মানুষের পাশে যেন মানুষ আজীবন দাঁড়ায়

সোমবার, ২৭ এপ্রিল ২০২০


জাহারা মিতু। কলকাতার অভিনেতা দেবের সঙ্গে ‘কমান্ডো’ সিনেমায় অভিনয় করছেন। গত মাসে কলকাতায় শুটিং হয়। কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারণে শুটিং আপাতত বন্ধ। অন্য সবার মতো মিতুও গৃহবন্দি। এ বন্দি সময় ও সাম্প্রতিক বিষয়াশয় নিয়ে কথা হয় তার সঙ্গে। কথা বলেছেন শাকিল মাহমুদ

করোনার কারণে এ বছর পহেলা বৈশাখ সেভাবে পালিত হয়নি। নতুন এক পহেলা বৈশাখ উদযাপন-অনুভূতি কেমন ছিল?

এবারের পহেলা বৈশাখে আনন্দ করার মতো তেমন কোনো অবস্থাই কিন্তু ছিল না। এমন একটা দিনে আমরা দেখছি আমাদের আশপাশের মানুষগুলো মারা যাচ্ছে! নতুন করে মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে। সুতরাং অন্যবারের তুলনায় এবারের পহেলা বৈশাখ নিঃসন্দেহে বেদনার।

নতুন বছরে আপনার কী প্রত্যাশা?

নতুন বছরে নতুন কোনো প্রত্যাশা নেই। বিগত দিনে সৃষ্টিকর্তার রহমতে যেমন ভালো ছিলাম, সেভাবেই যেনো ভালো থাকি। আর একটা বিষয়, এ সংকটের সময়ে মানুষ যেভাবে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে এবং দাঁড়াচ্ছে ঠিক এভাবেই যেন সারা জীবন প্রত্যেকে প্রত্যেকের পাশে দাঁড়ায়। এটাই আমার নতুন বছরের চাওয়া।

কমান্ডো সিনেমায় দেবের সঙ্গে প্রথমবার অভিনয় করছেন। শুটিংয়ের কিছু অংশের কাজও হয়েছে। কেমন অনুভূতি ছিল?

আমার প্রথম সিনেমায় যেহেতু ঢালিউডের সুপারস্টারের সঙ্গে কাজ করা দিয়েই শুরু সেহেতু আমি চাইতাম এরপরের কাজটাও যাতে এমন কারো সঙ্গে হয়। সে সুযোগটা কমান্ডো দিয়েই এলো। তাই প্রস্তাব পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই আমি রাজি হয়ে যাই। কাজের অনুভূতি বেশ ভালোই। আমাদের শুটিং হয়েছে কলকাতায়। সুতরাং আমার কখনো মনে হয়নি আমি দেশের বাইরে কোথাও কাজে রয়েছে। প্রত্যেকের টেককেয়ার এবং সহায়তায় মনে হয়েছে দেশের কোথাও শুটিংয়ে আছি। আর সহ-অভিনেতা হিসেবে দেব অসম্ভব সহায়তাপরায়ণ। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ভালো অনুভূতি।

বর্তমান সংকটকালীন আপনি কী ধরনের কাজ করছেন?

জন্মের পর থেকেই বাবা-মা দুজনকেই দেখেছি সারা বছর নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী মানুষকে সাহায্য করতে। তাছাড়া আমি ‘বিউটি উইথ এ পারপাস’ কথাটিতে দারুণ বিশ্বাসী। তাই শুধুমাত্র এই সংকটকালীন নয়, আল্লাহর রহমতে সবসময়ই নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী কাজ করা হয়। এর বাইরে কিছু বলাটা আমার নীতিবিরোধী হবে।

করোনার কারণে সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিতে একটা ধস দেখা দিয়েছে। এ থেকে উত্তরণ করার উপায় কি?

সরকারি সহযোগিতা অবশ্য প্রয়োজন। সে সঙ্গে ব্যক্তিগত উদ্যোগ প্রয়োজন। আর সিনেমা সংশ্লিষ্ট যারা রয়েছেন প্রত্যেকের উচিত হবে একত্রিত একটি প্রচেষ্টা গড়ে তুলে সংকট কাটিয়ে ওঠার পথ তৈরি করা।

গৃহবন্দি সময়ে কীভাবে দিন কাটাচ্ছেন?

আমি বইপোকা একজন মানুষ। সুতরাং বই পড়ছি। একটা সময় মুভি দেখা হতো না। এখন মুভি দেখছি। তবে নিছক দেখার জন্য নয়। সেগুলোর প্রতিটি বিষয় ধরে ধরে দেখছি, শিখছি। আমার পরিবার আমার কাছে সব কিছু, তাই বাসাতেই যেহেতু আছি, পরিবারকে সময় দিচ্ছি।

বিনোদন'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj