জাতি সচেতন তো দেশ সচেতন

শনিবার, ১১ এপ্রিল ২০২০

সাদিয়া নাবিলা। বলিউডে ‘পেরেশান পারিন্দা’ সিনেমা দিয়ে অভিনয় যাত্রা শুরু করেন। সম্প্রতি তিনি ‘মিশন এক্সট্রিম’ সিনেমায় অভিনয় শেষ করেছেন। বর্তমানে তিনি অস্ট্রেলিয়াতে রয়েছেন। সেখান থেকে মুঠোফোনে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা হয়

ভোরের কাগজের সঙ্গে। কথা বলেছেন শাকিল মাহমুদ

‘মিশন এক্সট্রিম’ দিয়ে বাংলাদেশে অভিষেক। এর আগে বলিউডে ‘পেরেশান পারিন্দা’য় অভিনয় করেছেন। এই দুই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করার অনুভূতি কেমন?

দুটি ইন্ডাস্ট্রি যেহেতু আলাদা তাই দুটির ভেতরে কিছু না কিছু তো আলাদা রয়েছেই। বলিউডে যেহেতু আমার প্রথম কাজ সেহেতু আমাকে অনেক কিছু শিখতে হয়েছে। সেখানের সবাই অনেক সহায়তাপরায়ণ। আমাকে অনেক কিছুতে যথেষ্ট সাহায্য করেছে। তেমনই বাংলাদেশেও আমি প্রথম কাজ করলাম। মিশন এক্সট্রিমে কাজ করতে গিয়ে আমাকে নতুন করে সব কিছু শিখতে হয়েছে, জানতে হয়েছে। এখানেও পুরো টিম আমাকে প্রচণ্ড রকম সাপোর্ট দিয়েছে। তবে অনুভূতির ক্ষেত্রে পৃথিবীর যেখানেই কাজ করি না কেন, নিজ দেশের মানুষের সঙ্গে কাজ করার মজাটাই আলাদা। অন্য কোথাও যা পাওয়া যায় না।

বলিউড থেকে ঢালিউডে আসা হলো কেন?

আসলে আমি সব সময়ই নিজের দেশে কাজ করতে চেয়েছি। কিন্তু সৌভাগ্যবশত বলিউডে আমার প্রথম কাজ করার সুযোগ হয়ে যায়। বলিউড কিংবা ঢালিউড এ রকম করে বিষয়টাকে আমি দেখি না। বরং আমি মনে করি বলিউড থেকে আমি একটা সুযোগ পেয়েছি- কাজ করেছি। দেশেও কাজ শুরু করলাম। এখন থেকে নিয়মিত কাজ করব।

মিশন এক্সট্রিমে কাজ করতে গিয়ে সবচেয়ে বেশি কোন বিষয়কে ভালো লেগেছে?

পুরো টিমকেই আমার ভালো লেগেছে। মিশন এক্সট্রিমে কাজ করতে গিয়ে আমার কখনো মনে হয়নি আমি বাইরের দেশে থাকি, কাজ করার জন্য এখানে এসেছি। নিজেদের পরিবারের সদস্যের মতো করে না রাখলে এমনটা মনে হতো না।

সিনেমা নিয়ে কী ভাবছেন? কেমন সিনেমায় কাজ করবেন?

আমি যেহেতু অভিনয়টাই করছি সেহেতু সব সময় চাই ভালো কাজ করে দর্শকের কাছে থাকতে। সে ক্ষেত্রে অবশ্য ভালো গল্পে, ভালো চরিত্রে কাজ করব। এর বাইরে অন্য বিষয় নিয়ে চিন্তা করি না।

নতুন কোনো সিনেমায় যুক্ত হয়েছেন?

আসলে মিশন এক্সট্রিম সিনেমাটি আমরা সবাই খুব ভালোবাসা এবং দায়িত্ব নিয়ে করেছি। সবে সিনেমাটির কাজ শেষ হলো। বর্তমানে পুরো পৃথিবীর যে স্থবির অবস্থা তাতে কবে নাগাদ সিনেমাটি মুক্তি পাবে জানি না। তবে সিনেমাটি মুক্তির আগ পর্যন্ত কোনো সিনেমায় যুক্ত হচ্ছি না।

আপনি বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ায় আছেন। করোনা নিয়ে সেখানে সতর্কতা কেমন?

করোনা ভাইরাসের কারণে আমরা সবাই খুব খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি। অস্ট্রেলিয়াতেও খুব কঠিন আইনকানুন করা হয়েছে। আমরা সবাই বাসায় থাকছি। যতবার পারছি হ্যান্ড ওয়াশ করছি, হাইজেনিক বিষয়গুলো মেনে চলছি।

সবার উদ্দেশে কোনো পরামর্শ দিতে চান?

আসলে এই সময়ে আমাদের সবার নিরাপদ থাকা জরুরি। সরকারি নির্দেশনা মেনে ঘরে থাকুন। আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হন। দিন শেষে জাতি সচেতন তো দেশ সচেতন। সুতরাং সচেতনতা হওয়া ছাড়া এখন আর কোনো পথ খোলা নেই।

বিনোদন'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj