×

আন্তর্জাতিক

৫০ দিনের মধ্যেই ইরানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন, অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন মোখবের

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ২০ মে ২০২৪, ০৩:৩২ পিএম

৫০ দিনের মধ্যেই ইরানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন, অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন মোখবের

ছবি: সংগৃহীত

হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রইসির স্থলাভিষিত্ত হচ্ছেন দেশটির ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মোখবের। সংবিধান অনুযায়ী, প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করার কথা ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মোখবেরের হলেও এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষমতা সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনির। ইরানের গার্ডিয়ান কাউন্সিলের মুখপাত্র হাদি তাহান নাজিফ সোমবার দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমকে এ কথা জানান। খবর: ইরনার। 

সংবিধানের ১৩১ ধারা অনুযায়ী এই পদে মোহাম্মদ মোখবেরকে অনুমোদন দেয়ার পর সর্বোচ্চ নেতা অনুমোদন বা নিশ্চয়তা দিলে তিনি প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্বে আসবেন। তাকেই বাকি সব কর্মপ্রক্রিয়া নির্ধারণ করতে হবে। বর্তমান ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মোখবেরের বয়স ৬৮ বছর। এখন পর্যন্ত যেসব তথ্য পাওয়া যাচ্ছে তাতে তিনিই হচ্ছেন নতুন অন্তর্বর্তী সরকারের প্রেসিডেন্ট। তার নেতৃত্বে স্পিকার ও বিচার বিভাগের প্রধান মিলে প্রেসিডেন্টের মৃত্যুর ৫০ দিনের মধ্যে নতুন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করবেন।

মোহাম্মদ মোখবেরের জন্ম ১৯৫৫ সালের ১ সেপ্টেম্বর। তাকে আয়াতুল্লাহ আলি খামেনির খুব ঘনিষ্ঠ বলে বিবেচনা করা হয়। ২০২১ সালে রইসি প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার সময় তিনি ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। অক্টোবরে ইরানের একটি প্রতিনিধি দল মস্কো সফর করেন। সেই টিমে ছিলেন মোহাম্মদ মোখবের। এই সফরে ভূমি থেকে ভূমিতে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র এবং অধিক পরিমাণে ড্রোন রাশিয়ার সেনাবাহিনীকে সরবরাহ দিতে রাজি হয় ওই প্রতিনিধি দল। ওই দলে ছিলেন ইরানের রেভ্যুলুশনারি গার্ডের সিনিয়র দু’জন কর্মকর্তা এবং সুপ্রিম ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের একজন কর্মকর্তা। সুপ্রিম নেতার সঙ্গে সম্পর্কিত একটি বিনিয়োগ বিষয়ক তহবিল ‘সেতাদ’-এর প্রধান হিসেবে এর আগে দায়িত্ব পালন করেছেন মোহাম্মদ মোখবের।

পারমাণবিক বা ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ইরানের যেসব ব্যক্তি ও এনটিটির বিরুদ্ধে ২০১০ সালে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে তার মধ্যে মোহাম্মদ মোখবের অন্যতম। তবে দু’বছর পরে ওই তালিকা থেকে তার নাম বাদ দেয় ইইউ।  ২০১৩ সালে সেতাদ এবং ৩৭টি ইরানি কোম্পানির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ মন্ত্রণালয়। ইসলামিক প্রজাতন্ত্রের প্রতিষ্ঠাতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনির নির্দেশে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল সেতাদ।


সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App