ডিএসইতে সূচক কমেছে ৭ পয়েন্ট

বৃহস্পতিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : আবারো ধারাবাহিক পতনে দেশের পুঁজিবাজার। গত মঙ্গলবারের মতো গতকাল বুধবারও পতনে শেষ হয়েছে পুঁজিবাজারের লেনদেন। এ দিন উভয় পুঁজিবাজারে প্রধান প্রধান সূচক কমেছে। একই সঙ্গে কমেছে টাকার পরিমাণে লেনদেন। তবে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই ও সিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৯৫১ পয়েন্টে। ডিএসইতে অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ সূচক ৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১৭৬৭ পয়েন্টে। তবে শরিয়াহ সূচক নামমাত্র বেড়েছে।

ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৫৩টি কোম্পানির মধ্যে ১৪৭টি বা ৪২ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। অন্যদিকে দাম কমেছে ১৪১টি বা ৪০ শতাংশ কোম্পানির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৬৫টি বা ১৮ শতাংশ কোম্পানির। এ দিন ডিএসইতে ৩১৮ কোটি ৪৪ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের কার্যদিবস থেকে ৮৭ কোটি ১৯ লাখ টাকা কম। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৪০৫ কোটি ৬৩ লাখ টাকার।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে মুন্নু জুট স্টাফলার্সের শেয়ার। এ দিন কোম্পানির ১১ কোটি ৮১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্সের ৯ কোটি ৮২ লাখ টাকার এবং ৮ কোটি ৭৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ন্যাশনাল টিউবস।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- গ্রামীণফোন, ভিএফএস থ্রেড ডাইং, ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্স, বিকন ফার্মা, রূপালী ইন্স্যুরেন্স, ফরচুন সুজ এবং মুন্নু সিরামিক।

অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ৫৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ২৩ পয়েন্টে। এ দিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৩৭টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ৮৮টির, কমেছে ১২১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টির দর। গতকাল সিএসইতে ১৭ কোটি ৬৫ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj