করোনা বিজয়ী : বরিস জনসন আজ কাজে ফিরছেন

সোমবার, ২৭ এপ্রিল ২০২০

কাগজ ডেস্ক : মহামারি কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে তিন রাত হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে কাটানোর পর থেকে ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। আজ সোমবার থেকে তিনি পুনরায় দায়িত্বে ফিরছেন বলে নিশ্চিত করেছে ডাউনিং স্ট্রিটের এক মুখপাত্র। খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

সরকারের দায়িত্ব বুঝে নেয়ার পরই ৫৫ বছর বয়সী জনসনকে লকডাউনের কারণে বিপর্যয়ে পড়া অর্থনীতি নিয়ে চলমান তীব্র চাপ সামলাতে হবে। বিশ্বজুড়ে মহামারি সৃষ্টি করা নতুন করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে জনসন গত মার্চের শেষদিকে যুক্তরাজ্যজুড়ে লকডাউন জারি করেন। তারপর থেকে কোভিড-১৯ এ দেশটিতে মৃত্যুর সংখ্যা বাড়তে বাড়তে ২০ হাজার পেরিয়ে গেছে।

স্বাস্থ্যকর্মী ও সেবাদানকারীদের সুরক্ষা উপকরণ এবং করোনা ভাইরাস শনাক্তে পরীক্ষা কিটের ঘাটতিসহ মহামারি মোকাবিলায় যুক্তরাজ্য সরকারের নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়ে তীব্র সমালোচনা চলছে। দ্বিতীয় দফা সংক্রমণ বৃদ্ধির ঝুঁকি এড়িয়ে লকডাউনের বিধিনিষেধ শিথিল করার পদক্ষেপ কী হতে পারে, এ নিয়েও জনসনের প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডমিনিক রাবকে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয়েছে।

গত শনিবার ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নাগরিকদের লকডাউনের নির্দেশনা কঠোরভাবে মেনে চলার অনুরোধ করেন। কিন্তু দেশটির অনেক আইনপ্রণেতাই অর্থনীতি সচলে বিধিনিষেধ শিথিল করার পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। কারণ বাজেট সংক্রান্ত পূর্বাভাসে সতর্ক করে বলা হয়েছে, যুক্তরাজ্যের অর্থনীতি ৩০০ বছরেরও বেশি সময়ে মধ্যে সবচেয়ে গভীর মন্দায় পড়তে যাচ্ছে শিগগিরই। গত মার্চের শেষদিকে স্বাস্থ্য পরীক্ষায় জনসনের কোভিড-১৯ ধরা পড়ে। ১০ দিন পরও উপসর্গ না থাকায় চিকিৎসকদের পরামর্শে তিনি লন্ডনের সেইন্ট টমাস হাসপাতালে ভর্তি হন।

এই হাসপাতালে ৬ থেকে ৯ এপ্রিল তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে থাকতে হয়। হাসপাতাল থেকে ছুটি মেলার পরও তিনি বিশ্রামেই ছিলেন।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj