দুপচাঁচিয়ায় ডজনখানেক সম্ভাব্য প্রার্থী প্রচারে

মঙ্গলবার, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

মো. আজিজুল হক, দুপচাঁচিয়া (বগুড়া) থেকে : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রেশ কাটতে না কাটতেই দুপচাঁচিয়ায় বইতে শুরু করেছে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের হাওয়া। জমে উঠেছে প্রচার-প্রচারণাও। নির্বাচন নিয়ে পাড়া-মহল্লায় আলোচনা-সমালোচনায় সরগরম হয়ে উঠছে। চেয়ারম্যান পদে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের দুজন প্রার্থী দলীয় মনোনয়ন পেতে দৌড়ঝাঁপের পাশাপাশি জনসংযোগ অব্যাহত রেখেছেন। এ ছাড়া আরো তিনজন চেয়ারম্যানসহ প্রায় এক ডজন প্রার্থী নির্বাচনী মাঠে জনসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন। এবারই প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিকভাবে দলীয় প্রতীকে উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। নির্বাচন কমিশন ইতোমধ্যেই প্রথম দফার নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করেছে। আর মার্চের শুরু থেকে ৫ ধাপে অনুষ্ঠিত হবে এ নির্বাচন। এদিকে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, আওয়ামী লীগ স্থানীয়

সরকারের এই নির্বাচনে জোটগতভাবে অংশ নেবে না। তবে আওয়ামী লীগ শুধু একজন উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীকে দলীয় মনোনয়ন দেবে। ইতোমধ্যেই এ উপজেলা থেকে সম্ভাব্য দুজন চেয়ারম্যান প্রার্থীর নাম জেলা থেকে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। এরা হলেন- উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ মিজানুর রহমান খান সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ ফজলুল হক। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ড যাকে দলীয় মনোনয়ন দেবে একমাত্র তিনি নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নেবেন। যদিও এই দুজন প্রার্থী প্রচারণার পাশাপাশি দলীয় মনোনয়ন পেতে বিভিন্ন নেতার কাছে দৌড়ঝাঁপসহ তৃণমূল পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছেন।

উপজেলা চেয়ারম্যান পদে এই দুজন প্রার্থী ছাড়াও তৃতীয়বারের মতো হাটট্রিক বিজয়ের লক্ষ্যে প্রচারণার মাঠে রয়েছেন পর পর দুবার নির্বাচিত ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল গণি মণ্ডল এবং এরশাদ সরকারের শাসনামলে প্রথম ও দ্বিতীয় দফায় দুবার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নির্বাচিত চেয়ারম্যান কল্যাণ প্রসাদ পোদ্দার প্রচারণার মাঠে নেমেছেন। এ ক্ষেত্রে উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান বর্ষীয়ান রাজনৈতিক নেতা আব্দুস সামাদও পিছিয়ে নেই। তিনিও উপজেলা চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করার ঘোষণা দিয়ে মাঠে নেমেছেন। তিনি নেতাকর্মীদের সুসংগঠিত করার পাশাপাশি জনসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন।

পাঁচজন চেয়ারম্যানের পাশাপাশি সম্ভাব্য ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আহমেদুর রহমান বিপ্লব, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আব্দুস সবুর খন্দকার ও গোবিন্দপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান সখিনা বেগম, শামীমা আক্তার মুক্তা, মাছুমা আক্তার রাঙ্গা ও গোবিন্দপুর ইউনিয়নের মহিলা সদস্য কাবেরী মাহমুদা অনন্যা নির্বাচনী প্রচারণার মাঠে রয়েছেন। সব মিলিয়ে প্রার্থীদের নীরব প্রচার-প্রচারণায় এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণা অনেকটা জমে উঠেছে।

এদিকে বিএনপির হাইকমান্ড উপজেলা নির্বাচনে অংশ না নেয়ার ঘোষণা দেয়ায় এ ক্ষেত্রে বিএনপি রয়েছে সম্পূর্ণ নীরব। উল্লেখ্য, ২টি পৌরসভা ও ৬টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত দুপচাঁচিয়া উপজেলায় মোট ভোটার ১ লাখ ৪০ হাজার ৩০৩ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ৬৯ হাজার ৪৫১ ও মহিলা ভোটার ৭০ হাজার ৮৫২ জন।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj