×
Icon এইমাত্র
কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কোটা আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশ টেলিভিশনের মূল ভবনে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিটিভির সম্প্রচার বন্ধ। কোটা সংস্কার আন্দোলনে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১৯ জন নিহত কোটা ইস্যুতে আপিল বিভাগে শুনানি রবিবার: চেম্বার আদালতের আদেশ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ‘লাশ-রক্ত মাড়িয়ে’ সংলাপে বসতে রাজি নন আন্দোলনকারীরা

আন্তর্জাতিক

গাজায় যুদ্ধবিরতি চুক্তির কোনো অগ্রগতি নেই: হামাস

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ৩০ জুন ২০২৪, ১১:৩৮ এএম

গাজায় যুদ্ধবিরতি চুক্তির কোনো অগ্রগতি নেই: হামাস

ছবি: সংগৃহীত

গাজায় চলমান যুদ্ধ নিয়ে ইসরায়েলের সঙ্গে যুদ্ধবিরতি আলোচনায় কোনো অগ্রগতি হয়নি বলে জানিয়েছে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস। এছাড়া সংঘাতের অবসানে হামাস আলোচনা করতে প্রস্তুত বলেও জানিয়েছে গোষ্ঠীটি। অন্যদিকে লাখো ইসরায়েলি বিক্ষোভকারী আবারো দেশটির তেল আবিবের রাজপথে নেমে বিক্ষোভ করেছেন। এসময় তারা সরকারের কাছে গাজায় আটক থাকা বন্দিদের বাঁচানোর এবং যুদ্ধবিরতি চুক্তি করার দাবি জানায়। রবিবার (৩০ জুন) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

লেবাননে অবস্থান করা হামাসের সিনিয়র কর্মকর্তা ওসামা হামদান শনিবার বলেছেন, ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী এই গোষ্ঠী প্রায় নয় মাসের সংঘাতের অবসান ঘটায় এমন যেকোনো যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা করতে এখনো প্রস্তুত। লেবাননের রাজধানী বৈরুতে এক সংবাদ সম্মেলনে হামদান বলেন, ‘হামাস যেকোনো প্রস্তাবের বিষয়ে ইতিবাচকভাবে কাজ করতে প্রস্তুত যেটাতে স্থায়ী যুদ্ধবিরতি, গাজা উপত্যকা থেকে (ইসরায়েলি সেনাদের) ব্যাপকভাবে প্রত্যাহার এবং গুরুত্বপূর্ণ বন্দি বিনিময় চুক্তি নিশ্চিত করে। যুদ্ধবিরতির বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত আরব মধ্যস্থতাকারীদের প্রচেষ্টা এ পর্যন্ত যেকোনো ধরনের যুদ্ধবিরতি নিশ্চিত করতে ব্যর্থ হয়েছে। গাজায় সংঘাতরত উভয় পক্ষই এই অচলাবস্থার জন্য একে অপরকে দায়ী করেছে।

হামাস বরাবরই বলেছে, যেকোনো চুক্তির জন্য অবশ্যই গাজায় চলমান যুদ্ধের অবসান ঘটাতে হবে এবং গাজা থেকে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীকে সম্পূর্ণ প্রত্যাহার করতে হবে। অন্যদিকে ইসরায়েল বলেছে, ২০০৭ সাল থেকে গাজা শাসনকারী হামাসকে ‘নির্মূল’ না করা পর্যন্ত যুদ্ধে তারা কেবল সাময়িক বিরতি গ্রহণ করবে। ইসরায়েলের শর্ত মেনে নিতে হামাসের ওপর চাপ প্রয়োগের জন্য যুক্তরাষ্ট্রকেও অভিযুক্ত করেন হামদান।

এদিকে গাজায় আটক থাকা বন্দিদের বাঁচাতে এবং যুদ্ধবিরতি চুক্তি করার দাবিতে হাজার হাজার ইসরায়েলি বিক্ষোভকারী আবারো দেশটির তেল আবিবের রাজপথে নেমে বিক্ষোভ করেছেন। তেল আবিবে সরকার বিরোধী এই বিক্ষোভের আয়োজকরা অনুমান করেছেন, ১ লাখ ৩০ হাজার ইসরায়েলি শনিবার রাতের এই বিক্ষোভে যোগ দিয়ে শহরের কেন্দ্রস্থলে জড়ো হয়েছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ৭ অক্টোবর হামাসের নজিরবিহীন আন্তঃসীমান্ত হামলার পর থেকে ইসরায়েল গাজা উপত্যকায় অবিরাম বিমান ও স্থল হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। হামলায় ৩৭ হাজার ৮৩০ জন নিহত হয়েছেছেন। এছাড়া গত বছরের অক্টোবর থেকে চলা এই হামলায় আহত হয়েছেন আরো প্রায় ৮৭ হাজার ফিলিস্তিনি।

আরো পড়ুন: ৮৮ বছরে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতের রেকর্ড

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App