×

আন্তর্জাতিক

পাকিস্তানে কোনো দলই সরকার গঠন করতে চায় না!

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৮:৪৪ এএম

পাকিস্তানে কোনো দলই সরকার গঠন করতে চায় না!

গত ৮ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানে জাতীয় পরিষদের ২৬৬টি আসনের মধ্যে ২৬৫ আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) সমর্থিত স্বতন্ত্ররা ৯২টি আসনে জয় পান। নওয়াজ শরীফের মুসলিম লীগ (পিএমএলএন) পায় ৭৫টি আসন। আর বিলাওয়াল ভু্ট্টো জারদারির পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) ৫৪টি আসনে জয় তুলে নেয়। বাকি আসনগুলো পায় ছোট দলগুলো।

নির্বাচনে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি কোনো দল। নির্বাচন হওয়ার ৯ দিন পেরিয়ে গেলেও-কোন দল সরকার গঠন করবে সেটি এখনো নিশ্চিত হয়নি।

নির্বাচন শেষ হওয়ার পরপর সরকার গঠনের জন্য দৌড়ঝাপ শুরু করেছিল নওয়াজ শরীফের পিমএলএন। তারা বিলাওয়াল ভু্ট্টোর পিপিপির সঙ্গে জোট গঠনের চেষ্টা শুরু করে। তবে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি পিপিপি প্রধান বিলাওয়াল ভুট্টো জানান তারা সরকারে যোগ দেবেন না। এর বদলে পিপিপি বিরোধী দল হিসেবে সংসদে যাবে। তিনি বলেন, ‘সরকার গঠন করার মতো ম্যান্ডেট আমাদের নেই।’

এদিকে শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) ইমরান খান তার দল পিটিআইকে নির্দেশ দেন- জাতীয় পরিষদে যেন বিরোধী দল হিসেবে যায় তারা।

বিলাওয়াল ও ইমরানের কথায় স্পষ্ট, তারা সরকার গঠন বা সরকারে যোগ দেয়ার পরিবর্তে বিরোধী দলের ভূমিকা পালন করতে চায়।

কিন্তু শুক্রবার পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমে আসা নতুন এক খবরে বলা হয়, নওয়াজ শরীফের পিএমএলএনের একটি অংশ ‘সরকার গঠন’ নিয়ে আপত্তি জানিয়েছে। ওই অংশের ভাষ্য, যেহেতু তারা একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা বা কোনো ধরনের সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি সেহেতু তাদের সরকার গঠন করা উচিত হবে না। তাদের আশঙ্কা, যদি তারা সরকার গঠন করেনও সেটি খুবই দুর্বল সরকার হবে এবং খুব বেশিদিন টিকতে পারবে না।

পিএমএল-এনের অন্যতম জ্যেষ্ঠ নেতা খাজা সাদ রফিক দলের এই অংশের নেতৃত্বে রয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে এক পোস্টে শুক্রবার খাজা সাদ রফিক বলেন, ‘পিটিআই যেহেতু সবচেয়ে বেশি আসন পেয়েছে, তাই তাদেরই উচিত পিপিপির সঙ্গে জোট করে সরকার গঠন করা। দেশের বর্তমান যে পরিস্থিতি, তাতে এই মুহূর্তে সরকার গঠনে নেতৃত্ব দেয়ার মানে হলো নিজের মুকুটকে কাঁটা দিয়ে সজ্জিত করা এবং আমরা মনে করি, পিএমএল-এনের এমন কোনো ইচ্ছে নেই।’

যদিও পিএমএলএন আনুষ্ঠানিকভাবে গোটা দলের পক্ষ থেকে এখনো কিছু ঘোষণা করেনি, তবে সরকার গঠনে তাদের অনেক নেতারই যে আপত্তি আছে তা পরিষ্কার।

শেষ পর্যন্ত যদি তারা সরকারে না যাওয়ার দলীয় সিদ্ধান্ত নেয় তাহলে কী হবে পাকিস্তানে? ইমরান, বিলাওয়াল তো আগেই বলে দিয়েছেন, তারা সরকার গঠন করবেন না। কে তাহলে পরবর্তী সরকার গঠন করবে? তবে কি ‘গুঞ্জন‘ সত্যি হবে, সেনাবাহিনী ক্ষমতা নিয়ে নেবে? পাকিস্তানের সর্বত্র এখন চলছে এসব আলোচনা। পাকিস্তানি টিভি চ্যানেলগুলোতে চলছে ‘উৎকণ্ঠা’র বিশ্লেষণ।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App