রাজশাহীতে সংবাদ সম্মেলন : ডিবি পুলিশের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ

শুক্রবার, ৮ নভেম্বর ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক, রাজশাহী : জেলায় স্বামীকে ইয়াবা ও হেরোইন দিয়ে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগে মহানগর গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগী পরিবার। গত মঙ্গলবার বিকেল ৩টায় রাজশাহী প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী ফাইযুস সালেহীন ফরহাদের স্ত্রী শাপলা খাতুন লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমার স্বামী ফাইযুস সালেহীন ফরহাদ ও আমি মিলে বিগত ৭-৮ মাস ধরে মেহেরচণ্ডী পূর্বপাড়া সমশের মণ্ডলের মোড়ে কনফেকশনারি দোকান পরিচালনা করি। স্বামী ফাইযুস সালেহীন ফরহাদ আগে মাদক সেবন করতেন। তবে কখনো মাদক ব্যবসা করেননি।

এই সুবাদে কয়েকবার পুলিশ মাদকসেবনের অপরাধে তাকে আটক করেছে। কিন্তু গত ২ নভেম্বর সন্ধ্যা ৫টা ৫৫ মিনিটের দিকে চন্দ্রিমা থানার বুধপাড়া মোড় এলাকা থেকে মেহেরচণ্ডী পূর্বপাড়া এলাকার ইব্রাহীম হোসেন বাবুকে (২৭) ১০০ পিস ইয়াবাসহ আটক করেন মহানগর গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশের এসআই মিজানুর রহমান সরকারসহ অন্য পুলিশ সদস্যরা। পরে জানতে পারি এই মামলায় আমার স্বামী ফাইযুস সালেহীন ফরহাদকে পলাতক আসামি করে মামলা দেয়া হয়েছে। সে সময় আমার স্বামী বাসায় ঘুমিয়েছিলেন। এ সময় মামলার ১ নম্বর সাক্ষী একই এলাকার জহুরুল ইসলাম কয়েকবার আমার স্বামীর মোবাইলে ফোন দিয়ে আমার বাড়ির সামনে গিয়ে ডেকে নিয়ে যান। ঘটনার পর আমার স্বামী ফরহাদের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারি ডিবি পুলিশের কোনো এক পুলিশ কর্মকর্তাকে ফরহাদ সহযোগিতা করেন।

এ কারণে ডিবি পুলিশের এসআই মিজানুর রহমান সরকার তার ব্যক্তিস্বার্থ হাসিল না হওয়ায় আমার স্বামীকে মামলায় জড়িয়েছেন। এই মামলার ১ নম্বর সাক্ষী একই এলাকার জহুরুল ইসলাম ও ২ নম্বর সাক্ষী একই এলাকার রাজুর (২৯) সঙ্গে কথা বললে তারা বলে ডিবি পুলিশের এসআই মিজানুর রহমান সরকার তাদের ডেকে নিয়ে সাক্ষী করেছেন। তারা এ বিষয়ে কিছু দেখেননি বা জানেন না।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে তার নির্দোষ স্বামীকে মিথ্যা মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়া ও এমন মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির জন্য ডিবি পুলিশের এসআই মিজানুর রহমান সরকারসহ জড়িত অন্য পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানানো হয়।

সারাদেশ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj