পাঁচজনের পেটে ১৩ হাজার ইয়াবা

বৃহস্পতিবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

এম ফিরোজ মিয়া, কুমিল্লা থেকে : পেটের ভেতরে করে ইয়াবা পাচারের সময় গাড়িসহ ৫ মাদক পাচারকারীকে আটক করেছেন কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের এলআইসি টিমের সদস্যরা। গত সোমবার তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়। আটককৃতরা হলো- কুষ্টিয়ার মিরপুর থানার হালসা গ্রামের সাইফুল ইসলাম, কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী থানার ধনারচর গ্রামের জাহিদুল ইসলাম, একই জেলার চুলিয়ারচর গ্রামের মো. সুলতান, রাজিবপুর থানার চরসাজৈ গ্রামের শরিফুল ইসলাম ও একই উপজেলার চররাজিবপুর গ্রামের ফারহজান রাজ।

ডিবি পুলিশ জানায়, রবিবার পদুয়ার বাজার বিশ্বরোডে পুলিশ চেকপোস্টের মাধ্যমে বিভিন্ন যানবাহন তল্লাশি করছিল। এ সময় চট্টগ্রাম থেকে ঢাকা অভিমুখে একটি কালো রংয়ের মাইক্রোবাস পুলিশের তল্লাশি দেখে রাস্তার মধ্যে রেখে গাড়ি থেকে নেমে কৌশলে পালানোর চেষ্টা করলে ৫ যুবককে আটক করা হয়। পরে তাদের জিজ্ঞাসাবাদে প্রথমে অস্বীকার করলে ডিবি পুলিশ পাশের একটি ক্লিনিকে নিয়ে এক্স-রে করে পেটের মধ্যে ইয়াবার অস্বিত্ব পায়।

পরে তাদের পেটের ভেতর বড় বড় ক্যাপসুলের মতো ইয়াবা সংবলিত ২৬০টি প্যাকেট বিশেষ ব্যবস্থায় উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত প্যাকেটে ১৩ হাজার পিস ইয়াবা ছিল বলে জানায় ডিবি পুলিশ। এ ঘটনায় কুমিল্লা ডিবি পুলিশের উপপরিদর্শক ইকতিয়ার উদ্দিন বাদী হয়ে কোতোয়ালি মডেল থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করে জেলহাজতে পাঠান।

সারাদেশ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj