স্বাধীনতা পুরস্কার পাচ্ছেন ৯ ব্যক্তি এক প্রতিষ্ঠান

শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০

কাগজ প্রতিবেদক : বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী এবং নাট্য ব্যক্তিত্ব ফেরদৌসী মজুমদারসহ ৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি এবার স্বাধীনতা পুরস্কার পাচ্ছেন। তাদের সঙ্গে প্রতিষ্ঠান হিসেবে ভারতেশ্বরী হোমস শিক্ষা ক্ষেত্রে অবদানের জন্য সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় এ পুরস্কার পাচ্ছে। সর্বশেষ ২০১৯ সালে ১৩ জন ব্যক্তি ও একটি প্রতিষ্ঠানকে স্বাধীনতা পুরস্কার দিয়েছে সরকার।

গতকাল বৃহস্পতিবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে স্বাধীনতা পুরস্কারের জন্য মনোনীতদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ ক্যাটাগরিতে পদক পাচ্ছেন- গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক), মরহুম কমান্ডার আবদুর রউফ, মরহুম মো. আনোয়ার পাশা ও আজিজুর রহমান। চিকিৎসাবিদ্যায় অধ্যাপক ডা. মো. ওবায়দুল কবির চৌধুরী, অধ্যাপক ডা. এ কে এম এ মুকতাদির। সাহিত্যে এস এম রইজ উদ্দিন আহম্মদ (মুক্তিযোদ্ধা)। সংস্কৃতিতে কালীপদ দাস ও ফেরদৌসী মজুমদার। প্রতিষ্ঠান হিসেবে শিক্ষায় ভারতেশ্বরী হোমস।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ২৫ মার্চ রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনাতয়নে ২০২০ সালের স্বাধীনতা পুরস্কার তুলে দেবেন বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। এটি দেশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় বেসামরিক পুরস্কার। ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সরকার ১৯৭৭ সাল থেকে প্রতি বছর এ পুরস্কার দিয়ে আসছে। বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য বর্তমানে স্বাধীনতা পুরস্কার, একুশে পদক, বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পুরস্কার, বেগম রোকেয়া পদক, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ও জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার দিয়ে থাকে সরকার।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ প্রদত্ত বেসামরিক সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পুরস্কার হলো স্বাধীনতা পদক। অন্যান্য সব পুরস্কারের সঙ্গে আগামী বছর থেকে স্বাধীনতা পুরস্কারের অর্থের পরিমাণ বাড়ানো হয়েছে। সরকারের এই নির্দেশনাবলি অনুযায়ী, স্বাধীনতা পুরস্কারের ক্ষেত্রে আগামী বছর থেকে ৫ লাখ টাকা পাবেন। বর্তমানে দেয়া হয় ৩ লাখ টাকা। পুরস্কারপ্রাপ্ত ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান পাবেন ১৮ ক্যারেট মানের পঞ্চাশ গ্রাম স্বর্ণের পদক, পদকের একটি রেপ্লিকা ও একটি সম্মাননাপত্র।

প্রথম পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj