×

জাতীয়

সঞ্জিভা গার্ডেনে শাহিন-শিলাস্তি একসঙ্গে, সিসিটিভিতে যা দেখা গেল

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ২৫ মে ২০২৪, ১০:০৯ পিএম

সঞ্জিভা গার্ডেনে শাহিন-শিলাস্তি একসঙ্গে, সিসিটিভিতে যা দেখা গেল

ছবি: সংগৃহীত

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত আমানউল্লাহ শাহিন ও শিলাস্তি রহমানের কলকাতার নিউটাউনের সঞ্জিভা গার্ডেনে অবস্থানের একটি ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ হয়েছে। ভিডিওটি গত ৩০ এপ্রিলের।

ওই ভিডিওতে দেখা যায়, ট্রলিব্যাগসহ আমানউল্লাহ শাহিন ও শিলাস্তি রহমান বেরিয়ে আসছেন। এ সময় দুজন বেশ তাড়াহুড়ো করছিলেন। তবে ঠিক কী কারণে তারা সেখানে যান, এ বিষয়ে এখনো বিস্তারিত জানা যায়নি।

শনিবার (২৫ মে) রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিবি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ জানান, এমপি আনারকে প্রথমে ক্লোরোফর্ম দিয়ে অজ্ঞান করা হয়, পরে তাকে হত্যা করে লাশ গুম করে হত্যাকারীরা।

তিনি আরো বলেন, এমপি আনারকে হত্যার পরিকল্পনা আগেও দুবার করা হয়েছে। নির্বাচনের আগে এবং জানুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে দেশে তাকে হত্যার পরিকল্পনা হয়। দুবার ব্যর্থ হওয়ার পর তৃতীয় দফায় তাকে হত্যা করতে সক্ষম হয় পরিকল্পনাকারীরা।

হত্যাকাণ্ডের মোটিভ কী সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ডিবিপ্রধান বলেন, ‘স্পেসিফিক রিজন বলতে পারছি না। অনেক মোটিভই থাকতে পারে। পূর্বশত্রুতার জেরে হতে পারে, আর্থিক লেনদেন সংক্রান্ত হতে পারে, রাজনৈতিক বিষয়ও থাকতে পারে। এসব বিষয় জানতে তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত বলা যাচ্ছে না।’

আরো পড়ুন: আনারের খণ্ড-বিখণ্ড মরদেহ সামনে রেখেই খাবার খান হত্যাকারীরা!

তিনি বলেন, ‘আমরা সবকিছুই বিচার-বিশ্লেষণ করব। আসামিরা অনেক কথাই বলছে, তদন্তের স্বার্থে প্রকাশ করছি না।’

এদিকে গত ১৩ মে কলকাতার নিউটাউনের একটি অভিজাত অ্যাপার্টমেন্টের ফ্ল্যাটে নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার হন এমপি আনার। তাকে হত্যার পর কীভাবে মরদেহ গুম করার চেষ্টা চালানো হয়েছে—সেসব তথ্য এখন সামনে আসছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম মিন্ট শুক্রবার (২৪ মে) পুলিশের বরাতে জানিয়েছে, এমপি আনারকে হত্যা ও তার মরদেহ টুকরো টুকরো করার পর সেটির পাশে বসেই খাবার ও মদ খায় হত্যাকারীরা।

পুলিশের বরাতে সংবাদমাধ্যমটি আরো জানিয়েছে, হত্যার পর আনারের মরদেহ ফ্ল্যাটের বাথরুমে নেয়া হয়। সেখানেই বসে টুকরো টুকরো করা হয় তাকে। বাথরুমে যেন হত্যার কোনো আলামত না থাকে সেজন্য কয়েকবার পানি এবং ডিটারজেন্ট ব্যবহার করে এটি পরিষ্কার করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ১২ মে চিকিৎসার জন্য এমপি আনোয়ারুল আজিম আনার দর্শনা-গেদে সীমান্ত দিয়ে ভারতে যান। সেখানে গিয়ে তিনি তার ভারতীয় ঘনিষ্ট বন্ধু পশ্চিমবঙ্গের উত্তর২৪ পরগনা জেলার বরানগর থানার অন্তর্গত ১৭/৩ মণ্ডলপাড়া লেনের বাসিন্দা স্বর্ণ ব্যবসায়ী গোপাল বিশ্বাসের বাড়িতে ওঠেন। পরদিন ১৩ মে দুপুরে চিকিৎসক দেখানোর উদ্দেশ্যে বেরিয়ে যান। কিন্তু সন্ধ্যায় ফেরার কথা থাকলেও তিনি আর ফিরে আসেননি। এরপর গত ২২ মে কলকতার নিউটাউনের একটি ফ্ল্যাটে তার খুন হওয়ার বিষয়টি জানায় ভারতীয় পুলিশ। 

টাইমলাইন: ভারতে এমপি আজিম হত্যাকাণ্ড

আরো পড়ুন

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App