কলাপাড়ায় সেতু ভেঙে ১৫ গ্রামের যোগাযোগ বন্ধ

শনিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২০

এস কে রঞ্জন, কলাপাড়া (পটুয়াখালী) থেকে : উপজেলার খাপড়াভাঙ্গা ও লতাচাপলী ইউনিয়নের খাপড়া নদীতে আয়রণ সেতুটি ভেঙে পড়েছে। গত বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে জোয়ারের চাপে সেতুটি ভেঙে নদীতে পড়ে যায়। এতে কেউ হতাহত না হলেও অন্তত ১৫টি গ্রামের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। এতে দুর্ভোগে পড়েন অন্তত অর্ধ লক্ষাধিক মানুষ।

লতাচাপলী ইউপি চেয়ারম্যান মো. আনসার মোল্লা জানান, ২০০৮-২০০৯ অর্থবছরে বরকতিয়া ও লক্ষীবাজারের মাঝ দিয়ে বহমান খাপড়া নদীর উপর আয়রণ সেতুটি নির্মাণ করা হয়। গত প্রায় দুই বছর ধরে সেতুটির বরকতিয়া অংশের ¯øাবগুলো ভেঙে যায়। লোহার কাঠামোতে মরিচা ধরে ভেঙে একদিকে কাত হয়ে যায়। সেতু ভেঙে দুর্ঘটনা এড়াতে সেতুর লক্ষীবাজার অংশে কাঠের বেড়া ও সেতুর উপর গাছ রেখে সব যান চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়। শুধু ১৫ গ্রামের মানুষ সেতু দিয়ে চলাচল করতেন।

সেতু ভেঙে যাওয়ায় ফাতেমা বিদ্যালয়সহ পাঁচটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সহ¯্রাধিক শিক্ষার্থীসহ গ্রামবাসী জরুরি পণ্য ক্রয়-বিক্রয়ে দুর্ভোগে পড়েছেন।

লক্ষীবাজারের ব্যবসায়ী রবীন কর্মকার জানান, সেতুর ভাঙা অংশ নদীতে পড়ে যাওয়ায় বন্ধ হয়ে যায় নৌ যোগাযোগও। কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হাসনাত মো. শহিদুল হক জানান, যোগাযোগ চালু রাখতে সেতুর পাশে একটি খেয়া নৌকা বসানো হয়েছে। জরুরি ভিত্তিতে সেতুটি ভেঙে ওই স্থানে নতুন একটি সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হবে।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj