দ্বিতীয় কাঁচপুর সেতু আজ খুলে দেয়া হচ্ছে

শনিবার, ১৬ মার্চ ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দ্বিতীয় কাঁচপুর সেতু আজ খুলে দেয়া হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নতুন এই সেতুটি উদ্বোধন করবেন বলে জানা গেছে।

দ্বিতীয় কাঁচপুর সেতু নির্মাণ প্রকল্পের পরিচালক আবু সালেহ মো. নুরুজ্জামান জানান, ৩৯৭ দশমিক ৩০ মিটার দৈর্ঘ্য ও ১৮ দশমিক ১ মিটার প্রস্থের নতুন এই সেতুটি চার লেনের। পাঁচটি পিলারের ওপর স্টিল গার্ডারের সেতুটির ভিত্তি কংক্রিটের ঢালাই। আগামী ১০০ বছরের স্থায়িত্ব নির্ধারণ করেই এই সেতু নির্মাণ করা হয়েছে। ওবায়শি, শিমিজু, জেএফআই ও আইএইচআই নামে জাপানের চারটি প্রতিষ্ঠান যৌথভাবে কাজ করেছে। এদের সঙ্গে ছিল বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান মীর আকতার হোসেন। এই সেতু নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ১ হাজার ৩০০ কোটি টাকা। তবে জাপানি আর্থিক প্রতিষ্ঠান জাইকা মোট খরচের ৭৫ ভাগের জোগান দিয়েছে। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে বাকি ২৫ ভাগ অর্থায়ন করা হয়। গত ১০ মার্চ সেতুটির উদ্বোধন করার কথা ছিল। কিন্তু সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী অসুস্থ হয়ে পড়ার কারণে উদ্বোধন করা সম্ভব হয়নি। আজ প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করবেন। এরপরই সেতুটি সবার চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানায়, আগামী মে অথবা জুন মাসে নির্মাণাধীন দ্বিতীয় মেঘনা ও দ্বিতীয় গোমতি সেতুর নির্মাণ কাজ শেষে এই গুরুত্বপূর্ণ সেতু দুটিও চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হবে। এই দুটি সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হলে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক ব্যবহারকারী যাত্রীদের আর দীর্ঘ যানজটের ভোগান্তিতে পড়তে হবে না। অল্প সময়ের মধ্যেই ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে যাতায়াত করা সম্ভব হবে।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj