ভাঙা কালভার্টে ঝুঁকিপূর্ণ চলাচল

বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০১৯

বেলাল হুসাইন বিজয়, কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) থেকে : ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ থেকে কোলাবাজার সড়কের বেহাল দশা অনেক দিনের। এর সঙ্গে মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা হয়ে দাঁড়িয়েছে কোলা পশ্চিমপাড়ার কালভার্টটি। দুই মাস ধরে ভেঙে পড়া কালভার্টটি আজও সংস্কার করা হয়নি। ফলে ঝুঁকি নিয়েই চলাচল করছে যানবাহন ও স্থানীয় মানুষ। জানা যায়, উপজেলার ব্যস্ততম সড়কের অন্যতম কালীগঞ্জ থেকে কোলা সড়কটি। কোলাবাজারের কাছে কালভার্টটির প্রায় অর্ধেক ভেঙে বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। কালভার্টটি কালীগঞ্জ উপজেলার কোলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেনের বাড়ির কাছে। ভেঙে যাওয়ার পর থেকে এলাকার সচেতন লোকজন নিজেদের উদ্যোগে ওই স্থানে গাছের ডাল দিয়ে বিপজ্জনক চিহ্ন দিয়ে রাখলেও টনক নড়েনি কর্তৃপক্ষের।

উপজেলার বলরামপুর, গোপালপুর, কোলা, কাবিলপুর, ঘোষপাড়া, দুধরাজপুর, বারোপাখিয়া, চোকাউতলা, রামচন্দ্রপুর গ্রামসহ কয়েক হাজার লোক মারাত্মক ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছেন। স্থানীয়রা জানান, সংশ্লিষ্ট অফিস ও জনপ্রতিনিধিদের কাছে বার বার ধরনা দিয়েও ব্রিজটি সংস্কার করা যায়নি।

সরেজমিন দেখা গেছে, কালীগঞ্জ থেকে কোলাবাজার জনগুরুত্বপূর্ণ সড়কটিতে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের বাড়ির কাছে কালভার্টের অর্ধেকটা জুড়ে ভেঙে পড়েছে। নিরাপত্তার জন্য দুমাস আগে এখানে একটি ডাল সতর্কীকরণ চিহ্ন দেয়া হয়েছে। কোলা ইউপি চেয়ারম্যান ঘটনা জানার পরও এ পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি। কোলাবাজার একটি বড় বাজার। এখানে রয়েছে বিশাল ধানের হাট। এ ধান দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি হয়ে থাকে।

এলাকাবাসী বলছেন, দুই বছর আগে কালভার্টটি রাস্তা পাকাকরণের সময় করা হয়েছিল। কিন্তু অতি নি¤œমানের রড, ইট, সিমেন্ট দিয়ে মেরামত করায় মাত্র দুবছরের মাথায় এটি ভেঙে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে।

সড়কটি দিয়ে ২০ গ্রামের মানুষ চলাচল করে। এটি প্রায় ১০ ফুট চওড়া। কিন্তু রাস্তার পাঁচ ফুট জুড়ে কালভার্ট ভাঙা অবস্থায় পড়ে রয়েছে। এলাকার সচেতন মহল মনে করে, জনসাধারণের চলাচলের স্বার্থে দ্রুত কালভার্টটি মেরামত করা দরকার।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj