×

জাতীয়

ছাগলকাণ্ডে মতিউরের সঙ্গে গভর্নরের ছবি ভাইরাল, নেটিজেনদের রসাত্মক মন্তব্য

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ২৯ জুন ২০২৪, ০৭:১৯ পিএম

ছাগলকাণ্ডে মতিউরের সঙ্গে গভর্নরের ছবি ভাইরাল, নেটিজেনদের রসাত্মক মন্তব্য

ছাগলকাণ্ডে মতিউরের সঙ্গে গভর্নরের ছবি ভাইরাল, নেটিজেনদের রসাত্মক মন্তব্য। ছবি: সংগৃহীত

ছাগলকাণ্ডে আলোচিত সাবেক রাজস্ব কর্মকর্তা মো. মতিউর রহমান সম্পর্কে একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসছে। তার সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদারের সখ্যতা নিয়েও গত কয়েক দিন ধরে শোনা যাচ্ছে গুঞ্জন।

এরমধ্যে দুজনের একসঙ্গে ওমরা করা ও গভর্নরকে শুভেচ্ছা জানানোর ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে এ নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠে। মতিউর রহমান ২০২২ সালের ১ ফেব্রুয়ারি ৩ বছরের জন্য সোনালী ব্যাংকের পরিচালক পদে নিয়োগ পান। বর্তমান গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার ওই সময় অর্থসচিব ছিলেন। তার জোর সুপারিশে মতিউর সোনালী ব্যাংকের পরিচালক হয়েছিলেন বলে মন্তব্য করছেন অনেকেই।

জানা গেছে, ছবিটি ২০২৩ সালে হজের সময়ে সৌদি আরবে তোলা। অপর ছবিটি ২০২২ সালের আগস্টে আব্দুর রউফ তালুকদার গভর্নর নিয়োগের পর তাকে শুভেচ্ছা জানাতে বাংলাদেশ ব্যাংকে যান মতিউর রহমান। বুধবার ছবি দুটি ভাইরাল হলেও গত কয়েক দিন ধরেই দুইজনের সখ্যতার বিষয়ে ব্যাংকপাড়াসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে আলোচনা সমালোচনা।

ফেসবুকে একজন লিখেছেন, মাসতুতো ভাই তারা। কতটা নিরাপদ ব্যাংকখাত, প্রশ্ন জনমনে। 

অন্য আরেকজন লিখেছেন, একজন করখেকো, অন্যজন ব্যাংক।

এক ফেসবুক ব্যবহারকারী লিখেছেন, সবাই ডাকাত, কে কাকে ধরবে? 

আলতাফুর রহমান নামে একজন লিখেছেন, চোরে চোরে মাসতুতো ভাই।

প্রিয়া আসাদ নামের একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী লিখেছেন, শেষ পর্যন্ত জনগণ ঐক্যবদ্ধ হলে ওরা পালিয়ে যেতে বাধ্য হবে হবেই।

উল্লেখ্য, ১৬ জুন একটি গণমাধ্যমে- ‘রাজস্ব কর্মকর্তার ছেলের অর্ধকোটির কোরবানি’ শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশের পর সেটি আলোচনায় আসে। প্রতিবেদন অনুযায়ী, মুশফিকুর রহমান ইফাত নামের এক তরুণ ১২ লাখ টাকায় একটি ছাগলসহ অর্ধকোটি টাকার কোরবানির পশু কেনেন। 

এই তরুণের অর্থের উৎস জানতে গিয়ে জানায় যায়, ইফাত রাজস্ব কর্মকর্তা মতিউর রহমানের দ্বিতীয় স্ত্রীর বড় সন্তান।

আরো পড়ুন: গুঁড়িয়ে দেয়া হলো সাদিক অ্যাগ্রো

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App