×

আন্তর্জাতিক

সরকারি অর্থ খরচ করে ভোটের প্রচার করছেন মোদি!

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ২০ মার্চ ২০২৪, ১০:২৬ এএম

সরকারি অর্থ খরচ করে ভোটের প্রচার করছেন মোদি!

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে মোদির বিরুদ্ধে দ্বিতীয় নির্বাচনী বিধিভঙ্গের অভিযোগ আনল তৃণমূল। এর আগে বায়ুসেনার হেলিকপ্টারে চড়ে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনী প্রচার করেছেন বলে অভিযোগ করেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল।

নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে আগেই নির্বাচনী বিধিভঙ্গের অভিযোগ এনে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছে তৃণমূল। সোমবার মোদি এবং বিজেপির বিরুদ্ধে নতুন এক অভিযোগ জানিয়ে কমিশনকে চিঠি দিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল। এবারের অভিযোগ, সরকারি অর্থ খরচ করে ভোটের প্রচার করছেন মোদি এবং তার দল। খবর: আনন্দবাজার পত্রিকার। 

কমিশনকে পাঠানো চিঠিতে তৃণমূল লিখেছে, গত ১৫ মার্চ ‘আমার প্রিয় পরিবারবর্গ’ বলে একটি চিঠি লেখেন। সেখানে গত এক দশকে কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচি এবং প্রকল্পের কথা রয়েছে। হোয়াট্‌সঅ্যাপের মাধ্যমে গোটা দেশের জনগণের কাছে ছড়িয়ে দেয়া হয় ওই বার্তা। 

কিন্তু সেই বার্তার একটি অংশে লেখা ছিল ‘‘এই চিঠিটি পাঠিয়েছে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন ভারত সরকার। গত ১০ বছরে ভারতের ১৪০ কোটির বেশি জনগণ সরাসরি কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে উপকৃত হয়েছেন। আগামীতেও তারা উপকৃত হবেন।’’ 

তৃণমূলের যুক্তি, মোদির নেতৃত্বে ভারত সরকার এই চিঠি পাঠাচ্ছে বলে বলা হচ্ছে। কিন্তু আসন্ন লোকসভা ভোটে প্রধানমন্ত্রী নিজে বারাণসী কেন্দ্র থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তাই এটা স্পষ্ট যে সরকারি অর্থকে ব্যবহার করে ভোটের আগে সরকারি প্রকল্পের প্রচার করছেন নরেন্দ্র মোদি এবং বিজেপি।

সোমবার কমিশনকে পাঠানো চিঠিতে তৃণমূল অভিযোগ করেছে, নির্বাচন কমিশন ভোট ঘোষণার পর ওই বার্তা হোয়াট্‌সঅ্যাপে ছড়ানো স্পষ্টতই নির্বাচনী আদর্শ বিধি ভঙ্গের উদাহরণ। রাজনৈতিক প্রচারে সরকারি অর্থ এবং পদ ব্যবহার করা সমীচীন নয়। তাই কমিশন মোদি এবং বিজেপির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করুক। সংশ্লিষ্ট চিঠিতে তৃণমূলের তরফে সই রয়েছে তাদের রাজ্যসভার নেতা ডেরেক’ও ব্রায়েনের। চিঠির শেষে সংশ্লিষ্ট হোয়াট্‌সঅ্যাপ মেসেজের স্ক্রিনশটও কমিশনকে পাঠিয়েছে তৃণমূল।

সম্প্রতি অন্ধ্রপ্রদেশের পালনাডুর চিলাকালুরিপেটে নির্বাচনী সমাবেশে গিয়েছিলেন মোদি। তৃণমূলের অভিযোগ, ভারতীয় বায়ুসেনার হেলিকপ্টারে চড়ে ওই সমাবেশে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী। এতেই লঙ্ঘিত হয়েছে নির্বাচনী আচরণবিধি। 

এ নিয়ে নির্বাচন কমিশনের চিঠি পাঠিয়ে অভিযোগ জানিয়েছে তৃণমূল। তৃণমূলের তরফে এই অভিযোগ জানান দলের রাজ্যসভার সাংসদ সাকেত গোখলে। তিনি এক্স হ্যান্ডলে (সাবেক টুইটার) চিঠির প্রতিলিপিও পোস্টও করেন।

উল্লেখ্য, নির্বাচনী প্রচারে সরকারি পরিবহণ, যন্ত্র বা নিরাপত্তারক্ষী ব্যবহার করা যায় না। তৃণমূলের দাবি, ভারতীয় বায়ুসেনার হেলিকপ্টার ব্যবহার করে মোদি যে আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন সেই একই বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে ১৯৭৫ সালে শাস্তির মুখে পড়তে হয়েছিল তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীকেও।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App