বেঙ্গালুরুর ভয় দেখানো ‘ভূতের’ হাতে হাতকড়া

বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯

কাগজ ডেস্ক : কয়েক দিন ধরেই বেঙ্গালুরুর যশবন্তপুরের শরীফনগর এলাকায় দেখা মিলছিল ‘ভূতদের’। অটোচালক থেকে সাধারণ পথচারী, অনেকেই পুলিশের কাছে অভিযোগ জানিয়েছিলেন, রাতের বেলায় পথে যাওয়ার সময় ‘ভূত’ তাড়া করছে তাদের! সাদা পোশাকে মুখ ঢাকা সেসব ভূতের কারো মুখে কালি, তো কারো মুখ দিয়ে ঝরে পড়ছে রক্ত! স্বাভাবিকভাবেই বিষয়টি নিয়ে তৎপর হয় পুলিশ। অবশেষে তদন্তে নেমে বেঙ্গালুরুর রাস্তায় ঘুরে বেড়ানো সেই সাত ‘ভূত’ গত সোমবার ধরা পড়েছে পুলিশের হাতে। খবর আনন্দবাজার।

ওই সাতজন ভূত সেজে রাতের বেলা পথচারীদের ভয় দেখাচ্ছিল বলে জানানো হয় পুলিশের তরফে। নিজেদের ইউটিউব চ্যানেলে প্রাঙ্ক ভিডিও আপলোড করার জন্যই ভূত সেজে ভয় দেখাচ্ছিল বলে জেরায় পুলিশের কাছে স্বীকার করে ওই অভিযুক্তরা। পুলিশ জানায়, অভিযুক্তরা সবাই বিভিন্ন কলেজের ছাত্র। তাদের বয়স ২০ থেকে ২২ বছরের মধ্যে। বেঙ্গালুরুর ডিসিপি (নর্থ) এন শশী কুমার বলেন, এস মালিক, নাভিদ, এ মহম্মদ, সাকিব, এস নাবিল, ইউসুফ এ, এম আকিউবসহ ধৃত সবাই আর টি নগরের বাসিন্দা। তাদের কেউ কৃষিবিদ্যা, কেউ বিজনেস ম্যানেজমেন্ট, কেউ কম্পিউটার সায়েন্স নিয়ে কলেজে পড়াশোনা করেন। গত কয়েক দিন ধরে সাদা কোর্তা, লম্বা চুল পরে ভূত সেজে তারা শরীফনগরের পথচারীদের ভয় দেখাচ্ছিল। কেউ কেউ এড়িয়ে গেলেও অনেকেই তাদের এই অভিনয়ে ভয় পেয়ে যান।

গ্রেপ্তারের পর তাদের জেরার সময় প্রাঙ্ক ভিডিওর বিষয়টি জানতে পারে পুলিশ। নিজেদের ইউটিউব চ্যানেলের কথাও জেরার মুখে স্বীকার করেন তারা। এই কাজের জন্য পুলিশের কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন তারা। তবে অপরাধমূলক হুমকি, জনসাধারণকে উপদ্রব এবং প্রকাশ্য স্থানে অবৈধ জমায়েতের অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ।

প্রথম পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj