×

আন্তর্জাতিক

রাফাহর সব বাসিন্দাকে সরানো হবে: নেতানিয়াহু

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৩:৪৬ পিএম

রাফাহর সব বাসিন্দাকে সরানো হবে: নেতানিয়াহু

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকার দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর রাফাহর সব বাসিন্দাকে সরানো হবে। ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনীকে (আইডিএফ) শিগগিরই এ সংক্রান্ত একটি পরিকল্পনা করার নির্দেশও দিয়েছেন তিনি। শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) এক বিবৃতিতে আইডিএফ নিশ্চিত করেছে এ তথ্য। 

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘আমরা শিগগিরই গাজায় বড় আকারের অভিযান পরিচালনা করতে যাচ্ছি এবং সেই অভিযানে বেসামরিক লোকজন হতাহতের ঘটনা এড়াতে চাইছি। এ কারণেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী (বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু) এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় রাফাহ থেকে বেসামরিক ফিলিস্তিনিদের সরাতে চাইছে এবং আইডিএফকে এ সংক্রান্ত একটি পরিকল্পনা প্রণয়নের নির্দেশ দিয়েছে।’

জাতিসংঘের তথ্য অনুযায়ী, গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর রাফায় বসবাস করেন ১৩ লাখেরও বেশি ফিলিস্তিনি। তবে ইসরায়েলি বাহিনী গাজায় অভিযান শুরুর পর তাদের একটি বড় অংশই নিজেদের বাড়িঘর ছেড়ে বিভিন্ন শরণার্থী শিবিরে আশ্রয় নিয়েছেন। যে অল্পসংখ্যক ফিলিস্তিনি রাফায় এখন রয়েছেন, এবার তাদেরও সরানোর পরিকল্পনা করছে ইসরায়েল।

গত বৃহস্পতিবার অবশ্য এক ভাষণে নেতানিয়াহু বলেছিলেন, হামাসের সর্বশেষ ঘাঁটি হলো রাফাহ। শিগগিরই সেখানে ইসরায়েলি অভিযান শুরু করবে।

আইডিএফের এক কর্মকর্তা মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনকে জানিয়েছেন, হামাসের অন্তত ৪টি ব্যাটেলিয়ান আত্মগোপন করে আছে। ওই কর্মকর্তা বলেন, আমাদের এই অভিযানের মিশন হামাসকে সম্পূর্ণ নির্মূল করা। রাফায় (হামাসের) ৪টি ব্যাটেলিয়ানের সঙ্গে মোকাবিলা না করে এই মিশন শেষ করা সম্ভব নয়।

উল্লেখ্য গত ৭ অক্টোবর ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকার নিয়ন্ত্রণকারী গোষ্ঠী হামাসের যোদ্ধারা গাজার উত্তরাঞ্চলীয় ইরেজ সীমান্তে অতর্কিত হামলা চালিয়ে ১ হাজার ২০০ জন মানুষকে হত্যার পাশাপাশি ২৪০ জন ইসরায়েলি ও বিদেশি নাগরিককে ধরেও নিয়ে যায়। অভূতপূর্ব সেই হামলার পর সেদিন থেকেই গাজায় অভিযান শুরু করে ইসরায়েলি বাহিনী।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App