শিবচর ও রাজবাড়ীর প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর সেবা : নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের ৭০ ভাগ কাজ শেষ হওয়ার পথে

শনিবার, ১৬ মার্চ ২০১৯

আছাদুজ্জামান : প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর সেবা নিশ্চিত করার কাজটি করে স্থানীয় সরকার বিভাগ। এরই সঙ্গে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর সারা দেশের রাস্তাঘাট, ব্রিজ, কালভার্ট, ড্রেনেজ, স্কুল-কলেজসহ সরকারের উন্নয়নমূলক কাজের একটি বড় অংশ বাস্তবায়ন করে সংস্থাটি।

এই মুহূর্তে এলজিইডির হাতে থাকা কাজগুলোর প্রায় ৭০ শতাংশ শেষ হওয়ার পথে। এগুলো বাস্তবায়ন হলে দেশের অনেক পৌরসভার চেহারা পাল্টে যাবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

আমাদের মাদারীপুরের শিবচর প্রতিনিধি জানান, পৌর এলাকায় নগর উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। পৌর এলাকার ৭১টি সড়ক পুনর্নির্মাণ কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে।

শিবচর পৌরসভা সূত্র জানায়, নগর উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ২০১৮ সালের নভেম্বরের শেষের দিকে শিবচর পৌরসভায় প্রায় ৫ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ শুরু হয়। এর মধ্যে প্রায় ১ কোটি ৪০ লাখ টাকা ব্যয়ে পৌর বাজারের ৭১টি সড়কের ৭৭৫ মিটার পুনর্নির্মাণের কাজ শেষ হয়েছে।

প্রায় ১ কোটি ৪৫ লাখ টাকা ব্যয়ে চৌধুরী ফাতেমা বেগম শিল্পকলা একাডেমির সামনে থেকে মেঘদূত সেতু ও মেডিপ্যাথ ল্যাব থেকে নন্দকুমার ইনস্টিটিউশন পর্যন্ত প্রায় ১ কিলোমিটার পাকা সড়ক নির্মাণকাজ চলছে। প্রায় ১ কোটি ৭৫ লাখ টাকা ব্যয়ে পৌরসভার সামনে থেকে দাদা ভাই সড়ক ও হাজি শরিয়াতুল্লাহ সড়কের পৌর কবরস্থান থেকে নলগোড়া খাজার ড্যাগ পর্যন্ত প্রায় ২৬০০ মিটার পাকা সড়ক নির্মাণের কাজ চলছে। এক বছর মেয়াদি এসব উন্নয়ন প্রকল্পের ৯০ ভাগ শেষ হয়েছে।

মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই সব কাজ শেষ করা হবে বলে জানিয়েছেন শিবচর পৌরসভার প্রকৌশলী মামুন-অর রশিদ। রাজবাড়ী পৌরসভার কার্যালয় সূত্রের বরাত দিয়ে আমাদের রাজবাড়ী জেলা প্রতিনিধি জানান, রাজবাড়ী পৌরসভার মধ্যে মোট ১০৭ কিলোমিটার সড়কের মধ্যে ছোট-বড় মিলিয়ে ২৯০টি সড়ক রয়েছে। আর ড্রেন রয়েছে ২৭ কিলোমিটারের ৮০টি। এই সড়ক ও ড্রেনের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পে (২য় পর্যায়) ৪৫ কিলোমিটার সড়ক আর ৬ কিলোমিটার ড্রেনের কাজ করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, প্রথম প্যাকেজে ৭ কোটি ২০ লাখ টাকা ব্যয়ে ১২ কিলোমিটার সড়ক সংস্কার করা হয়। আর ৬ কোটি ৫৪ লাখ টাকা ব্যয়ে দেড় কিলোমিটার নতুন করে ড্রেন নির্মাণ করা হয়।

বাকি দুটি প্যাকেজের চলমান কাজ নির্ধারিত সময়েই শেষ হবে। প্যাকেজ দুটি হলো- ১০ কোটি ৪৬ লাখ টাকা ব্যয়ে ১৬ দশমিক ৪১ কিলোমিটার সড়ক সংস্কার। এই কাজগুলো শেষ হবে ৩০ মার্চ।

রাজবাড়ী পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী এ এইচ এস মো. আলী খান বলেন, পৌরসভার চলমান প্রকল্পগুলোর কাজ সফলভাবে শেষ হলে পৌরবাসীর চলাফেরায় আর কোনো সমস্যা থাকবে না। কাজ দুটি নির্ধারিত সময়ে শেষ করার জন্য আমরা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে বারবার তাগিদ দিয়েছি।

জানতে চাইলে নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী কাজী মিজানুর রহমান ভোরের কাগজকে বলেন, এলজিইডি সরকারের একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান।

সারা দেশের রাস্তাঘাট, ব্রিজ, কালভার্ট, ড্রেনেজ, স্কুল-কলেজ এমনকি প্রান্তিক জনপদ থেকে শহর পর্যন্ত আমাদের প্রতিনিয়ত কাজ করতে হয়। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমাদের এই প্রকল্পে দক্ষ জনবল রয়েছে।

নির্ধারিত সময়ের আগেই এ প্রকল্প শেষ হবে। কাজের মান সম্পর্কে তিনি বলেন, কাজের মান ঠিক রেখেই আমরা আমাদের প্রকল্পের কাজ শেষ করব।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj