করোনার প্রভাব : মাধবপুরে পানির দামে শসা বিক্রি

মঙ্গলবার, ২৮ এপ্রিল ২০২০

রাজীব দেব রায় রাজু, মাধবপুর (হবিগঞ্জ) থেকে : মাধবপুরে শসা চাষ করে এখন দিশেহারা কৃষকরা। করোনার কারণে পাইকাররা আসছেন না। তাই বিক্রি নেই শসার। কেজিপ্রতি শসা বিক্রি হচ্ছে ৫-৬ টাকা।

উপজেলার চৌমুহনী ইউনিয়নের রাজনগর গ্রামের কৃষক আব্দুল মজিদ, চাঁন মিয়া ও ফারুক মিয়া ২৪০ শতক জমিতে শসার চাষ করেছেন। করোনার যান চলাচল বন্ধ থাকায় ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, নরসিংদী এলাকার পাইকাররা আসছেন না। তাই বিক্রি অনেক কমে গেছে। এলাকার বাজারে পানির দামে শসা বিক্রি হচ্ছে।

সাজু মিয়া নামে এক শ্রমিক জানান, বর্তমান বাজারে শসার দাম কম। তাই যে টাকা দিয়ে জমিতে শসা উৎপাদন করা হয়েছে তা বিক্রি হবে না। বাজারে শসার দাম না থাকায় জমির মালিকরা শ্রমিকদের ঠিকমতো টাকা দিতে পারছেন না। প্রত্যেক শ্রমিককে প্রতিদিন ৪০০-৫০০ টাকা দিতে হয়।

কৃষক আব্দুল মজিদ জানান, ২৪০ শতক জায়গায় শসা চাষ করতে পৌনে ৩ লাখ টাকার মতো খরচ হয়েছে। দেড় লাখ টাকার মতো বিক্রি হয়েছে। অনেক জমিতে ভাইরাস আক্রমণ করেছে। শসার ভালো ফলন হলেও খড়ার কারণে অনেক শসা নষ্ট হয়েছে। তবে বেশি ক্ষতি হচ্ছে করোনায়। পাইকাররা আসছেন না বাজারে। তাই ১০ টাকার মাল ৫ টাকায় বিক্রি করতে হচ্ছে।

কৃষক চাঁন মিয়া জানান, শসা চাষ করে অনেক ক্ষতি হয়েছে। সরকারিভাবে সহযোগিতা না পেলে অনেক কৃষক পথে বসবে।

মাধবপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম জানান, প্রধানমন্ত্রী কৃষকদের জন্য ৫ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন। কৃষকদের শতকরা ৪ টাকা সুদে ঋণ দেয়া হবে। যদি এটি চলমান হয় তাহলে মাধবপুরের ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের ঋণের আওতায় আনতে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে।

সারাদেশ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj