কম বেতনেই সম্মত মেসিরা

বুধবার, ২৫ মার্চ ২০২০

কাগজ ডেস্ক : করোনা ভাইরাসের করাল থাবায় স্থবির পুরো বিশ^। এমন দুঃসময়ে কম বেতন নিতে রাজি মেসিরা। ফুটবলাররা বেতন কাটার প্রস্তাবে ইতিবাচক সাড়া দিয়েছেন। কিন্তু খেলা কতদিন বন্ধ থাকবে সেটি অনির্দিষ্ট, আর এটাও তাই ঠিক করা যাচ্ছে না যে খেলোয়াড়দের প্রাপ্য বেতনের কী পরিমাণ কাটা হবে।

করোনা আঘাতে বিপুল আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়া বার্সেলোনা কর্তৃপক্ষ ক্ষতির কিছুটা পুষিয়ে নিতে ক্লাবটির সিনিয়র খেলোয়াড়দের সঙ্গে আলোচনায় বসে। ইউরোপের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বেতন দেয় বার্সা কর্তৃপক্ষ। এক মৌসুমের জন্য অঙ্কটা ৪৩৮ মিলিয়ন অর্থাৎ ৪৩ কোটি ৮০ লাখ পাউন্ড। আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসির বেতন সর্বোচ্চ, সাপ্তাহিক ১.১৫ মিলিয়ন অর্থাৎ ১১ লাখ ৫০ হাজার পাউন্ড। বার্সেলোনার অন্য ৩ সর্বোচ্চ বেতনভোগী সিনিয়র খেলোয়াড় লুইস সুয়ারেজ, আঁতোয়ান গ্রিজমান ও সের্হিয়ো বুসকেটস, যারা সপ্তাহে পান ৩ লাখ পাউন্ডের ওপর। কাতালান ক্লাবটির আয়ের বড় উৎস লা লিগা ও চ্যাম্পিয়নস লিগ, আর এ দুটি প্রতিযোগিতাই অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত হয়ে গেছে। প্রায় ১ লাখ দর্শক ধারণক্ষমতার ন্যু ক্যাম্প স্টেডিয়ামে টিকেট বিক্রি থেকেই কাড়ি কাড়ি টাকা পায় তারা। এর ওপর রয়েছে চ্যাম্পিয়নস লিগ। উয়েফা বার্ষিক যে ২৩৫ কোটি পাউন্ড ক্লাবগুলোর মধ্যে ভাগ করে দেয়, সেটির একটা বড় অংশই তাদের প্রাপ্য।

আগে বলা হয়েছিল মে মাসে শুরু হতে পারে স্থগিত থাকা লিগ। কোভিড-১৯ ভাইরাস স্পেনে যে ভয়াল উপস্থিতি জানান দিয়েছে, তাতে এমনও হতে পারে এ মৌসুমে লিগটা শেষই হলো না! আর এটা হলে সবচেয়ে বড় আর্থিক ক্ষতি হবে বার্সেলোনার। স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মার্কার খবর অনুযায়ী, এমন পরিস্থিতিতেই গত ১৮ মার্চ (বুধবার) ক্লাবটির নির্বাহী বোর্ড বসেছিল জরুরি বৈঠকে। সেখানেই প্রস্তাব ওঠে ক্লাবের সর্বোচ্চ বেতনভোগী ফুটবলারদের বেতন কর্তনের। বেতন কাটলে, বলাই বাহুল্য, সবচেয়ে বড় কোপটা পড়বে মেসির ঘাড়ে।

করোনা ভাইরাসের জেরে বিশ^ব্যাপী বাতিল এবং স্থগিত হয়ে গেছে প্রায় সব স্পোর্টস ইভেন্ট। লা লিগা, ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ, সিরি আ থেকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ- সব স্থগিত। এ বছর বসছে না ইউরো কাপের আসর। ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে ফুটবলারদের বেতন কমিয়ে দেয়ার পথে হাঁটছে ক্লাবগুলো। আপাতত কোনো ম্যাচ খেলতে হচ্ছে না লিওনেল মেসিদের। গত ৭ মার্চ বার্সেলোনা শেষ ম্যাচটি খেলে। ওই ম্যাচে তারা ১-০ গোলে রিয়াল সোসিয়াদের বিপক্ষে জেতে। খেলা না থাকলেও চুক্তি অনুযায়ী পুরো বেতনই দিতে হচ্ছে খেলোয়াড়দের। ফলে বিপুল ক্ষতির সামাল দিতে বেতনে কাটছাঁট আনার কথা ভাবছেন ক্লাব কর্তারা। আগামী সপ্তাহেই এ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসতে পারে।

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj