ঊর্ধ্বমুখী পেঁয়াজ রসুন ও আদার দাম

শুক্রবার, ৬ মার্চ ২০২০

কাগজ প্রতিবেদক : ভোগ্যপণ্যের সবচেয়ে বড় বাজার চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে গত কয়েক দিন মসলাজাতীয় পণ্য পেঁয়াজ, রসুন ও আদার দাম কমতির দিকে ছিল। তবে এখন তা আবার ঊর্ধ্বমুখী হয়ে উঠেছে। গত পাঁচদিনের ব্যবধানে পাইকারি পর্যায়ে পণ্য তিনটির দাম যথাক্রমে সর্বোচ্চ ২৫, ৩০ ও ২০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা বলছেন, বাংলাদেশ সাধারণত ভারত থেকে পেঁয়াজ ও চীন থেকে আদা-রসুন আমদানি করে। এতদিন পেঁয়াজ রপ্তানিতে ভারত সরকারের নিষেধাজ্ঞার জেরে পণ্যটির আমদানি বন্ধ ছিল। অন্যদিকে নভেল করোনা ভাইরাসের প্রভাবে চীন থেকে আদা ও রসুন আমদানিও বন্ধ হয়ে পড়ে। ফলে মসলাপণ্যগুলোর দাম বাড়তে শুরু করে। তবে কয়েক দিন আগে ভারত পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে। এছাড়া চীন থেকে আদা ও রসুন আমদানি শুরুর ঘোষণা দেয়া হয়েছে। এ ঘোষণার পর সবগুলো পণ্যের দাম কমে যায়। তবে আমদানি এখনো শুরু না হওয়ায় এসব পণ্যের দামে ফের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা পড়েছে।

পাইকারি বাজার খাতুনগঞ্জ ঘুরে দেখা গেছে, বাজারটিতে গতকাল মানভেদে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৩৫ থেকে ৬০ টাকার মধ্যে বিক্রি হয়েছে। এর মধ্যে চীন থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ ৩৫-৪০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। মিয়ানমার থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ ৪০-৬০ টাকা আর পাকিস্তান থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ ৫০-৫৫ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে। দীর্ঘদিন ঊর্ধ্বমুখী থাকার পর গত সপ্তাহের শেষ দিকে পেঁয়াজের দাম কিছুটা কমেছিল।

অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj