চালকের আসনে ইংল্যান্ড

মঙ্গলবার, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

খেলা ডেস্ক : সফরকারী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বেশ দাপটের সঙ্গে প্রথম দুই টেস্ট জিতে সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছে ক্যারিবীয়রা। এ দুই টেস্টে উইন্ডিজ পেসারদের সামনে দাঁড়াতেই পারেননি ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা। সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্টে সেন্ট লুসিয়ার ড্যারেন স্যামি স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয়েছে ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এই টেস্টে সফরকারীদের হোয়াইটওয়াশ করতে মাঠে নেমেছে স্বাগতিকরা। তবে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা এড়াতে ঘুরে দাঁড়িয়েছে জো রুট বাহিনী। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত দ্বিতীয় ইনিংসে ইংল্যান্ডের সংগ্রহ ২ উইকেটে ১০৮ রান। ফলে ২৩১ রানে লিড পেয়েছে সফরকারীরা।

এর আগে তৃতীয় টেস্টে ইংল্যান্ডের বোলারদের দাপটে অল্প রানে গুটিয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম ইনিংস। নিজেদের প্রথম ইনিংসে ২৭৭ রান তুলতে সক্ষম হয় ইংলিশরা। এরপর ক্যারিবীয়দের প্রথম ইনিংস ১৫৪ রানে গুটিয়ে দিয়েছেন তারা। স্বাগতিকদের অলআউট করে ব্যাটিংয়ে নেমে দ্বিতীয় ইনিংসে বিনা উইকেটে ১৯ রান তুলে দিন শেষ করে সফরকারীরা। চলতি সিরিজে প্রথমবারের মতো কোনো টেস্টে চালকের আসনে বসতে পেরেছে ইংল্যান্ড।

ইংলিশ বোলার মঈন আলি এবং ডানহাতি পেসার মার্ক উড দুর্দান্ত বোলিং করে বিধ্বস্ত করেছেন উইন্ডিজ ব্যাটসম্যানদের। মাত্র ৪৭.২ বল স্থায়ী হয় তাদের প্রথম ইনিংস। ৪১ রান খরচায় উড নিয়েছেন ৫ উইকেটে। আর মঈন ৩৬ রান দিয়ে নিয়েছেন ৪ উইকেট। বাকি এক উইকেট গেছে স্টুয়ার্ট ব্রডের ঝুলিতে।

ক্যারিবীয়দের প্রথম ইনিংসে সর্বোচ্চ রান এসেছে জন ক্যাম্পবেলের ব্যাট থেকে। মঈন আলীর বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ার আগে এই ওপেনার করেছেন ৪১ রান। আর ব্রডের বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ার আগে দলের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৮ রান করেন শন ডোরিচ। স্বাগতিকদের ইনিংসে দুই অঙ্ক ছোঁয়া অন্য দুই ব্যাটসম্যান অধিনায়ক কার্লোস ব্র্যাথওয়েট (১২) ও কেমার রোচ (১৬)। এ ছাড়া আর কোনো ব্যাটসম্যান দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি। এক কথায় বলা যায়, উইন্ডিজদের কোমর সোজা করে দাঁড়াতেই দিলেন না মার্ক উড ও মঈন আলী।

এর আগে স্বাগতিক বোলারদের সামনে বেশি সময় ব্যাট করতে পারেনি ইংল্যান্ড। ৪ উইকেটে ২৩১ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করে ২৭৭ রানেই শেষ হয়ে যায় তাদের প্রথম ইনিংস। কেমার রোচের দুর্দান্ত বোলিংয়ের সামনে বেশি সময় দাঁড়িয়ে থাকা সম্ভব হয়নি ইংলিশদের। প্রথম ইনিংসে ৭৯ রান আসে বেন স্টোকসের ব্যাট থেকে। এ ছাড়া জস বাটলার ৬৭ রান করে দলকে সম্মানজনক স্কোরে নিয়ে যান।

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj