জমি দখল করে পুকুর খননের অভিযোগ

মঙ্গলবার, ২৮ এপ্রিল ২০২০

কাগজ প্রতিবেদক : প্রভাব বিস্তার করে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলায় এক শিক্ষকের জমি দখলে নিয়ে পুকুর খনন করার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার নিজড়া ইউনিয়নের নারিকেলবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক কানাইলাল বণিকের জমিতে অবৈধভাবে পুকুর খনন করা হয়। ঘটনায় অভিযোগ করায় খনন কাজ পুলিশ বন্ধ করে দিলেও অভিযুক্তরা ফের শুরু করতে পারেন বলে আশঙ্কা করেন জমির মালিক।

শিক্ষকের ছেলে তুষার কান্তি বণিক গতকাল সোমবার জানান, নারিকেলবাড়ী গ্রামে আমাদের ১৮ কাঠা জমিতে অবৈধভাবে ভেকু দিয়ে পুকুর খনন করে এলাকার প্রভাবশালী কামাল মিনা ও ফিরোজ মিনা। তাদের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ করেন সাবেক প্রধান শিক্ষক ও জমির মালিক কানাইলাল বণিক। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে লকডাউন থাকায় এলাকায় চলাচল বন্ধ রয়েছে। তাছাড়া কানাইলাল বণিকের ছেলেমেয়ে কেউ বাড়িতে না থাকায় তারা জমি দখলের সুযোগ নেয়। অভিযুক্তরা গোপনে গত শনিবার পর্যন্ত ১৮ কাঠা জমির প্রায় একভাগে পুকুর খনন করে।

শিক্ষকের জমিতে পুকুর খনন সম্পর্কে অভিযুক্ত কামাল মিনার সঙ্গে কথা হলে তিনি গতকাল জানান, আমরা ভেকু দিয়ে পুকুর খনন শুরু করেছিলাম। পরে পুলিশ এসে কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। এখন বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা চলছে। এ বিষয়ে গোপালগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ, বৌলতলী তদন্ত কেন্দ্রের আইসি ও একই ইউনিয়নের চেয়ারম্যানকে জানানো হয়েছে। ঘটনায় গোপালগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার গত শনিবার রাত ৯টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পুকুর খনন বন্ধ করে দেয়।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj