অনন্তকালের সেই রাজপুত্তুর : আসলাম সানী

সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০১৬

এসেছিল মাটি থেকে মাঠ-ঘাট মাড়িয়ে

আকাশের দিকে তাঁর হাত দুটি বাড়িয়ে

যে স্বপ্ন ঘুমিয়ে সে দেখেছিল একা

সে স্বপ্ন হয় যেন সকলের দেখা

তাই কি-না শোনালো সে নতুন এক সুর

সে তো ছিল মুক্তির রাজপুত্তুর-

দেখেছিল পাখি আর শুনেছিল গান

শুনেছিল উত্তাল ঢেউ কলতান

শুনেছিল কৃষকের-রাখালের গাথা

ছুঁয়েছিল মানুষের দুচোখের পাতা

বুকে মেঘ জমেছিল-হৃদয়ের দুপুর

রোদেলা দিনের সেই রাজপুত্তুর-

মায়ের আঁচল ছেড়ে স্নেহ-মায়া ভুলে

এসেছিল রাজপথে দুয়ারটা খুলে

খুঁজেছিল আমাদের বিজয়ের তিথি

তুচ্ছ করেছে ভয়-মৃত্যুর ভীতি

সে তো ছিল আমাদের স্বপ্নমুকুর

কালের আরাধ্য সে রাজপুত্তুর-

একদা সে পাল তুলে ধরেছিল হাল

আঁধারের বাঁধ ভেঙে এনেছে সকাল

দৈত্য-দানোর সাথে লড়াইয়ে মাতে

টকটকে সূর্যকে পেতে চায় হাতে

উত্তাল ইতিহাস সেই একাত্তুর

বজ্রমুখর সেই রাজপুত্তুর-

অবশেষে মেঘ কেটে আকাশ উজ্জ্বল

দানবের পরাজয়ে খুশি কোলাহল

শোকে-দুঃখে আনন্দে নতুন এক দেশ

ঘ্রাণে-গানে, প্রাণে-প্রাণে সুখের আবেশ

জাগালো সে আমাদের এ নিদ্রাপুর

অনন্তকালের সেই রাজপুত্তুর।

জাতীয় শোক দিবস : বিশেষ সংখ্যা ২০১৬'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj