এসেছে নতুন বাংলা গান

শনিবার, ৯ নভেম্বর ২০১৯

বাংলা গানের ভাণ্ডারে যুক্ত হলো আরো কিছু নতুন গান। সম্প্রতি সাতটি ট্র্যাক নিয়ে প্রকাশিত হয়েছে ‘অচিনপুরের গান’ নামের একটি নতুন অ্যালবাম। এদিকে ১২টি নতুন গান নিয়ে জলের গান প্রকাশ করেছে তাদের তৃতীয় অ্যালবাম ‘নয়ন জলের গান’।

অচিনপুরের গান

ছয়টি গান ও একটি আবৃত্তি নিয়ে ভিন্ন আঙ্গিকের একটি অ্যালবাম ‘অচিনপুরের গান’। গত বুধবার সন্ধ্যায় বিশ^সাহিত্য কেন্দ্রে এ অ্যালবামটির মোড়ক উন্মেচন করেন নন্দিত সঙ্গীতশিল্পী বাপ্পা মজুমদার, পার্থ বড়ুয়া, গীতিকার সাবরিনা সুলতানা চৌধুরী, শেখ রানাসহ অনেকে। অ্যালবামে তিনটি নাগরিক ভাবনার গান লিখেছেন শেখ রানা। অন্যদিকে লোক আঙ্গিকের তিনটি গান লিখেছেন সাবরিনা সুলতানা চৌধুরী। গানের সঙ্গে শ্রোতাদের জন্য রয়েছে সাবরিনার লেখা এবং ত্রপা মজুমদারের কণ্ঠে লোক আঙ্গিকের আবৃত্তি ‘মানুষটারে বড় ভালোবাসতাম গো’। গানগুলো গেয়েছেন পার্থ বড়ুয়া, হাসান আবিদুর রেজা জুয়েল, বাপ্পা মজুমদার, পিন্টু ঘোষ, লাবিব কামাল ও ফোক ব্যান্ড দল ‘গানকবি’। গীতিকার শেখ রানা বলেন, ‘অ্যালবামটি কোনো বাণিজ্যিক উদ্দেশ্য থেকে তৈরি করা হয়নি। অস্থির এ সময়ে শ্রোতাদের সুন্দর গান উপহার দেয়াই এ অ্যালবামের উদ্দেশ্য। ইউটিউবে অচিনপুর নামের একটি চ্যানেল থেকে অ্যালবামের সব ট্র্যাক শোনা যাবে।’ অ্যালবামটির অপর উদ্যোক্তা সাবরিনা সুলতানা বলেন, ‘বেশ লম্বা সময় ধরে হৃদয়ের ভেতরের জমা অনুভূতিগুলো কালির আঁচড়ে একটা ছন্দে সাজানো হয়েছে। সেই গানে বাঁধা পড়েছে সুর। অচিনপুরের গান সেই শুদ্ধ অনুভূতিরই ফসল।’ অ্যালবামটির দুটি গান থেকে ইতোমধ্যে ভিডিও নির্মিত হয়েছে।

নয়ন জলের গান

জলের গান মানেই তো ভিন্ন আঙ্গিকের গান। এবার নতুন ১২টি গান নিয়ে হাজির হয়েছে এ গানের দলটি। সম্প্রতি ডিজিটাল মিডিয়ায় ‘নয়ন জলের গান’ শিরোনামে দলটির তৃতীয় অ্যালবাম প্রকাশ হয়েছে। এতে গান আছে ১২টি। ইতোমধ্যে গানগুলো প্রশংসিত হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এই অ্যালবামে ‘চন্দনী’ শিরোনামে একটি গান গেয়েছেন বারী সিদ্দিকী। অনিমেষ আইচের ‘না মানুষ’ সিনেমার জন্য গানটি গেয়েছিলেন তিনি। সেই সিনেমাটি এখনো মুক্তি পায়নি। জলের গানের সদস্য রাহুল আনন্দ বলেন, ‘সম্ভবত এটিই আমার গুরুজী বারী সিদ্দিকীর সর্বশেষ প্রকাশিত গান। জলের গানের প্রতিটি অ্যালবামেই বন্ধুর গান রাখি। প্রথম অ্যালবামে আনুশেহ আনাদীল গেয়েছিল একটি গান। দ্বিতীয় অ্যালবামে ছিল সৈয়দ ওয়াকিল আহাদের গান। এবারের অ্যালবামে বারী সিদ্দিকীর এই গানটি প্রকাশ হলো।’ পুরো অ্যালবামের রেকর্ডসহ মিউজিক ভিডিও ধারণ করা হয়েছে মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় এক পাহাড়ের ওপর। পুরো অ্যালবামেই জলের গান তার নিজস্বতা নিয়েই সাজিয়েছে। অ্যালবামের জন্য ১৬টি গান তৈরি করা হয়। সেখান থেকে ‘হলুদ ফুল’, ‘ফুল চাষির গান’, ‘বন্ধু-২’, ‘চন্দনী’, ‘ঘুঙুর’, ‘শূন্য’, ‘ডানা ভাঙা পাখির গান’, ‘রসিক যেজন’, ‘পিঠা পুলির গান’, ‘জীবনানন্দ’, ‘মানুষ’, ‘বাংলার মুখ’ শিরোনামের ১২টি গান দিয়ে অ্যালবামটি সাজানো হয়েছে।

অ্যালবামের গানগুলো এখন ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে শোনা যাচ্ছে। অ্যালবামটি বাজারে কিনতেও পাওয়া যাচ্ছে। রাহুল আনন্দ বলেন, ‘বরাবরের মতো জলের গান বের করেছে একটি গানের খাতা। এখানে জলের গানের সব গানের লিরিক এবং কর্ড বিভাজন রয়েছেন। সঙ্গে থাকছে একটি সিডির রেপ্লিকা। গানের খাতা ও সিডির রেপ্লিকার দাম ১০০ টাকা।’ জলের গানের বর্তমান লাইনআপে রয়েছেন রাহুল আনন্দ, রানা সরোয়ার, এ বি এস জেম, মাসুম মিয়া, দীপ রায়, মল্লিক ঐশ্বর্য, গোপী দেবনাথ ও শব্দ প্রকৌশলী ডি এইচ শুভ্র।

:: শাহনাজ জাহান

মেলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj