করোনা টেস্টিং : আইইডিসিআর ঘুরে বিএসএমএমইউতে ধৈর্য পরীক্ষা

মঙ্গলবার, ২৮ এপ্রিল ২০২০

কাগজ প্রতিবেদক : করোনা উপসর্গ নিয়ে গত ২৩ এপ্রিল মৃত্যু হয় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিষয়ক উপদেষ্টা খন্দকার মিল্লাতুল ইসলামের। এর আগে করোনা পরীক্ষার জন্য তিনি এবং তার পরিবার কয়েকবার যোগাযোগ করেন রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর)। তিনদিন ঘুরেও নমুনা পরীক্ষা করানো সম্ভব হয়নি। তার মৃত্যুর পরও ওই প্রতিষ্ঠান থেকে কেউ নমুনা নিতে আসেনি। দাফনের ঠিক আগ মুহূর্তে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় মৃতের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠায় ডিএসসিসি। সেই নমুনায় করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি মেলে।

করোনা আক্রান্ত হটস্পট এলাকা রাজারবাগের বাসিন্দা সুপন পোদ্দার। কয়েকদিন ধরে করোনা উপসর্গ থাকায় ২৫ এপ্রিল তিনি যোগাযোগ করেন আইইডিসিআরের সঙ্গে। প্রতিষ্ঠানের ই-মেইলে মেইলও পাঠান। কিন্তু কোনো উত্তর পাননি এখনো।

এদিকে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিভার ক্লিনিক ও করোনা টেস্টিং সেন্টারে প্রতিদিনই বাড়ছে মানুষের ভিড়। নমুনা পরীক্ষা করাতে বিভিন্ন এলাকা থেকে মানুষ ভোর থেকেই সেখানে জড়ো হচ্ছেন। উপস্থিত সবাইকে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার আহ্বান জানানো হলেও তা মানা হচ্ছে না। একদিকে পুলিশ, মাঝখানে ডাক্তার-নার্স ও সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং আরেক পাশে সাধারণ মানুষের লাইন। অনেকক্ষণ অপেক্ষা করার পর তবেই মেলে ভেতরে যাওয়ার সুযোগ। এখানেই শেষ নয়। ভেতরে গিয়ে নমুনা দেয়ার জন্য আবারো দাঁড়াতে হয় লাইনে। এ যেন পরীক্ষার আগে অসীম ধৈর্যের পরীক্ষা।

এ প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া জানান, এই সেন্টারে প্রতিদিন প্রায় সাড়ে তিনশ পরীক্ষা করা হয়। তাদের পিসিআর মেশিন আছে দুটি। একটি সরকার দিয়েছে, আরেকটি বিএসএমএমইউর। তিনি বলেন, এখানে পরীক্ষার চাপ অনেক বেশি। যাদের লক্ষণ নেই তারাও আসছে পরীক্ষা করাতে।

এদিকে, গতকাল সোমবার প্রতিষ্ঠানের নিয়মিত বুলেটিনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, ৫১তম দিনে দেশে কোভিড-১৯ নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৫০ হাজার ৪০১টি। এর মধ্যে ৫ হাজার ৯১৩ জনের নমুনায় করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি মিলেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয় ৪ হাজার ১৯২টি। পরীক্ষা করা হয় ৩ হাজার ৮১২টি। এর মধ্যে শনাক্ত হয় ৪৯৭ জন।

আইইডিসিআরের ওয়েবসাইটে দেয়া তথ্য অনুযায়ী, পরীক্ষাকৃত নমুনার মধ্যে ৯ হাজার ৯৩৬টি আইইডিসিআরের ল্যাবে এবং ৪০ হাজার ৫৬৫টি পরীক্ষা অন্যান্য ল্যাবে করা হয়।

প্রথম পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj