×

আন্তর্জাতিক

যুক্তরাষ্ট্র অস্ত্র সরবরাহ বন্ধ করলে ইসরায়েল একাই লড়বে: নেতানিয়াহু

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ১১ মে ২০২৪, ১০:০২ এএম

যুক্তরাষ্ট্র অস্ত্র সরবরাহ বন্ধ করলে ইসরায়েল একাই লড়বে: নেতানিয়াহু

ছবি: সংগৃহীত

ইসরায়েল রাফায় হামলা চালালে যুক্তরাষ্ট্র ইসরায়েলকে অস্ত্র সরবরাহ বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের এমন হুমকিতে নেতানিয়াহু বলেন- ‘ইসরায়েল একাই লড়তে পারে। প্রয়োজনে আমরা আমাদের নখ দিয়ে লড়াই করবো।’ খবর বিবিসির

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন- ‘রাফাহ হামলা চালানো হলে ইসরায়েলকে প্রতিশ্রুত আর্টিলারি শেলসহ কিছু অস্ত্র আটকে দেবে যুক্তরাষ্ট্র। গাজায় ব্যাপকহারে বেসামরিক লোক মৃত্যুর আশঙ্কায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইতোমধ্যে একটি বোমার চালান স্থগিত করেছ।’ 

বৃহস্পতিবার অবশ্য ইসরায়েল তাদের ঘনিষ্ঠ এ মিত্র যুক্তরাষ্ট্রের সতর্কতা প্রত্যাখ্যান করে। এসময় ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু ১৯৪৮ সালের যুদ্ধের কথা স্মরণ করেন। 

নেতানিয়াহু বলেন- ‘৭৬ বছর আগে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় আমরা অনেকের বিরুদ্ধে অল্প ছিলাম, আমাদের কাছে কোনো অস্ত্র ছিল না। ইসরায়েলের ওপর অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা ছিল। কিন্তু আমাদের মাঝে প্রবল চেতনা, বীরত্ব ও ঐক্যের জোর আমদেরকে বিজয়ী করেছে।’

তিনি আরো বলেন- ‘বাইডেন যদি অস্ত্রও সরবরাহ বন্ধ করে দেয় তবে ইসরায়েল তাদের লড়াই বন্ধ করবে না। প্রয়োজনে নখ দিয়ে লড়াই করবে। ঈশ্বর আমাদের সঙ্গে আছেন। আমরা অবশ্যই বিজয়ী হবো।’

ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইয়োআভ গ্যালান্ট বলেছেন- ‘ইসরায়েলের শত্রুদের পাশাপাশি বন্ধুদেরও বোঝা উচিৎ যে ইসরায়েল কারো দয়ার উপর নির্ভরশীল নয়। ইসরায়েলকে দমিয়ে রাখা যাবে না। আমরা দৃঢ়তার সঙ্গে দাঁড়াবো এবং খুব শীঘ্রই আমাদের লক্ষ্য অর্জন করবো।’

জাতিসংঘ জানিয়েছে- ‘ইসরায়েলি ট্যাঙ্কগুলো রাফার কাছাকাছি চলে এসেছে। ক্রমাগত বোমাবর্ষণের মাঝে সোমবার থেকে ৮০ হাজারেরও বেশি মানুষ রাফাহ থেকে পালিয়েছে। রাফায় আশ্রয় নেয়া মানুষের সংখ্যা ১০ লাখেরও বেশি। কিন্তু তাদের খাদ্য ও জ্বালানি শেষ হয়ে যাচ্ছে। কারণ এই শহরটি তার কাছাকাছি সংযোগস্থলগুলো তেকে কোন সহায়তা পাচ্ছে না।’

ফিলিস্তিনি মিডিয়া জানিয়েছে যে বৃহস্পতিবার বিকেলে রাফাহর আল-জেনেহ পাড়ায় ইসরায়েলি বিমান হামলায় দুইজন নিহত হয়েছে। এটি রাফাহর পূর্বাঞ্চলীয় এলাকাগুলোর মধ্যে অন্যতম। সোমবার রাতে স্থল অভিযান শুরু করার আগে যেখানকার বাসিন্দাদের সরে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলো ইসরায়েল প্রতিরক্ষা বাহিনী (আইডিএফ)। এসময় নিকটবর্তী ব্রাজিল এলাকায় বিমান হামলায় আরো ৩ জন নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে। যদিও মিশরীয় সীমান্তবর্তী এই এলাকাটি কোনো ইভ্যাকুয়েশন জোন নয়।

হামাস বলেছে- ‘তারা রাফাহর পূর্বাঞ্চলে ৩টি ইসরায়েলি সামরিক গাড়ির নিচে থাকা একটি টানেল উড়িয়ে দিয়েছে। আইডিএফ জানিয়েছে, বিস্ফোরণের ফলে তাদের ৩ সেনা আহত হয়েছে। এসময় শহরের পশ্চিম দিকের তাল আল-সুলতান পাড়ায় একটি বাড়িতে ইসরায়েলি হামলায় অন্তত ৫ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, নিহতদের মাঝে ৩ শিশু রয়েছে। 

সপ্তাহের শুরুতে গাজা ইসরায়েলের মাঝে শান্তিচুক্তি হওয়া নিয়ে যে আশার আলো দেখা গিয়েছিলো, তা এখন ম্লান হতে শুরু করেছে। যদিও সেই শান্তিচুক্তিতে হামাস সম্মত হলেও ইসরায়েল সম্মতি দেয়নি। বৃহস্পতিবার কায়রোতে ইসরায়েল ও হামাসের উভয় প্রতিনিধিই পরোক্ষ আলোচনা বন্ধ করার পর রাফায় হামলা শুরু করে ইসরায়েল। গাজায় টানা ৭ মাস যুদ্ধের পর ইসরায়েল জোর দিয়ে বলছে যে রাফাহ শহর দখল করা এবং হামাসের অবশিষ্ট ব্যাটালিয়নগুলোকে নির্মূল করা ছাড়া বিজয়লাভ অসম্ভব ব্যাপার।

গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েলের দক্ষিণ অঞ্চলে হামলা চালায় হামাস। ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষের মতে, সেই হামলায় ১২০০ জন নিহত হয়েছিলো এবং ২৫২ জনকে জিম্মি করা হয়েছিলো। সেই হামলার প্রতিক্রিয়া হিসাবে হামাসকে ধ্বংস করার জন্য গাজা জুড়ে সামরিক অভিযান শুরু করে ইসরায়েল। এদিকে, গাজায় হামাস পরিচালিত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মতে, গত বছরের অক্টোবর থেকে এখন পর্যন্ত সেখানে ৩৪ হাজার ৯০০ জনেরও বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এছাড়া, ইসরায়েল বলেছে যে যাদেরকে জিম্মি করা হয়েছে, তাদের মধ্যে ১২৮ জনের হিসাব নেই এবং জিম্মিদের মধ্যে ৩৬ জনের ইতোমধ্যে মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আরো পড়ুন: মিশরে ইসরায়েলি গুপ্তচরকে গুলি করে হত্যা

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App