ভিডিও সম্মেলন করবে নিরাপত্তা পরিষদ : বিশ্বে আক্রান্ত ৩০ লক্ষাধিক মৃত ২ লাখ ১০ হাজার

মঙ্গলবার, ২৮ এপ্রিল ২০২০

কাগজ ডেস্ক : ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুসারে, ধীরে হলেও দেশে দেশে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুহার কমছে। এদিকে কোভিড-১৯ মহামারি রোধে অনলাইন সম্মেলন আয়োজনের ব্যাপারে ঐকমত্য হয়েছে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী পাঁচ সদস্য। রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের আহ্বানে তারা এ শীর্ষ সম্মেলনে রাজি হয়। এতে আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তা নিয়ে আলোচনা হবে। নিরাপত্তা পরিষদের ৫টি সদস্য রাষ্ট্রই ভাইরাসের কোপের শিকার। সবচেয়ে শক্তিধর রাষ্ট্র বলে পরিচিত যুক্তরাষ্ট্র আক্রান্ত ও মৃত্যু উভয় তালিকারই শীর্ষে। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ৮টা নাগাদ সে দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৯ লাখ ৮৮ হাজার আর মৃত্যু ৫৫ হাজার ৪৩২ জন।

অন্যদিকে বিশ্বে আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ১৬ হাজার ছাড়িয়েছে এবং মৃতের সংখ্যা ২ লাখ ১০ হাজার ছুঁইছুঁই। বিশ্বে মোট মৃত্যুর এক চতুর্থাংশই ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রে। নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্যদের মধ্যে পরবর্তী ক্ষতিগ্রস্ত দেশটির নাম ফ্রান্স। সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ৬২ হাজার এবং মৃতের সংখ্যা ২২ হাজার ৮৯০ জন। আরেক স্থায়ী সদস্য রাষ্ট্র যুক্তরাজ্যের পরিস্থিতিও নাজুক। দেশটিতেও আক্রান্তের সংখ্যা দেড় লাখ পেরিয়ে এখন এক লাখ ৫৫ হাজারের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। মৃতের সংখ্যা ২০ হাজার ৭৯৫ জন। লকডাউন অব্যাহত থাকলে যুক্তরাজ্যের অর্থনীতি ৩০০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে গভীর সংকটে পড়তে পারে বলে সতর্ক করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য রাষ্ট্র হিসেবে এশিয়ার একমাত্র প্রতিনিধি চীন তার সংকট প্রায় সামাল দিয়ে ফেলেছে। সেখানে নতুন মৃত্যুর সংখ্যা প্রায় শূন্যের কোটায় নামিয়ে এনেছে তারা। আক্রান্তের দিক দিয়ে চীনকে ছাড়িয়েছে নিরাপত্তা পরিষদের অপর স্থায়ী সদস্য রাষ্ট্র রাশিয়া। সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৮৭ হাজার ১৪৭ জন হলেও মৃতের সংখ্যা মাত্র ৭৯৪ জন। তবে প্রাদুর্ভাব এখনো তার সর্বোচ্চ শিখরে পৌঁছায়নি বলে সতর্ক করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন। করোনা বিস্তার রোধে রাজধানী মস্কোতে লকডাউন জারি হয়েছে।

এদিকে ইউরোপের দীর্ঘতম লকডাউন শিথিলের পথে রয়েছে ইতালি। আগামী ৪ মে থেকে সেখানে বিধিনিষেধ শিথিল করা হবে। লোকজনকে তাদের আত্মীয়স্বজনকে দেখতে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হবে। তবে সবাইকে বাধ্যতামূলক মাস্ক পরতে হবে। পার্কগুলোও খুলে দেয়া হবে, কিন্তু স্কুলগুলোতে সেপ্টেম্বরের আগে ক্লাস শুরু হবে না। লোকজন নিজ অঞ্চলের মধ্যে ঘোরাফেরার অনুমতি পাবে, কিন্তু তারা অন্য অঞ্চলে যেতে পারবেন না। শেষকৃত্য আয়োজন আবার শুরু হবে, কিন্তু সর্বোচ্চ ১৫ জন উপস্থিত থাকতে পারবেন সেখানে। লোকজন বাড়ির আশপাশ ছাড়াও বিস্তৃত পরিসরে খেলাধুলা করতে পারবেন। খাবার বিক্রির জন্য বার ও রেস্তোরাঁগুলো খোলা হবে এবং অবশ্যই ক্রেতারা খাবার কিনে বাড়িতে অথবা অফিসে নিয়ে খাবেন। ১ জুন থেকে সেলুন, বিউটি পার্লার, বার ও রেস্তোরাঁ পুরোপুরি খোলা যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত মৃতের মোট সংখ্যা ২৬ হাজার ৬৪৪ জন- যা ইউরোপের মধ্যে সর্বোচ্চ। এছাড়া আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ৯৭ হাজার ৬৭৫ জন।

দ্বিগুণ দামে টেস্ট কিট কিনেছে ভারত : করোনা ভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার জন্য চীনের তৈরি র‌্যাপিড টেস্ট কিট ভারত সরকারকে প্রায় দ্বিগুণ দামে কিনতে হয়েছে বলে আদালতে মামলা গড়ানোর পর জানা গেছে। মেট্রিক্স নামের একটি কোম্পানি চীনের র‌্যাপিড অ্যান্টিবডি টেস্ট কিট প্রতিটি ২৪৫ রুপিতে আমদানি করলেও সরবরাহকারী রিয়েল মেটাবলিক্স এবং আর্ক ফার্মাসিউটিক্যালসের কাছ থেকে ৬০০ রুপিতে কিনতে হয় ভারত সরকারকে। অর্থাৎ একটি কিটে ৬০ শতাংশ লাভ করেছে সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান। পরে তামিলনাড়– সরকার আরেক সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান শান বায়োটেকের মাধ্যমে মেট্রিক্সের সেই একই কিট একই দামে কিনতে গেলে গোল বাধে। রিয়েল মেটাবলিক্স নিজেদের মেট্রিক্সের এক্সক্লুসিভ ডিলার দাবি করে মামলা ঠুকে দেয় দিল্লি হাইকোর্টে। শুনানির সময় চড়া দামে কিট সরবরাহের প্রমাণ মেলার পর আদালত কিটের দাম ৪০০ রুপি বেঁধে দেয়। ভারত সরকার চীনের প্রতিষ্ঠান ওন্ডফো থেকে পাঁচ লাখ র‌্যাপিড টেস্ট কিটের ক্রয়াদেশ দেয় গত ২৭ মার্চ। ভারতে করোনা ভাইরাস সংকট নিয়ে কাজ করা মূল প্রতিষ্ঠান আইসিএমআর এবং আর্ক ফার্মাসিউটিক্যালসের মধ্যেকার ক্রয়চুক্তির বরাত দিয়ে এনডিটিভি এ তথ্য জানায়।

প্রথম পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj