×

বিনোদন

মিমি চক্রবর্তী

মাতৃত্ব উপভোগ করতে সব সময় সন্তানের জন্ম দিতে হয় না

Icon

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশ: ১২ মে ২০২৪, ১১:১৩ এএম

মাতৃত্ব উপভোগ করতে সব সময় সন্তানের জন্ম দিতে হয় না

ছবি: সংগৃহীত

বেশি ক্ষণ বাইরে গিয়ে কাজ করলেই তিন সন্তানের কথা মনে হয়। মন খারাপ হলেও ওদের দেখতে ইচ্ছা করে। যখন বাড়িতে থাকেন, তখন তাই ওদের সঙ্গেই সময় কাটান। তিনি নায়িকা। প্রাক্তন সংসদ সদস্য। বাংলা তো বটেই, অন্য রাজ্যেও তিনি জনপ্রিয়, ঘরে ঘরে তার নাম। কিন্তু সন্তানদের প্রসঙ্গ উঠলে শুধুই মাতৃত্ব ছলকে পড়ে প্রতি বাক্যে। পর্দার চাকচিক্য তখন কোথায়! তিনি তখন যেন আর পাঁচজন মায়ের মতোই।

বলছি মিমি চক্রবর্তীর কথা । নিজেকে তিনি তিন সন্তানের মা বলে পরিচয় দিতেও ভালোবাসেন। সে ভাবেই সব দায়িত্ব পালন করেন। তাদের খাওয়াদাওয়া থেকে ‘স্পা’য়ে গিয়ে আহ্লাদ-সব কিছুর দিকে সমান নজর। আর বলেন, ‘‘মাতৃত্ব উপভোগ করার জন্য সব সময়ে সন্তানের জন্ম দিতে হয় না। নিজের মতো করে ভালোবাসলে এবং দায়িত্ব পালন করেও মা হওয়া যায়।’’

মিমির সন্তানেরা চারপেয়ে। নাম চিকু জুনিয়র, ম্যাক্স এবং জাদু। এক জন ল্যাবরাডর, এক জন হাস্কি আর তৃতীয় জন ইন্ডি। এই তিন সারমেয় সন্তানকে নিয়েই তারকা মিমির সংসার। 

ছোটবেলা থেকেই চারপেয়েদের নিয়ে থাকেন মিমি। তবে ২০১২ সাল থেকে তিনি মা হিসাবে পরিপূর্ণ দায়িত্ব পালন করছেন। চিকু আসে তার জীবনে। এখন চিকু, তার প্রথম সেই সন্তান, নেই। তার মৃত্যুর পরে ভেঙে পড়েছিলেন বটে। তবে তার পরে আরও তিন সন্তান এসেছে মিমির জীবনে। সংসার সব মিলে ভরে উঠেছে। ব্যস্ততাও চরমে থাকে। বলেন, ‘‘তিন জনে খুবই আহ্লাদে থাকে। আমার ‘স্পা’য়ে যাওয়ার সময় না থাকলেও ওরা ঠিক ‘স্পা’য়ে গিয়ে আরাম করে।’’ নিজে রোজ সময় দিতে না পারলেও এ ভাবেই সারমেয় শিশুদের যত্ন রাখার ব্যবস্থা করেন মিমি।

মা হিসাবে বেশ কড়া মিমি চক্রবর্তী। সন্তানদের ‘স্পা’য়ে যেতে দিলেও বাইরের খাবার একেবারেই বারণ। তিনি বলেন, ‘‘কোনও ‘প্যাকেজড’ খাবার খাওয়াই না ওদের। সব খাবার বাড়িতে তৈরি হয়। হয় নিজে বানাই, না হলে রেসিপি বলে দিই। ভাত, মুরগির মাংস, সবজি দিয়ে তৈরি হয় ওদের বিশেষ খাবার।’’ এ ছাড়াও যখন যেমন সময় পান, বানিয়ে দেন নিজে হাতেই। যেমন গরমের সময়ে ‘ইয়োগার্ট পপসিকলস’, ‘ব্লুবেরি’ বা তরমুজের ‘পপসিকলস’ বানান সন্তানদের জন্য।

মানসিক স্বাস্থ্য নিয়েও বেশ ভাবনাচিন্তা করেন মিমি। আর বলেন, ‘‘আমার সন্তানেরা হল দারুণ ‘থেরাপিস্ট’। আমি নিজের মনোবিদকেও বলেছি সে কথা।’’ জাদু, চিকু, ম্যাক্সরা বাড়িতে থাকলে আর মনখারাপের সুযোগ থাকে না ওঁর। মায়েদের যেমন হয় আর কি!

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App