×
Icon এইমাত্র
কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কোটা আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশ টেলিভিশনের মূল ভবনে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিটিভির সম্প্রচার বন্ধ। কোটা সংস্কার আন্দোলনে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১৯ জন নিহত কোটা ইস্যুতে আপিল বিভাগে শুনানি রবিবার: চেম্বার আদালতের আদেশ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ‘লাশ-রক্ত মাড়িয়ে’ সংলাপে বসতে রাজি নন আন্দোলনকারীরা

আন্তর্জাতিক

নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার গুঞ্জন উড়িয়ে দিলেন বাইডেন

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ০৪ জুলাই ২০২৪, ০৮:৪০ এএম

নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার গুঞ্জন উড়িয়ে দিলেন বাইডেন

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা জানিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তবে সে গুঞ্জন উড়িয়েছে দিয়েছেন তিনি। তিনি বলেছেন, আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তিনিই প্রার্থী হিসেবে লড়বেন। তিনি দলের মনোনীত প্রার্থী। তাকে কেউ বাইরে ঠেলে দিচ্ছে না।

স্থানীয় সময় বুধবার (৩ জুলাই) ডেমোক্রেটিক দলের নির্বাচনী প্রচারাভিযানে থাকা কিছু ব্যক্তির সঙ্গে ফোনকলে এসব কথা বলেন বাইডেন।

বার্তাসংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রেসিডেন্ট প্রার্থিতা নিয়ে উদ্বেগে থাকা ব্যক্তিদের বাইডেন ওই ফোনকলে যুক্ত করেছিলেন। এ সময় তিনি বলেন, আমিই নির্বাচনে লড়ছি। ট্রাম্পের বিরুদ্ধে নির্বাচনী দৌড় থেকে কেউ আমাকে বাইরে ঠেলে দিচ্ছে না। আমিও প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে কোথাও সরে যাচ্ছি না।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বিতর্কে ধরাশায়ী হওয়ার পর থেকে আগামী নভেম্বরের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে সরে যেতে বাইডেনের ওপর চাপ ক্রমে বাড়ছে। এমনকি নিজের দল ডেমোক্রেটিক পার্টির ভেতর থেকেও চাপের মুখে পড়েছেন তিনি। এদিকে দলের অভ্যন্তরীণ চাপের মুখে বাইডেন পদত্যাগ করতে পারেন-এমন একটি আলোচনা চাউর হয়েছিল। তবে বুধবার এক প্রশ্নের জবাবে বিষয়টি নাকচ করে দিয়েছেন হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি কারিন জন-পিয়ের। তার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল বাইডেন পদত্যাগের বিষয়টি বিবেচনা করবেন কি না? জবাবে কারিন বলেন, ‘অবশ্যই, না’।

আরো পড়ুন : ট্রাম্পের সঙ্গে বিতর্কে ঘুমিয়ে পড়েছিলেন বাইডেন

সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে টিভি বিতর্কের পর বাইডেনের জনপ্রিয়তায় ধস নেমেছে। এমনকি তার দল ডেমোক্রেটিক পার্টির এক-তৃতীয়াংশ মনে করেন, নির্বাচনী দৌড় থেকে সরে দাঁড়ানো উচিত বাইডেনের। মঙ্গলবার রয়টার্স/ইপসোস পরিচালিত এ সম্পর্কিত এক জরিপের ফল প্রকাশের পর আসন্ন নির্বাচন থেকে বাইডেনের সরে যাওয়া নিয়ে জোর আলোচনা শুরু হয়েছে। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, বাইডেনের বিকল্প প্রার্থী কে হতে পারেন তা নিয়েও এরইমধ্যে অনেকে কথা বলছেন।

জরিপে অংশ নেয়া ডেমোক্র্যাটদের ৩২ শতাংশ মনে করেন, নভেম্বরে অনুষ্ঠেয় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন থেকে বাইডেনের সরে দাঁড়ানো উচিত। প্রেসিডেন্সিয়াল বিতর্কের প্রসঙ্গ টেনে তারা বলছেন, ওই বিতর্কে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও আগামী নির্বাচনে রিপাবলিকান দলের প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প একের পর এক মিথ্যা বললেও তাকে চ্যালেঞ্জ জানাতে পারেননি বাইডেন।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার রাতে জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের আটলান্টায় সিএনএনের স্টুডিওতে ট্রাম্প ও বাইডেনের মধ্যে বিতর্ক অনুষ্ঠিত হয়। এই বিতর্কে মার্কিন ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি বয়সী (৮১ বছর) প্রেসিডেন্ট বাইডেন ছিলেন বেশ নিষ্প্রভ। ট্রাম্পের বাক্যবাণে প্রথম দিকে অনেকটাই কোণঠাসা হয়ে পড়েন তিনি।

সূত্র: রয়টার্স

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App