এলাকায় দাঁড়িয়ে থাকা একটি বিকল ট্রাকের সঙ্গে যাত্রীবাহী বাসের মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে। ওই দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই পাঁচজন মারা যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় ১০-১২ জনকে বিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরো দুজন মারা যায়। পরে ১৭ অক্টোবর মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনায় বাস ও ট্রাকের অজ্ঞাতনামা চালকদের বিরুদ্ধে ময়মনসিংহের ত্রিশাল থানায় সড়ক পরিবহন আইনে মামলা হলে ছায়া তদন্ত শুরু করি আমরা। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল সকালে নরসিংদীর মনোহরদী থানার গোতাশিত এলাকায় অভিযান চালিয়ে আনসার আলিকে গ্রেপ্তার করা হয়।
বাসটির চালক জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, গত ১৬ অক্টোবর ঢাকা মহাখালী টার্মিনাল থেকে ৪২ জন যাত্রী নিয়ে শেরপুরের ঝিনাইগাতী বাসস্ট্যান্ডের উদ্দেশে রওনা হয়। ওই সময়েই একই স্থান থেকে সৌখিন পরিবহনের একটি বাস প্রায় ৫০ জন যাত্রী নিয়ে ময়মনসিংহের উদ্দেশে রওনা হয়। প্রায় সমস্ত রাস্তায়ই তারা প্রতিযোগিতা করে গাড়ি চালাতে থাকে। এমন করেই ত্রিশাল থানাধীন চেলেরঘাট এলাকায় পৌঁছালে সৌখিন পরিবহন ও স্যাপার এম এ রহিম নামের বাসের মধ্যে প্রতিযোগিতার একপর্যায়ে রাস্তায় পার্কিংরত বিকল ট্রাকটিতে সজোরে ধাক্কা দিলে মুহূর্তেই বাসটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। ঝরে যায় ৭টি তাজা প্রাণ। এর মধ্যে ঘটনাস্থলেই পাঁচজন মারা যায়। আহত ১২ জনকে দ্রুত হাসপাতালে ভর্তি করলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় আরো দুজন। ঘটনায় মোট সাতজন মারা যায়। ঘাতক চালক আনসার আলি দ্রুত পালিয়ে যায়।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়