বিচারপতি মানিক : আসিফ নজরুল রাজাকার

শনিবার, ১৬ মার্চ ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের অধ্যাপক আ?সিফ নজরুলের পরিবার পাকিস্তানপন্থি বিহারি এবং তিনি একজন রাজাকার বলে মন্তব্য করেছেন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক।

গতকাল শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের তোফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে জাগো বাংলা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ‘বঙ্গবন্ধু : বাংলাদেশ ও স্বাধীনতা’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে তিনি এসব মন্তব্য করেন। বিচারপতি মানিক বলেন, আসিফ নজরুল কিন্তু বিহারি বাবার সন্তান। অনেক বিহারি কিন্তু আমাদের সঙ্গে ছিলেন, আমাদের সঙ্গে যুদ্ধ করেছেন। কিন্তু আসিফ নজরুলের পরিবার সেই বিহারি নন। তার পরিবার পাকিস্তানপন্থি বিহারি। অবসরপ্রাপ্ত এ বিচারপতি বলেন, অধ্যাপক এরশাদুল বারী তিনি আরেক জন রাজাকার। তার সহায়তায় আসিফ নজরুল ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ে পিএইচডি করেন এবং শিক্ষকতা করার সুযোগ পেয়েছেন।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য মোজাফফর হোসেন পল্টু বলেন, বঙ্গবন্ধুর কঠিন সংগ্রামে এ দেশ স্বাধীন হয়েছে। কারো বাঁশির হুইসেলে এ দেশ স্বাধীন হয়নি। অথচ তারা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কট‚ক্তি করে। তবে হাজার চেষ্টা করলেও তাদের এ কট‚ক্তি থেকে বিরত রাখা যাবে না। এদের থেকে আমাদের সব সময় দূরে থাকতে হবে।

ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটির ভিসি অধ্যাপক আব্দুল মান্নান চৌধুরী লিখিত বক্তব্যে বলেন, চুটিয়ে প্রচার করা হয়, জিয়াউর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে জাতি যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে। কিন্তু জিয়ার জীবদ্দশায় বিতর্কটি জমেনি। ইতিহাস ও জিয়ার লিখিত স্বীকারোক্তিকে অস্বীকার করা যায়নি বলে বাড়াবাড়িটা মাত্রা ছাড়ায়নি।

খালেদা জিয়ার প্রধানমন্ত্রীত্বের সময় ২৭ মার্চকে ২৬ মার্চ বানিয়ে বসে। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছিল, আর একটা সুযোগ পেলেই জিয়া শুধু ঘোষকই নন, বাংলাদেশের জাতীয়তাবাদীদের পিতৃ-পুরুষে রূপান্তরিত হতেন। বৈঠকে নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল অবসরপ্রাপ্ত মোহাম্মদ আলী শিকদার, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম, সম্প্রতি বাংলাদেশের আহ্বায়ক পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়, ডিইউজের সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj