করোনা জয়ের দাবি নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর

মঙ্গলবার, ২৮ এপ্রিল ২০২০

কাগজ ডেস্ক : করোনা ভাইরাসের কমিউনিটি সংক্রমণ ঠেকিয়ে কোভিড-১৯ কার্যকরভাবে নির্মূল করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডার্ন। গত কয়েকদিন ধরে দেশটিতে করোনা সংক্রমণ একক সংখ্যার ঘরে নেমে এসেছে। গত রবিবার দেশটিতে মাত্র একজন নতুন করে এই ভাইরাসে সংক্রমিত হন।

প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডার্ন বলেন, আপাতত ভাইরাসটিকে নির্মূল করা হয়েছে। আমরা এই লড়াইয়ে জিতেছি। তবে এ ভাইরাস নির্মূলের ব্যাপারে কর্মকর্তাদের আত্ম??ষ্টির কোনো সুযোগ নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, এর মানে এই নয়, নতুন সংক্রমণের পুরোপুরি অবসান ঘটেছে।

দেশটিতে করোনার বিস্তার ঠেকাতে জারিকৃত সামাজিক বিধি-নিষেধ প্রত্যাহার করে নেয়ার মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগে কিউই প্রধানমন্ত্রী এসব তথ্য জানান। আজ মঙ্গলবার থেকে দেশটির ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, স্বাস্থ্যসেবা ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালু হবে। বিধি-নিষেধ শিথিল হলেও অধিকাংশ মানুষকে এখনো ঘরে বন্দি থাকতে এবং সব ধরনের সামাজিক অনুষ্ঠান এড়িয়ে চলতে হবে। সরকারের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে অংশ নিয়ে জেসিন্ডা বলেন, আমরা অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড খুলে দিচ্ছি, কিন্তু মানুষের সামাজিক জীবন এখনো খোলা যাচ্ছে না।

করোনা মহামারি বিশ্বের বিভিন্ন দেশে তাণ্ডব চালালেও নিউজিল্যান্ডে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দেড় হাজারেরও কম।

এছাড়া দেশটিতে মারা গেছেন মাত্র ১৯ জন। দেশটির স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অ্যাশলি ব্লুমফিল্ড বলেন, নির্মূলের অর্থ নতুন সংক্রমণ আবার হবে না তা কিন্তু নয়।

তবে কোথায় থেকে সেই সংক্রমণ আসবে তা আমরা জানতে পারব। নিউজিল্যান্ডে ব্যাপক পরিসরে শনাক্তবিহীন কমিউনিটি ট্রান্সমিশন নেই। আমরা এই লড়াইয়ে জিতেছি। কিন্তু পরিস্থিতি যাতে খারাপ না হয়, সেজন্য সবাইকে অবশ্যই সজাগ থাকতে হবে। নিউজিল্যান্ডে মাত্র কয়েকজন করোনা রোগী পাওয়া যাওয়ার পর দেশজুড়ে স্বাভাবিক কার্যক্রম ও ভ্রমণে ব্যাপক কড়াকড়ি আরোপ করা হয়। সেই সময় দেশের সব সীমান্ত বন্ধ, বিদেশ ফেরতদের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন, কঠোর লকডাউন এবং গণহারে করোনা পরীক্ষা এবং শনাক্তকরণ কার্যক্রম জোরদার করা হয়।

জেসিন্ডা বলেন, একেবারে শুরুর দিকেই যদি কঠোর লকডাউন আরোপ না করা হতো, তাহলে নিউজিল্যান্ডে দিনে এক হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হতেন। তখন পরিস্থিতি কতটা খারাপ হতে পারত তা দেশের কেউ জানত না। কিন্তু আমাদের ক্রমবর্ধমান কার্যক্রমের কারণে সেই পরিস্থিতি এড়ানো গেছে।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj